WireBD

কোয়ালকমের নতুন প্রোসেসর স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ : থাকছে ৫জি সাপোর্ট!

স্মার্টফোন প্রোসেসর তৈরিতে অ্যাপলের পাশাপাশি কোয়ালকম সবথেকে বেশি জনপ্রিয় পৃথিবীর সবথেকে হাই এন্ড এবং বেস্ট স্মার্টফোন প্রোসেসরগুলো তৈরি করার জন্য। অধিকাংশ ফ্ল্যাগশিপ এবং বাজেট থেকে মিডরেঞ্জ স্মার্টফোনেই কোয়ালকমের ৬০০,৭০০ এবং ৮০০ সিরিজের প্রোসেসর ব্যবহার করা হয়। এখনো পর্যন্ত কোয়ালকমের সবথেকে পাওয়ারফুল এবং লেটেস্ট প্রোসেসর ছিলো স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫, যা কোয়ালকম গত বছর রিলিজ করেছিলো। কোয়ালকম প্রত্যেক বছরই এমন সময়ে তাদের ফ্ল্যাগশিপ প্রোসেসরগুলো আপগ্রেড করে যার ফলে তারা নতুন প্রোসেসরগুলোতে আরও নতুন ফিচারস এবং আরও বেটার পারফরমেন্স প্রোভাইড করতে পারে। তাই এবছরও Hawaii তে অনুষ্ঠিত হওয়া স্ন্যাপড্রাগন টেকনোলজি সামিট অনুষ্ঠানে কোয়ালকম অ্যানাউন্স করেছে তাদের নতুন হাই এন্ড প্রোসেসর, স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫, যা কোয়ালকমের বর্তমান ফ্ল্যাগশিপ গ্রেড প্রোসেসর স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ এর একটি পারফেক্ট আপগ্রেড।

তবে প্রতিবছরের মতো এই নতুন প্রোসেসরতি শুধুমাত্র স্পেকস আপগ্রেড নয় বা শুধুমাত্র যে আগের প্রোসেসরটির তুলনায় পাওয়ারফুল নয়, বরং এই প্রোসেসরটির সবথেকে বড় ফিচারটি হচ্ছে এটি ৫জি নেটওয়ার্ক সাপোর্টেড এবং সামনের বছর অর্থাৎ ২০১৯  এ রিলিজ হওয়া ৫জি সাপোর্টেড স্মার্টফোনগুলোতে দেখা মিলবে এই আপগ্রেডেড স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্রোসেসরের। কোয়ালকমের ভাষ্যমতে, এই নতুন প্রোসেসরটি ৫জি নেটওয়ার্কে মাল্টি-গিগাবিট ডাউনলোড স্পিড প্রোভাইড করতে পারবে।

এছাড়াও কোয়ালকম আরও জানিয়েছে যে এই নতুন স্ন্যাপড্রাগন ৭ ন্যনোমিটার ম্যানুফ্যাকচারিং প্রোসেসে তৈরি ৮৫৫ প্রোসেসর আগের ৮৪৫ এর তুলনায় তিন গুন বেটার AI পারফরমেন্স দিতে পারবে। এছাড়া Raw পারফরমেন্স আগের থেকে কিছুটা বেটার হলেও তেমন কোন আকাশা-পাতাল পার্থক্য পাওয়া যাবেনা Raw পারফরমেন্সে (প্রত্যেক বছরের মতোই)। তবে গেমিং পারফরমেন্স এবং অগমেন্টেড রিয়ালিটির ক্ষেত্রেও ৮৪৫ এর তুলনায় অনেকটা বেটার পারফর্ম করবে স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫। তবে ঠিক কতটা বেটার এবং অভারঅল পারফরমেন্স আগের থেকে কতটা বেটার হবে, সে বিষয়ে ক্লিয়ারলি তেমন কিছুই জানায়নি কোয়ালকম।

ওয়্যারবিডি নিউজ

সোশ্যাল মিডিয়া

লজ্জা পাবেন না, সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে টেকহাবসের সাথে যুক্ত হয়ে সকল আপডেট গুলো সবার আগে পান!