WireBD

অ্যাপলকে পেছনে ফেলে বর্তমানে মাইক্রোসফট পৃথিবীর সবথেকে মূল্যবান কোম্পানি

প্রথমবারের মতো ৭৫৩.৩ বিলিয়ন ইউএস ডলার নিয়ে অ্যাপলকে পেছনে ফেলে পৃথিবীর সবথেকে মূল্যবান কোম্পানি এখন সফটওয়্যার জায়ান্ট, মাইক্রোসফট। ২০১০ এর পর থেকে এই প্রথম টেক জায়ান্ট অ্যাপলকে পেছনে ফেলতে পেরেছে মাইক্রোসফট। বিগত ২০১০ সালে অ্যাপল সর্বপ্রথম মাইক্রোসফটকে ওভারটেক করে পৃথিবীর সবথেকে মূল্যবান কোম্পানি হিসেবে। তারপর থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত অ্যাপলই ছিলো পৃথিবীর সবথেকে মূল্যবান কোম্পানি। চলতি বছরের আগস্ট মাসে অ্যাপল ১ ট্রিলিয়ন ডলার কোম্পানির খাতায় প্রথম নাম লিখিয়েছিলো। তবে এরপর থেকেই অ্যাপলের প্রোফিটে হালকা ধস নামতে শুরু করে এবং গত শুক্রবারে অ্যাপলের অর্থ-সম্পদের পরিমান ১ ট্রিলিয়ন ডলারের থেকে কমে ৭৪৬ বিলিয়ন ইউএস ডলারে দাঁড়ায়। ঠিক এইসময় ৭.৩ বিলিয়ন ডলারের পার্থক্য নিয়ে মাইক্রোসফট পৃথিবীর সবথেকে মূল্যবান কোম্পানি হিসেবে অ্যাপলকে ওভার-টেক করে। এছাড়া সবথেকে অর্থশালী কোম্পানিগুলোর মধ্যে তৃতীয় স্থানে রয়েছে অ্যামাজন (৭৩৬.৬ বিলিয়ন) এবং চতুর্থ স্থানে আছে অ্যালফাবেট (৭২৫.৫ বিলিয়ন), যা গুগলের প্যারেন্ট কোম্পানি।

মাইক্রোসফট এর স্টক ভ্যালুও বেশ ভালোই যাচ্ছে বিগত কয়েক বছর ধরে। ক্লাউড কম্পিউটিং এবং উইন্ডোজ ডিভাইস সেকশনে সফটওয়্যার জায়ান্ট, মাইক্রোসফট বেশ ভালো পরিমান প্রোফিট করতে পেরেছে। Microsoft Azure এবং Microsoft Surface ডিভাইসগুলো মাইক্রোসফটের এই অসামান্য সাফল্যের অন্যতম কারন হিসেবে মনে করছে তারা। উইন্ডোজ ফোন প্রোজেক্টটি ছিলো মাইক্রোসফটের সবথেকে বড় লস। তবে সেটাও তাদের নেট প্রোফিটকে খুব বেশি অ্যাফেক্ট করতে পারেনি। এবছরের প্রথমদিকেই মাইক্রোসফট গুগলকে ওভারটেক করেছে অর্থসম্পদের হিসেবে। গত মাসে পৃথিবীর সবথেকে বড় ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রি, অ্যামাজনকেও ওভারটেক করেছে মাইক্রোসফট। তবে এত প্রতিযোগিতার যুগে মাইক্রোসফট তাদের প্রথম স্থান কতদিন ধরে রাখতে পারে সেটাই দেখার বিষয়।

ওয়্যারবিডি নিউজ

সোশ্যাল মিডিয়া

লজ্জা পাবেন না, সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে টেকহাবসের সাথে যুক্ত হয়ে সকল আপডেট গুলো সবার আগে পান!