স্যামসাং জে২ (২০১৬) | রিভিউ | আপনার কি কেনা উচিৎ?

স্যামসাং জে২ (২০১৬)

সম্প্রতি স্যামসাং বাজারে জে২ (২০১৬) নামক একটি স্মার্টফোন উন্মুক্ত করেছে। যা গত বছরের জে২ এর একটি নতুন সংস্করণ। তবে এখনো জে২ এর পুরাতন ভার্সনের সমর্থন বন্ধ করা হয়নি। স্যামসাং জে২ বাজারে এসেছে ৫-ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে, ১.৫ গিগাহার্জ প্রসেসর, ১.৫ জিবি র‍্যাম, ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ মার্সমাল্যো এবং সাথে আরো কিছু নিয়ে। চলুন জেনে নেওয়া যাক ফোনটির সকল সুবিধা অসুবিধা এবং আপনার কেনা উচিৎ কিনা তার সম্পর্কে।

স্যামসাং জে২ (২০১৬) সুবিধা সমূহ

  • ৫-ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে
  • স্মার্ট গ্ল্যো ফিচার
  • অ্যান্ড্রয়েড মার্সমাল্যো
  • টার্বো স্পীড টেকনোলজি
  • এস বাইক মুড
  • সহজে হাতে ধরা যায়

স্যামসাং জে২ (২০১৬) অসুবিধা সমূহ

  • জাইরোস্কোপ সেন্সর এবং অ্যাম্বিয়েন্ট লাইট সেন্সর নেই
  • মাত্র ১.৫ জিবি র‍্যাম
  • কম আলোতে ক্যামেরা পারফর্মেন্স খুব বেশি ভালো না
  • মাত্র ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ

ফটো গ্যালারী

Key SpecsSamsung Galaxy J2 (2016)
Display5 inches Super AMOLED Display
Screen ResolutionHD (1280 x 720)
Operating SystemAndroid 6.0.1 Marshmallow
ProcessorQuad-core 1.5 GHz Cortex-A7
ChipsetSpreadtrum SC8830
GPUMali-400MP2
Memory1.5 GB RAM
Inbuilt Storage8 GB
Storage UpgradeYes, up to 128 GB via microSD card
Primary Camera8 MP with LED flash
Video recording[email protected]
Secondary Camera5 MP
Battery2600 mAh
Fingerprint SensorNo
4G readyYes
SIM card typeDual SIM
WaterproofNo
Weight134 g
Dimensions142.4 x 71.1 x 8 mm
PriceBDT. 13,490 Tk. Rs. 9,750

প্রশ্ন- ডিজাইন এবং বিল্ড কোয়ালিটি কেমন?

উত্তর- স্যামসাং জে২ এর ডিজাইন একদমই সাধারন এবং প্ল্যাস্টিক দিয়ে এর বডি প্রস্তুত করা হয়েছে। কিন্তু এর সাথে একটি নতুন ফিচার যুক্ত করা হয়েছে যার নাম হলো স্মার্ট গ্ল্যো। স্মার্ট গ্ল্যো সাধারনত একটি এলইডি লাইট যা পেছনের ক্যামেরার চারিদিকে গোল করে লাগানো রয়েছে। এবং বিভিন্ন প্রকারের নোটিফিকেশনে এটি বিভিন্ন রঙে জ্বলে উঠে। এই ফোনটির ডিসপ্লে ৫ ইঞ্চি যা ৬৮% অনুপাতে বডির সাথে সংযুক্ত। এই ফোনটির ডাইমেন্সান হলো ১৪২.৪ x ৭১.১ x ৮ এমএম এবং ওজন ১৩৪ গ্রামস।

প্রশ্ন- ফোনটির ডিসপ্লে কোয়ালিটি কেমন?

উত্তর- স্যামসাং জে২ (২০১৬) তে রয়েছে ৫-ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে [অ্যামোলেড ডিসপ্লে কি বিস্তারিত জানুন]। এই ফোনটির স্ক্রীন রেজুলেসন এইচডি অর্থাৎ ১২৮০ x ৭২০ এবং সাথে রয়েছে ২৯৪ পিপিআই পিক্সেল ঘনত্ব [পিপিআই (পিক্সেল পার ইঞ্চি) কি?]। সর্বপরি এই ফোনটির ডিসপ্লে কোয়ালিটি ভালো এবং ভালো অ্যাঙ্গেল ভিউ দেখতে পাওয়া সম্ভব।

প্রশ্ন- ফোনটির হার্ডওয়্যার কেমন হবে?

উত্তর- ফোনটিতে কোয়াড-কোর ১.৫ গিগাহার্জ কর্টেক্স-এ৭ প্রসেসর শক্তি সঞ্চারণ করছে এবং সাথে রয়েছে মালি-৪০০এমপি২ জিপিইউ [জিপিইউ কি? আপনার ফোনের জন্য কতটা প্রয়োজনীয়?]। ফোনটিতে রয়েছে ১.৫ জিবি র‍্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, যা আমার কম মনে হয়েছে [ফোনের জন্য কতটা র‍্যাম প্রয়োজনীয়?]।

প্রশ্ন- ফোনটির ক্যামেরা স্পেসিফিকেশন কেমন?

উত্তর- স্যামসাং জে২ (২০১৬) ফোনটিতে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলস আসল ক্যামেরা এবং সাথে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশ [ক্যামেরায় মেগাপিক্সেলই কি সবকিছু?]। ফোনটির সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেলস ক্যামেরা কিন্তু কোন এলইডি ফ্ল্যাশ নেই।

প্রশ্ন- ফোনটি কি এইচডি ভিডিও রেকর্ডিং সমর্থন করে?

উত্তর- হ্যাঁ।

প্রশ্ন- ফোনটির ব্যাটারি স্পেসিফিকেশন কি?

উত্তর- ফোনটির পেছনে রয়েছে ২৬০০ এমএএইচ ব্যাটারি যা রিমুভেবল [রিমুভেবল এবং নন-রিমুভেবল ব্যাটারির মধ্যে কোনটি ভালো?]।

প্রশ্ন- ফোনটি কি ফাস্ট চার্জিং সমর্থন করে?

উত্তর- না। [ফাস্ট চার্জিং বা কুইক চার্জিং কি? কীভাবে কাজ এই প্রযুক্তি কাজ করে?]

প্রশ্ন- স্যামসাং জে২ (২০১৬) তে কি ডুয়াল সিম স্লট রয়েছে?

উত্তর- হ্যাঁ, এই ফোনটিতে ডুয়াল সিম স্লট রয়েছে।

প্রশ্ন- ফোনটিতে কি ৩.৫ এমএম অডিও জ্যাক রয়েছে?

উত্তর- হ্যাঁ।

প্রশ্ন- ফোনটিতে কি মেমোরি কার্ড লাগানোর অপশন রয়েছে?

উত্তর- হ্যাঁ, আপনি ১২৮ জিবি পর্যন্ত মাইক্রো এসডি লাগাতে পারবেন। [মেমোরি কার্ড কেনার আগে জানুন]

প্রশ্ন- ফোনটিতে কোন অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে?

উত্তর- ফোনটিতে অ্যান্ড্রয়েড ৬.০.১ মার্সমাল্যো অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে এবং এর উপরে স্যামসাং এর নিজস্ব ইউআই লাগানো রয়েছে। [জানুন কেন আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনে আপডেট আসে না]

প্রশ্ন- ফোনটিতে কি কি কানেক্টিভিটি অপশন রয়েছে?

উত্তর- ফোনটিতে কানেক্টিভিটি অপশন হিসেবে রয়েছে ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, এফএম, জিপিএস, ইউএসবি, ৩জি, ৪জি।

প্রশ্ন- ফোনটিতে কি কোন স্পেশাল ফিচারস রয়েছে?

উত্তর- হ্যাঁ, ফোনটিতে রয়েছে জনপ্রিয় ফিচার এস-বাইক মুড এবং এর আরেকটি স্পেশাল ফিচার হলো স্মার্ট গ্ল্যো। এছাড়াও রয়েছে টার্বো স্পীড টেকনোলজি, আলট্রা ডাটা সেভিংস মুড।

প্রশ্ন- এই স্মার্ট গ্ল্যো ফিচারটি কি?

উত্তর- স্মার্ট গ্ল্যো হলো একটি সম্পূর্ণ নতুন এলইডি নোটিফিকেশন সিস্টেম, যা ফোনটির পেছনের দিকের ক্যামেরার চারিপাশে অবস্থিত। বিভিন্ন কন্টাক্ট এবং অ্যাপস এর সাথে আপনি নোটিফিকেশন পেতে বিভিন্ন কালার সেট করতে পারবেন। যখনই কোন অ্যাপ থেকে নোটিফিকেশন আসবে তখন এই এলইডিটি আপনার সেট করা কালারে জ্বলে উঠবে। তাছাড়া আপনি ব্যাটারি এবং স্টোরেজ এর উপর অ্যালার্ট লাগাতে পারবেন। ব্যাটারি এবং স্টোরেজ এক নির্দিষ্ট পরিমানে ফুরিয়ে যাবার পরে স্মার্ট গ্ল্যো জ্বলে উঠবে। তাছাড়াও স্মার্ট গ্ল্যো ব্যবহার করে আপনি পেছনের ক্যামেরা দিয়েও সেলফি উঠাতে পারবেন। যখনই পেছনের ক্যামেরা আপনার ফেসের দিকে ধরবেন তখন যদি স্ক্রীনে আপনার ফেস ভালোভাবে চলে আসে তবে স্মার্ট গ্ল্যোটি নীল রঙে জ্বলে উঠবে এবং আপনার সেলফি উঠাবে।

প্রশ্ন- টার্বো স্পীড টেকনোলজি কি?

উত্তর- স্যামসাং জে২ (২০১৬) তে রয়েছে এই স্পেশাল ফিচার যার নাম টার্বো স্পীড টেকনোলজি। এই ফিচারটি আপনার ফোনের র‍্যামকে আরো উন্নতভাবে কাজ করার জন্য সাহায্য করবে। এবং এই প্রযুক্তি দাবি করে যে, ডাবল র‍্যামের ফোন থেকেও ৪০% বেশি দ্রুতভাবে অ্যাপ ওপেন করতে পারে।

প্রশ্ন- এসডি কার্ডে কি অ্যাপস মুভ করতে পারবো?

উত্তর- না।

প্রশ্ন- ফোনটিতে কি থিম অপশন রয়েছে?

উত্তর- হ্যাঁ।

প্রশ্ন- ফোনটির কল কোয়ালিটি কেমন?

উত্তর- কল কোয়ালিটি প্রত্যাশা স্বরূপ।

প্রশ্ন- ফোনটি কোন কোন কালারে পাওয়া যাচ্ছে?

উত্তর- ফোনটি কালো, সোনালি, এবং সিলভার কালারে পাওয়া যাচ্ছে।

প্রশ্ন- প্রথম বুটের পরে ফোনটিতে কতটা র‍্যাম ফাঁকা পাওয়া গেছে?

উত্তর- প্রথম বুটের পরে ফোনটিতে ৭৬৪ মেগাবাইটস র‍্যাম ফাঁকা পাওয়া গেছে।

প্রশ্ন- ইউজার কতটা ফাঁকা ইন্টারনাল স্টোরেজ ব্যবহার করতে পারবে?

উত্তর- ৮ জিবির মধ্যে একজন ইউজার মোটামুটি ৩.৯ জিবি ফাঁকা স্টোরেজ ব্যবহার করতে পারবেন।

প্রশ্ন- ফোনটির গেমিং পারফর্মেন্স কেমন?

উত্তর- হার্ডওয়্যারের দিকে লক্ষ্য রাখলে ফোনটির গেমিং পারফর্মেন্স খুব ভালো। ফোনটিতে আমরা এইচডি গেম প্লে করে দেখেছি, কোন সমস্যা খুঁজে পাওয়া যায় নি। গেমিং করার সময় গরম হওয়ারও কোন সমস্যা নেই।

প্রশ্ন- ফোনটির কি গরম হওয়ার সমস্যা রয়েছে?

উত্তর- না। [আপনার ফোন কি অত্যাধিক গরম হয়ে যায়? জেনেনিন কেন হচ্ছে, এবং প্রতিকার জানুন]

প্রশ্ন- ফোনটি থেকে কি ব্লুটুথ হেডসেট কানেক্ট করা যাবে?

উত্তর- হ্যাঁ, ফোনটি ব্লুটুথ হেডসেট সমর্থন করে।

প্রশ্ন- ফোনটিতে কি মোবাইল হটস্পট চালু করে ইন্টারনেট শেয়ার করা যাবে?

উত্তর- হ্যাঁ, আপনি মোবাইল হটস্পট চালু করতে পারবেন এবং ইন্টারনেট শেয়ার করতে পারবেন।

উপসংহার


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

এক কথায় বলতে স্যামসাং জে২ (২০১৬) তে রয়েছে ৫-ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে, হ্যান্ডি সাইজ, অ্যান্ড্রয়েড মার্সমাল্যো, এস বাইক মুড, স্মার্ট গ্ল্যো ফিচার, টার্বো স্পীড টেকনোলজি। অপরদিকে ফোনটির কমতি হলো জাইরোস্কোপ সেন্সর এবং অ্যাম্বিয়েন্ট লাইট সেন্সর নেই, মাত্র ১.৫ জিবি র‍্যাম এবং মাত্র ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। আমার কাছে ফোনের হার্ডওয়্যার অনুসারে দাম একটু বেশি মনে হয়েছে। আপনার যদি এমন ফোনের প্রয়োজন হয় যেটা সহজেই হাতে আঁটবে এবং স্মার্ট গ্ল্যো ফিচার যদি ব্যবহার করে দেখতে চান তবে এই ফোনটি কিনতে পারেন। আর না হলে বাজারে আরো অনেক অপশন রয়েছে।

তাহমিদ বোরহান
প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।