অ্যান্ড্রয়েড

মিইউআই ১০ (MIUI 10) ফিচারস : নতুন যা যা থাকছে!

1

যারা শাওমি স্মার্টফোন ব্যবহার করেন কিংবা শাওমি স্মার্টফোনগুলোর ফ্যানবয়, তারা অবশ্যই অবশ্যই শাওমির তৈরি অন্যতম জনপ্রিয় কাস্টম অ্যান্ড্রয়েড স্কিন মিইউআই (MIUI) এর সাথে খুব ভালোভাবেই পরিচিত। শাওমি প্রত্যেকবছরই তাদের কাস্টম অ্যান্ড্রয়েড স্কিনটির ফ্রিকুয়েন্ট আপডেটস এবং প্রত্যেক বছর নতুন একটি করে মেজর আপগ্রেড বা নতুন ভার্সন রিলিজ করে। এখনও পর্যন্ত মিইউআই এর সর্বশেষ ভার্সনটি ছিল মিইউআই ৯ (MIUI 9) যা অধিকাংশ শাওমি স্মার্টফোন ইউজাররা ব্যবহার করে আসছিলেন। তবে কয়েকদিন আগেই চায়নায় তাদের একটি ইভেন্টে শাওমি তাদের মিইউআই এর নতুন আরেকটি ভার্সন রিলিজ করে যা হচ্ছে মিইউআই ১০ (MIUI 10)। মিইউআই ১০ এ আগের তুলনায় নতুন কি কি ফিচারস আছে এবং নতুন কি কি ইম্প্রুভমেন্টস থাকছে সেসব নিয়েই আজকে আলোচনা করবো।

জেসচার নেভিগেশন

মিইউআই ১০ এ থাকছে অ্যান্ড্রয়েড পি এর মতো সোয়াইপ জেসচারস নেভিগেশন

বর্তমানে কোন কাস্টম অ্যান্ড্রয়েড স্কিনের ফিচারসগুলোর মধ্যে জেসচার কনট্রোল থাকবে এটা অবাক হওয়ার মতো কিছু না, যেখানে অ্যান্ড্রয়েড পি তে গুগল অফিশিয়ালি জেসচার কনট্রোল ফিচারস রেখেছে। হ্যা, অ্যান্ড্রয়েড পি এর মত মিইউআই ১০ এও থাকছে জেসচার সোয়াইপ ব্যবহার করে ফোনে নেভিগেট করার সুযোগ। যদিও এই জেসচার নেভিগেশন ফিচারটি আরও আগে মিইউআই ৯.৫ এই শাওমি দিয়েছিলো, তবে মিইউআই ১০ এর জেসচারও একইরকম। জেসচারের সাহায্যে নেভিগেট করার ফলে বর্তমানের চিকন বেজেলের স্মার্টফোনগুলোতে অনস্ক্রিন নেভিগেশন বার ব্যবহার করার দরকার হবেনা। এর ফলে ইউজার আরও একটু বেশি ইউজেবল স্ক্রিন পাবেন।

মিইউআই ১০

ইমেজ ক্রেডিট : Beebom

মিইউআই ১০ এর জেসচারগুলো প্রায় অ্যান্ড্রয়েড পি এর মতোই। যেমন স্ক্রিনের নিচের থেকে ওপরের দিকে সোয়াইপ করে হোমস্ক্রিনে চলে যাওয়া, এভাবে সোয়াইপ আপ করে হোল্ড করে রিসেন্ট অ্যাপস স্ক্রিনে চলে যাওয়া ইত্যাদি। এছাড়া স্ক্রিনের ডান এবং বামদিকের এজ থেকে সোয়াইপ করে ব্যাক স্ক্রিনে নেভিগেট করা বা ব্যাক বাটনের কাজ করা ইত্যাদি সহজ সোয়াইপ জেসচারও থাকছে। এছাড়া ব্যাক স্ক্রিনে যাওয়ার সময় হোল্ড করে ধরে রাখলে কুইকলি রিসেন্ট অ্যাপসগুলোতেও সুইচ করা যাবে  আইফোন এক্স এর মতো।

নতুন রিসেন্ট অ্যাপস স্ক্রিন এবং স্ট্যাটাস বার

এবার রিসেন্ট অ্যাপস স্ক্রিনে কার্ডগুলো সাজানো থাকবে ভারটিক্যাল অর্ডারে

অ্যান্ড্রয়েড পি-তে যেমন চিরপরিচিত অ্যান্ড্রয়েডের রিসেন্ট অ্যাপস স্ক্রিনটিকে একেবারেই চেঞ্জ করে দেওয়া হয়েছে, তেমনি মিইউআই ১০ এও রিসেন্ট অ্যাপস স্ক্রিনে অনেকটা চেঞ্জ আনা হয়েছে। হ্যা, শাওমির অতিপরিচিত কার্ড বেজড ইউআই চেঞ্জ করা হয়নি, তবে রিসেন্ট অ্যাপস স্ক্রিনে কার্ডগুলো যেভাবে সাজানো থাকে, তা কিছুটা চেঞ্জ করা হয়েছে। এর আগে যেমন কার্ডগুলো পাশাপাশি সাজানো থাকতো, তেমনতা আর থাকছে না। এখন থেকে মিইউআই ১০ এ একটি রিসেন্ট অ্যাপস স্ক্রিনে পাশাপাশি এবং ওপরে নিচে করে ৪ টি কার্ড সাজানো থাকবে এবং এগুলোকে লেফট বা রাইট যেকোনো দিকে সোয়াইপ করে ক্লিয়ার করা যাবে। এবং কার্ডগুলোকে স্ক্রল করতে হবে আপ এবং ডাউন সোয়াইপ করে। এছাড়া যেকোনো অ্যাপের কার্ডের ওপরে লং প্রেস করা অ্যাপটি ক্লিয়ার হওয়া থেকে লক করা, স্প্লিট স্ক্রিন ইত্যাদিতে যাওয়ার ফিচারও থাকছে।

মিইউআই ১০

ইমেজ ক্রেডিট : Beebom

মিইউআই ১০

ইমেজ ক্রেডিট : Beebom

নোটিফিকেশন প্যানেল হবে প্রায় স্টক অ্যান্ড্রয়েড পি এর মতোই

এছাড়া মিইউআই ১০ এ শাওমির চিরচেনা স্ট্যাটাস বার কিংবা নোটিফিকেশন প্যানেল যেটিকে বলা হয়, সেটার ডিজাইনেও যথেষ্ট পরিবর্তন আনা হয়েছে। শাওমি তাদের গত দুটি মিইউআই ভার্সন অর্থাৎ মিইউআই  ৮ এবং মিইউআই ৯ কোনটিতেই তাদের নোটিফিকেশন প্যানেলে মেজর কোন চেঞ্জ করেনি। তবে মিইউআই ১০ এ শাওমি এই নোটিফিকেশন প্যানেলটিকে অনেকটা অ্যান্ড্রয়েড পি এর নোটিফিকেশন প্যানেলের মতো করেছে। অর্থাৎ প্রত্যেকটি টগল রাউন্ডেড শেপের মধ্যে এবং নোটিফিকেশন প্যানেলের চারটি এজও রাউন্ডেড। এছাড়া নোটিফিকেশন প্যানেলের নিচে থাকছে ব্রাইটনেস কনট্রোল উইজেট যেটি অনেকটা আইওএস এর মতো। এছাড়া ভলিউম স্লাইডারটিকেও করা হয়েছে অনেকটাই অ্যান্ড্রয়েড পি এর মতো।

 

আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স

ফোনের পারফরমেন্স অপটিমাইজ করতে সাহায্য করবে AI

২০১৮ তে কোন নতুন অ্যান্ড্রয়েড ফোন বা অপারেটিং সিস্টেমে AI নামের কিছু থাকবেনা এটা একেবারেই অসম্ভব। ব্যাতিক্রম হচ্ছেনা শাওমির ক্ষেত্রেও। শাওমি তাদের মিইউআই ১০ এ রাখছে ডিপ লার্নিং বা আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স যা সবসময়ই আপনার ফোনে থাকবে এবং আপনার বিভিন্ন ডেইলি ইউজেসকে বিভিন্নভাবে অপটিমাইজ করবে। যেমন- শাওমির ভাষ্যমতে তাদের এই AI আপনার অ্যাপ ইউজেস বিহেভিয়র লক্ষ্য করে এবং সেই অনুযায়ী আপনার ডিভাইসকে অপটিমাইজ করে। অর্থাৎ, আপনি কোন অ্যাপটি সাধারনত কখন ওপেন করেন, কখন ক্লোজ করেন, কোন অ্যাপের পরে কোন অ্যাপ ব্যবহার করেন এইসবকিছু ডেটা অ্যানাইলাইজ করে এবং সেই অনুযায়ী আপনার মেমরি এবং ফোনের পারফরমেন্সকে অপটিমাইজ করে যাতে আপনি সেইসময় বেস্ট পারফরমেন্সটি পেতে পারেন।

এছাড়া এবার মিইউআই ১০ এ থাকছে শাওমির নিজের তৈরি পারসোনাল ভয়েস অ্যাসিসট্যান্ট যেটি কি করে আপনি আগে থেকেই জানেন। স্যামসাং বিক্সবি, গুগল অ্যাসিসট্যান্ট, অ্যামাজন আলেক্সা যা করে থাকে সেটাই করে শাওমির এই ভয়েস অ্যাসিসট্যান্টটি। তবে এই অ্যাসিসট্যান্টটি এখনও পর্যন্ত শুধুমাত্র চায়নিজ ভাষাই জানে এবং চায়না রমেই এভেইলেবল। খুব সম্ভবত এটা গ্লোবাল রমে শাওমি দেবে না।

মিইউআই ১০

ইমেজ ক্রেডিট : Beebom

সিঙ্গেল ক্যামেরা ব্যবহার করেও তোলা যাবে পরট্রেইট ছবি

এছাড়া শাওমি আরেকটি যে কাজে AI ব্যবহার করছে তা হচ্ছে সিঙ্গেল ক্যামেরা পরট্রেইট। পরট্রেইট ছবি তুলতে যে ডুয়াল ক্যামেরার দরকার হয়না, AI ই যথেষ্ট, তা গুগল অনেক আগেই প্রমান করেছে। শাওমিও তাদের মিইউআই ১০ এর বিল্ট ইন ক্যামেরা অ্যাপে পরট্রেইট ছবি তোলার ফিচারটি রাখছে, এটি কাজ করবে শুধুমাত্র আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ব্যবহার করেই। শাওমির ওল্ড প্রায় অধিকাংশ সিঙ্গেল ক্যামেরার ডিভাইসটি পরট্রেইট ছবি তোলার ফিচারটি পাবে যেগুলো মিইউআই ১০ আপডেট পেতে যাচ্ছে। এছাড়াও ব্যাক ক্যামেরা পরট্রেইটের সাথে থাকছে ফ্রন্ট ক্যামেরা পরট্রেইটও!

পিকচার ইন পিকচার মোড

এই ফিচারটি সর্বপ্রথম গুগল তাদের অ্যান্ড্রয়েড অরিওতে অ্যানাউন্স করে। পিকচার ইন পিকচার মোডের সাহায্যে আপনি মুলত কোন অ্যাপ ক্লোজ করেই ওই অ্যাপের কোন ভিডিও কন্টেন্ট আপনার ফোনে প্লে করে রাখতে পারবেন ছোট একটি কাস্টোমাইজেবল ফ্লোটিং উইন্ডোতে। এর ফলে আপনি আপনার ফোনে যেকোনো কাজ করার সাথে সাথে  যেকোনো ভিডিও কন্টেন্টও একইসাথে প্লে করে দেখতে পারবেন। অ্যান্ড্রয়েড অরিওতে এই ফিচারটি রাখা হলেও কখনোই মিইউআইতে এই ফিচারটি ন্যাটিভলি ছিলো না। তবে এবার মিইউআই ১০ এ এই পিকচার ইন পিকচার ফিচারটিও থাকছে এবং এটি একেবারেই অ্যান্ড্রয়েড অরিওর পিকচার ইন পিকচার মোডের মতো করেই কাজ করে।

অন্যান্য মাইনর ফিচারস

মিইউআই ১০ এর উল্লেখযোগ্য কয়েকটি মেজর ফিচারস নিয়ে ওপরে আলোচনা করেছি। এছাড়া মিইউআই ১০ এ আরও অনেক ছোট ছোট ফিচার আছে যেগুলো খুব একটা গুরুত্বপূর্ণ নয়, তবে উল্লেখ করা উচিত। যেমন-

  • মিইউআই ১০ সাপোর্ট করবে গুগলের অটোফিল এপিআই। যার ফলে বিভিন্ন অ্যাপে পাসওয়ার্ড ম্যানেজার কিংবা গুগলের স্মার্ট লক ব্যবহার করে লগইন করা হবে আরও সহজ এবং ঝামেলামুক্ত।
  • মিইউআই ল্যাবসে থাকছে সুপার রেজুলেশন মোড যা AI ব্যবহার করে আপনার ফোনে অনলাউনে ব্রাউজ করা ছবিগুলোকে আরেকটু শার্প দেখাতে পারবে। (কিছু কিছু স্পেসিফিক অ্যাপের ক্ষেত্রে)
  • থাকছে কার মোড যেটি প্রায় অ্যান্ড্রয়েড অটোর মতোই কাজ করে। তবে এক্ষেত্রে ব্যবহার করা হবে শাওমির নিজের সার্ভিস এবং নিজের ভয়েস অ্যাসিসট্যান্ট।
  • সেটিংসে নতুন একটি সিস্টেম ফন্ট সেটিংস থাকছে যদিও সেখানে আপাতত নিজের ইচ্ছামত ফন্ট সেট করার অপশন থাকছেনা। হয়তো ফাইনাল রিলিজে থাকতেও পারে।

তো এগুলোই ছিল মিইউআই ১০ এর উল্লেখযোগ্য কিছু আপকামিং ফিচারস। মিইউআই ১০ এর শুধুমাত্র চায়না ডেভেলপার রমটিই এখন এভেইলেবল এবং খুব কম সংখ্যক ডিভাইস বর্তমানে সাপোর্টেড। তাই কিভাবে ইন্সটল করবেন সেসব ব্যাপারে আর যাইনি। তবে আশা করা যায় আগামী ৬ মাসের মধ্যেই অধিকাংশ শাওমি ফোনেই মিইউআই ১০ এর গ্লোবাল বেটা/স্ট্যাবল রম ব্যবহার করতে পারা যাবে। আজকের মতো এখানেই শেষ করছি। আশা করি আজকের আর্টিকেলটিও আপনাদের ভালো লেগেছে। কোন ধরনের প্রশ্ন বা মতামত থাকলে অবশ্যই কমেন্ট সেকশনে জানাবেন। আপনি কি শাওমি ফ্যানবয়? আপনার সবথেকে পছন্দের মিইউআই ১০ ফিচারটি কোনটি? চাইলে সেটাও শেয়ার করতে পারেন আমাদের সাথে কমেন্ট সেকশনে।

 

সিয়াম একান্ত
অনেক ছোটবেলা থেকেই প্রযুক্তির প্রতি আকর্ষণ ছিলো এবং হয়তো সেই আকর্ষণটা আরো সাধারন দশ জনের থেকে একটু বেশি। নোকিয়ার বাটন ফোন থেকে শুরু করে ইনফিনিটি ডিসপ্লের বেজেললেস স্মার্টফোন, সবই আমার প্রিয়। জীবনে টেকনোলজি আমাকে যতটা ইম্প্রেস করেছে ততোটা অন্যকিছু কখনো করতে পারেনি। আর এই প্রযুক্তির প্রতি আগ্রহ থেকেই লেখালেখির শুরু.....

ব্যাটারি ক্যালিব্রেশন ল্যাপটপ এর জন্য কতটা প্রয়োজনীয়?

Previous article

শক প্রুফ মানে কি? — ঝাঁকি খাওয়ার পরে বা উঁচু থেকে পরে যাওয়ার পরেও ডিভাইজ রক্ষা পেতে পারে!

Next article

You may also like

1 Comment

  1. Sei….

Leave a reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *