গুগল আইও ২০১৮ : নতুন অ্যানাউন্সমেন্টস এবং অ্যান্ড্রয়েড পি ফিচারস!

গুগলের সাথে তো আমরা সবাই খুব ভালোভাবেই পরিচিত। আমরা এটাও খুব ভালো করেই জানি যে গুগল শুধুমাত্র একটি সার্চ ইঞ্জিন নয়, বরং পৃথিবীর সবথেকে বড় টেক ইন্ডাস্ট্রিগুলোর মধ্যে অন্যতম এবং একইসাথে পৃথিবীর সবথেকে জনপ্রিয় স্মার্টফোন অপারেটিং সিস্টেম, অ্যান্ড্রয়েডের বর্তমান মালিক। যাইহোক, গুগল সম্পর্কে নতুন করে কিছু বলা শুধুমাত্র সময়ের অপচয়ই হবে। তাই সরাসরি মূল কথায় আসি। আজকে আলোচনা করবো গুগল আইও ২০১৮ নিয়ে।

অনেকেই হয়তো জানেন যে প্রত্যেকবছর গুগল একটি করে বড় ডেভেলপার কনফারেন্স বা ইভেন্ট করে যেখানে তারা ওই বছর নতুন কি কি ফিচারস নিয়ে কাজ করছে এবং নতুন কি কি সার্ভিস বা ফিচারস ইউজারদের কাছে রিলিজ করতে চাচ্ছে সে বিষয়ে আলোচনা করে এবং তাদের নতুন প্রজেক্টগুলোকে সবার সামনে অ্যানাউন্স করে। গত কয়েকবছরের মত এবছরও ক্যালিফোর্নিয়ার মাউন্টেনভিউ শহরে অনুষ্ঠিত হয় গুগলের এবছরের ডেভেলপার কনফারেন্স, গুগল আইও ২০১৮ (Google IO 2018)। গুগল তাদের এই ডেভেলপার কনফারেন্সে নতুন কি কি অ্যানাউন্স করেছে সেগুলো নিয়েই মূলত আজকে আলোচনা করবো।


অ্যান্ড্রয়েড পি ফিচারস

এটাই বলতে হলে গুগলের এই কনফারেন্সের প্রধান অ্যানাউন্সমেন্ট ছিল। তবে ব্যাপারটা বেশ হাস্যকর যে, এখনও অ্যান্ড্রোয়েড ইউজারদের মধ্যে ৫% ইউজারও অ্যান্ড্রয়েডের গত  বছরের ভার্সন অর্থাৎ অ্যান্ড্রয়েড অরিও ব্যবহার করতে পারেনি। আর ইতোমধ্যেই গুগল তাদের পরবর্তী অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন, “পি” অ্যানাউন্স করেছে। যদিও এই ভার্সনটির নাম কি হবে তা এখনও জানায়নি গুগল। এই শুরুর পর্যায়ে পরবর্তী এই অ্যান্ড্রয়েড ভার্সনটিকে অ্যান্ড্রয়েড পি নামেই ডাকা হচ্ছে। এই নতুন অ্যান্ড্রয়েড ভার্সনটির সবথেকে বড় ফিচার বা সবথেকে বড় চেঞ্জটি হচ্ছে Gesture এবং সোয়াইপ বেজড ইউআই (আইফোন এক্স-এর মত)।

আইফোন এক্সের সাথে অ্যাপল যেমন নতুন Gesture বেজড ইউআই রেখেছে, অনেকটা তেমনটি Gesture ব্যবহার করে নেভিগেট করা যাবে অ্যান্ড্রয়েড পি-চালিত স্মার্টফোনগুলোও।এটি যুগান্তকারী কোন পরিবর্তন নয়, তবে অনেক ইউজারের জন্যই এটি প্রয়োজনীয় হতে পারে যারা নেভিগেশন বারে অভ্যস্থ না। এছাড়া এবার অ্যান্ড্রয়েডের রিসেন্ট অ্যাপস স্ক্রিনটির ইউআইতেও মেজর চেঞ্জ আনা হচ্ছে। এবার স্টক অ্যান্ড্রয়েডের রিসেন্ট অ্যাপস স্ক্রিনটি করা হচ্ছে কার্ড বেজড। অনেকটা আইফোন কিংবা শাওমি/হুয়াওয়ে ইত্যাদির রিসেন্ট অ্যাপস স্ক্রিনের মত।

গুগল আইও ২০১৮

এছাড়া অ্যান্ড্রয়েড পি এর একটি বড় আকর্ষণই হবে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স। যেমন- অ্যান্ড্রয়েড পি-চালিত স্মার্টফোনগুলোতে ব্যাটারি লাইফ অনেক ভালো হবে বলে দাবী করে গুগল। কারন, তাদের মতে অ্যান্ড্রয়েড পি-তে থাকা AI আপনার অ্যাপ ওপেনিং এবং অ্যাপ ইউজিং হ্যাবিট অনুযায়ী ফোনের ব্যাটারিকে অপটিমাইজ করতে পারবে। সর্বোপরি এটি আপনার সম্পূর্ণ ডিভাইসের ইউজেস লক্ষ্য করবে এবং সেই অনুযায়ী ব্যাটারি লাইফ অপটিমাইজ করবে।

এছাড়া AI ব্যবহার করে আপনার স্ক্রিন ব্রাইটনেস আপনার পছন্দমত অটোমেটিক অ্যাডজাস্ট করা হবে যাতে সেটি আপনাকে ম্যানুয়ালি সেট করতে না হয়। এই স্ক্রিন ব্রাইটনেস সেটিংস নিয়ে কনফিউশনে পড়তে হয়। এছাড়া আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ব্যবহার করে আরও অনেক কনভেনিয়েন্ট ফিচারস অ্যাড করেছে গুগল অ্যান্ড্রয়েড পি-তে। অ্যান্ড্রয়েড পি- এর অ্যানাউন্স করা সব ফিচারসগুলো নিয়ে আলাদা আরেকটি আর্টিকেলে আলোচনা করবো।

গুগল আইও ২০১৮

গুগল অ্যাসিসট্যান্ট ইমপ্রুভমেন্টস

গুগলের স্মার্ট ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্টকে তো আমরা সবাই চিনি এবং অনেকে প্রত্যেকদিন ব্যবহারও করে থাকি। ইমপ্রুভমেন্টের ক্ষেত্রে এই ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট সবসময়ই গুগলের ফোকাসের প্রথমদিকে ছিল এবং এবারও এর কোন ব্যাতিক্রম হয়নি। সত্যি কথা বলতে, এবার সবথেকে বেশি ইম্প্রুভমেন্ট এই গুগল অ্যাসিস্ট্যান্টেরই করা হয়েছে। গুগল অ্যানাউন্স করেছে যে, তারা গুগল অ্যাসিস্ট্যান্টের জন্য আরও ৬ টি নতুন ভয়েস নিয়ে কাজ করছে যেগুলো খুব শীঘ্রই সব ইউজারদের কাছে রোলআউট করা হবে এবং ইউজাররা নিজের ইচ্ছামত অ্যাসিস্ট্যান্টের এই ৬ টি ভয়েস চেঞ্জ করতে পারবে। আর এই ৬ টি ভয়েসের মধ্যে জন লেজেন্ডের (John Legend)  ভয়েসও থাকছে।

তবে সবথেকে বড় ফিচারটি হচ্ছে, গুগল অ্যাসিসট্যান্ট আপনার হয়ে রেস্টুরেন্টে বা অন্য কোথাও কোন সার্ভিস প্রোভাইডারের কাছে সরাসরি ফোন করে আপনার জন্য আপয়েন্টমেন্ট করতে পারবে বা কোন সার্ভিস বুক করতে পারবে। এবং মজার ব্যাপার হচ্ছে, এটি যখন সার্ভিস প্রোভাইডারের সাথে ফোন কল করবে তখন অপর প্রান্তের লোকটি বুঝতেই পারবে না যে সে কোন রোবটের সাথে কথা বলছে নাকি কোন রিয়াল হিউম্যানের সাথে (এটা এতটাই রিয়ালিস্টিক!)।

গুগল আইও ২০১৮

এছাড়া কিছুদিন পরে থেকে গুগল অ্যাসিসট্যান্ট ফলোআপ প্রশ্নোত্তর সাপোর্ট করবে। অর্থাৎ, সাধারন মানুষের সাথে কথা বলার সময় যেমন আমরা পরপর একটার পর একটা প্রশ্ন এবং উত্তরের সাহায্যে কথোপকথন চালাতে থাকি, ঠিক তেমনভাবেই গুগল অ্যাসিস্ট্যান্টের সাথেও কনভারসেশন চালানো যাবে। প্রত্যেকটি প্রশ্নের আগে Ok Google বা Hey Google বলতে হবেনা।

এছাড়া গুগল অ্যাসিসট্যান্টের ইউজার ইন্টারফেসের ভিজুয়াল ইন্টারফেসেও যথেষ্ট ইম্প্রুভমেন্ট আনছে গুগল। এছাড়া এবছর জুলাই থেকে গুগল কয়েকটি ম্যানুফ্যাকচারারের সাথে পার্টনারশিপের সাহায্যে কিছু স্মার্ট ডিসপ্লে বাজারে আনবে যেগুলোতে গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট বিল্ট ইন থাকবে, অনেকটা Amazon Echo Show এর মত।

গুগল আইও ২০১৮

অন্যান্য অ্যানাউন্সমেন্টস

ওপরে লেখা প্রধান অ্যানাউন্সমেন্টগুলো ছাড়াও আরও অনেক ছোট ছোট অ্যানাউন্সমেন্টও গুগল করেছে তাদের এই ডেভেলপার কনফারেন্সে। গুগল ফটোস, গুগল লেন্স, জিমেইল, অর্গমেন্টেড রিয়ালিটির সাথে গুগল ম্যাপস এবং এই ধরনের আরো ছোট ছোট ইম্প্রুভমেন্ট আসছে গুগলের প্রোডাক্টগুলোতে।

গুগল ফটোসে একটি নতুন ফিচার আসছে যার নাম সাজেস্টেড অ্যাকশনস। এর ফলে গুগল আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ব্যবহার করে আপনার গুগল ফটোসে থাকা ছবিগুলোকে অ্যানালাইজ করে ছবিটির জন্য কিছু নির্দিষ্ট কিছু অ্যাকশনস সাজেস্ট করবে। যেমন ছবির নির্দিষ্ট কিছু এডিটিং এবং কন্টেন্ট অনুযায়ী শেয়ারিং সাজেশন ইত্যাদি। তবে সবথেকে মজার ব্যাপারটি হচ্ছে, গুগল ফটোস ব্যবহার করে কোন ব্ল্যাক এন্ড হোয়াইট অর্থাৎ সাদা-কালো ছবিকে কালারাইজ করা যাবে নিখুঁতভাবে। স্মার্টফোনে ফটো এডিটিং এর ক্ষেত্রে এটি একটি যুগান্তকারী পরিবর্তনই বলা যায়।

গুগল আইও ২০১৮

কিছুদিন আগেই গুগল তাদের জিমেইলের ওয়েব ইন্টারফেসে হিউজ ডিজাইন ইমপ্রুভমেন্ট এনেছে এবং সকল জিমেইল ইউজারের কাছে নতুন ডিজাইনটি উন্মুক্তও করেছে। তবে এই ডেভেলপার কনফারেন্সে গুগল জিমেইলের আরেকটি নতুন ফিচার নিয়ে আলোচনা করেছে যেটি আর কিছুদিনের মধ্যেই জিমেইলের ওয়েব ভার্সনে এভেইলেবল হবে। এই ফিচারটি হচ্ছে মেইল অটোকমপ্লিট

আপনি যখন ইংরেজিতে কোন মেইল লেখা শুরু করবেন, তখন আপনার লেখার ধরন অনুযায়ী জিমেইল আপনাকে পরবর্তী ওয়ার্ড এবং সেন্টেন্সগুলো অটোমেটিক কমপ্লিট করে দেওয়ার সাজেশন দেখাবে এবং সেটি সঠিক হলে আপনি ইন্টার প্রেস করেই সম্পূর্ণ লাইনটি লিখে ফেলতে পারবেন। এর ফলে মেইল লেখা হবে আরও সহজ এবং আরও অনেক দ্রুত।

গুগল আইও ২০১৮

গুগল লেন্সেও থাকছে নতুন কিছু ইম্প্রুভমেন্টমেন্টস। গুগল জানিয়েছে যে তারা কিছু স্মার্টফোন ম্যানুফ্যাকচারারের সাথে কাজ করছে তাদের ডিভাইসের ডিফল্ট ক্যামেরা অ্যাপে গুগল লেন্স ইন্টাগ্রেট করার জন্য। এর ফলে ওই ডিভাইসগুলোর ক্যামেরা ওপেন করে কোনকিছুর ছবি তোলার আগেই সেই অবজেক্টটিতে পয়েন্ট করার পরেই গুগল লেন্সের সাহায্যে অবজেক্টটি অ্যানালাইজ করে বলা হবে যে অবজেক্টটি কি এবং কোথায় পাওয়া যায় ইত্যাদি ইত্যাদি।

এছাড়া আরেকটি মজার ফিচার হচ্ছে, গুগল লেন্সের সাহায্যে কোন ফিজিক্যাল ডকুমেন্ট স্ক্যান করলে সেই স্ক্যান করা ডকুমেন্ট থেকেই ডিভাইসের ক্লিপবোর্ডে টেক্সট কপি করা যাবে। এটি স্মার্টফোন ডকুমেন্ট স্ক্যানিং অ্যাপগুলোর বলতে গেলে একটি মোস্ট ওয়ান্টেড ফিচার ছিল।

গুগল আইও ২০১৮

এছাড়া গুগল ম্যাপসেও থাকছে কিছু নতুন ফিচার এবং ইম্প্রুভমেন্টস। গুগল ম্যাপস আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ব্যবহার করে আপনার সম্পর্কে যেসব তথ্য কালেক্ট করবে এবং তাদের নিজেদের কাছে যেসব তথ্য আছে সেসব একসাথে অ্যানালাইজ করে আপনাকে বিভিন্ন নতুন লোকেশন সাজেস্ট করবে যেখানে আপনি যেতে পারেন। হতে পারে সেটি কোন রেস্টুরেন্ট, কিংবা কোন পার্ক বা কোন কফি শপ ইত্যাদি। তবে এই সবকিছুই সাজেস্ট করবে আপনার ইন্টারেস্টের ওপরে ভিত্তি করে। এছাড়া এই প্রথমবারের মত গুগল ম্যাপসের সাথে ইন্টাগ্রেট করা হচ্ছে অগমেন্টেড রিয়ালিটি। এর ফলে গুগল ম্যাপসের সাহায্যে স্মার্টফোনের ক্যামেরা ব্যবহার করেই রিয়ালটাইম নেভিগেশন দেখাবে গুগল।

গুগল আইও ২০১৮


তো এই ছিল গুগল আইও ২০১৮ এর কয়েকটি মেজর অ্যানাউন্সমেন্টস। এছাড়া আরও অনেক ছোট ছোট অ্যানাউন্সমেন্ট করা হয়েছে এই ডেভেলপার কনফারেন্সে। তবে উল্লেখযোগ্য অ্যানাউন্সমেন্টগুলোই এখানে লিখেছি। আজকের মত এখানেই শেষ করছি। আশা করি আজকের আর্টিকেলটিও আপনাদের ভালো লেগেছে। কোন ধরনের প্রশ্ন বা মতামত থাকলে অবশ্যই কমেন্ট সেকশনে জানাবেন।


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

Image Credit : AndroidCentral, Beebom

সিয়াম
অনেক ছোটবেলা থেকেই প্রযুক্তির প্রতি আকর্ষণ ছিলো এবং হয়তো সেই আকর্ষণটা আরো সাধারন দশ জনের থেকে একটু বেশি। নোকিয়ার বাটন ফোন থেকে শুরু করে ইনফিনিটি ডিসপ্লের বেজেললেস স্মার্টফোন, সবই আমার প্রিয়। জীবনে টেকনোলজি আমাকে যতটা ইম্প্রেস করেছে ততোটা অন্যকিছু কখনো করতে পারেনি। আর এই প্রযুক্তির প্রতি আগ্রহ থেকেই লেখালেখির শুরু.....