WireBD
পাঁচ মিনিটে তৈরি করুন একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট!

ওয়ার্ডপ্রেস গীকঃ পর্ব ৬; পাঁচ মিনিটে তৈরি করুন একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট!

অনলাইনে বেচা-কেনা সম্পর্কিত বিষয়াবলীকে সহজভাষায় ই-কমার্স বলা হয়। ই-কমার্স বা ইলেকট্রনিক কমার্স ; আজকের আর্টিকেলে আমি আলোচনা করব এবং আপনাদের জানাবো ওয়ার্ডপ্রেস এর মাধ্যমে একটি ইকমার্স তথা অনলাইন বেচা-কেনা সম্পর্কিত ওয়েবসাইট কিভাবে তৈরি করবেন সে বিষয়ে। তার আগে আমরা একটু জেনে ই-কমার্স কি?

ই-কমার্স

ই-কমার্স এর পূর্নরূপ দাড়াচ্ছে হল ইলেকট্রনিক কমার্স। মূলত কোনো ব্যবসাকে ই-কমার্সে রূপান্তরিত করার মাধ্যমে সে ব্যবসাকে প্রধানত পুরোপুরিভাবে প্রযুক্তি নির্ভর করা হয় এবং অনেক বেশি লাভবান হওয়া যায়। ইকমার্স এমন একটি মাধ্যম; যা আপনার ব্যবসাকে জিরো থেকে হিরোতে রূপান্তরিত করে দিবে। প্রথমত বলে রাখি ই-কমার্স পুরোপুরিভাবে ইন্টারভিত্তিক সেবা। আপনার কাছে যদি বিক্রির মত অনেক কিছু থাকে ; ধরুন আপনার একটি শপ আছে, বা আপনি আপনার বাসায় নানারকম কিছু তৈরি হয়-যা বিক্রি যোগ্য, আপনার কাছে বিক্রিসুলভ অনেক পন্য আছে ; আপনি সেগুলো ইন্টারনেটে একটি দোকান তৈরি করে বিক্রি করতে পারবেন ; আর এটিই হল ইকমার্স।

একটি বিষয় খেয়াল করুন, আপনার এলাকা বা শহরে বিচরন করে কেবল আপনার এলাকা বা শহরের মানুষ ; কিন্তু ইন্টারনেটে বিচরন করে সারা পৃথিবীর মানুষ । আপনার শহরে বা এলাকায় কোনো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুললে তা কেবল সে এলাকা বা শহরের মানুষ এর পক্ষ্যে পৌছানো সম্ভব হবে – সুতরাং এখানে আপনার নির্ধারিত ক্রেতা শ্রেনি সীমিত। অথচ অন্যদিকে ই-কমার্স বেলায় তা পুরোপুরিভাবে আলাদা। এখানে আপনি ইচ্ছা করলেই সারা পৃথিবীর মানুষকে আপনার পন্যের সাথে যুক্ত করে ; আপনার ঘরে বসে আপনার যেকোন রকম পন্য সারা পৃথিবীর মানুষের কাছে বিক্রয় করতে পারবেন।

ই-কমার্স কিভাবে শুরু করবেন

ই-কমার্স প্রধানত ইন্টারনেট ভিত্তিক একটি সেবা। এখানে সারা পৃথিবীর যেকোন প্রান্তে বসে থাকা মানুষ আপনার ওয়েবসাইটটি ভিজিট করে সেখান থেকে পন্য অর্ডার করে থাকবে। সুতরাং ই-কমার্স শুরুর জন্য আপনি যেসব পন্য বিক্রি করবেন তার জন্য একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে। আর আজকের ওয়ার্ডপ্রেস গীক পর্বে আমরা সেই বিষয়টি নিয়েই আলোচনা করব।

ই-কমার্সের জন্য কেনো ওয়ার্ডপ্রেস?

ই-কমার্সের জন্য কেনোই বা ওয়ার্ডপ্রেস – অন্য কোনো ওয়েব কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম কেনো নয় ; এমন প্রশ্ন অনেক টেক গীকদের মাথায় থাকতেই পারে। তবে ওয়ার্ডপ্রেস এখানে ভালো পছন্দ হতে পারে খুব সহজে বোধগম্য ইন্টারফেস এর কারনে। অনলাইনে আপনি কোনো ডেভেলপার এর কাছ থেকে ইকমার্স সাইট বানিয়ে নিতে গেলে আপনি বেশির ভাগ সময় দেখবেন ; তারা ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করছে। যেহেতু ওয়ার্ডপ্রেস পুরোপুরিভাবে একটি ফ্রী বা ওপেন সোর্স সিএমএস তাই এটি ব্যবহার করে ইকমার্স বানাতে অত্যান্ত কম অর্থ খরচ হয়। ওয়ার্ডপ্রেস সিকিউরিটির দিক দিয়ে অনেক শক্তপক্ত হওয়ার কারনে এখানে গ্রাহকদের তথ্য নিরাপদ রাখার সম্ভব হয় এবং ই-কমার্স সাইট হ্যাক হওয়ার ভয় অনেক কম থাকে।

উ-কমার্স প্লাগিন ব্যবহার করে ই-কমার্স সাইট তৈরি

ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে খুবই সুন্দর একটি ইকমার্স ওয়েবসাইট তৈরি করা সম্ভব হয়েছে এই উকমার্স নামক প্লাগিনটির জন্য। উকমার্স ওয়ার্ডপ্রেস এর মূল প্রতিষ্ঠান অটোমেটিক এর তৈরি একটি গ্র্যান্ড ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন। এটি যেকোন ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটকে ইকমার্স রেডি করে তোলে। আজকে আমরা একটি ডেমো ওয়ার্ডপ্রেস ইকমার্স সাইট তৈরি করে দেখাচ্ছি ; এক্ষেত্রে আমরা ডেমো যে ডোমেইনটি নিয়েছি ; সেটি হল shop.aschorjo.com। সুতরাং এই ডোমেইনটি ভিজিট করে ইকমার্স সাইটটি দেখতে পারবেন।

প্রথমত আমাদেরকে ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল করে নিতে হবে আমাদের সার্ভার বা হোস্টিং প্যানেলে ; আর কিভাবে এটি করতে হবে তা জানতে ক্লিক করতে পারেন। যাইহোক, আমরা এখানে ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল এর সময় বা পরে কোনো থীম বাছাই করব না। কারন আমরা উকমার্স এর প্রদত্ত স্টোরফ্রন্ট থীমটি ব্যবহার করব।

ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল শেষ হয়ে গেলে ; আমাদের ওয়ার্ডপ্রেসের এডমিন প্যানেল- তথা ড্যাসবোর্ডে প্রবেশ করতে হবে। আর এখানে থেকে আমরা প্লাগিনস – তারপর সেখানে Add New তে গিয়ে  WooCommerce লিখে সার্চ করব। তারপর সেই প্লাগিনটি ইনস্টল -অতঃপর অ্যাক্টিভেটেড করে নিব। এরপর আমাদের উকমার্স প্লাগিনটিকে সেটাপ করে নিতে হবে। আর এই সেটাপ এমন কোনো কঠিন বিষয় নয় যে, পয়েন্ট টু পয়েন্ট বলতে হবে ; আপনারা সামনে পেলেই বুঝতে পারবেন :)।

এখানে আপনার পেমেন্ট মেথড, শপ ঠিকানা, পেমেন্ট কারেন্সি, শিপিং চার্জ এসব দিয়ে সেটাপ করে নিতে হবে। এখানে সাইটকে অটোমেটিক এর আরেকটি সার্ভিস জেটপ্যাক এর সাথে কানেক্ট করতে বলবে; আমরা সেটিও করে নেয়া বেটার।

এরপর প্লাগিন রেডি হয়ে গেলে, সাধারনত আমাদের উকমার্স এর অফিসিয়াল একটি থীম স্টোরফ্রন্ট ব্যবহার করতে বলবে ; আমি এখানে এটিই ব্যবহার করেছি ; এটি দেখতে খুবই সুন্দর , রেস্পন্সিভ আর ওয়ার্ডপ্রেসের জন্য ব্যাপকভাবে অপটিমাইজড ; সর্বপরি ফ্রি। তবে আপনি ফ্রি এবং পেইড আরও শত শত আরও দারুন দারুন থীমস খুজে নিয়ে লাগাতে পারবেন – সেক্ষেত্রে সেগুলোর থিম এদিট এর টিউটোরিয়াল আলাদা ; আর আপনাকে সেজন্য সেসব থীম এর ডকুমেন্টেশন অনুসরন করতে হবে। যেভাবে ওয়ার্ডপ্রেস থিম ইন্সটল করতে হয়? 

যাইহোক, প্লাগিন রেডি হওয়ার পর আপনাকে স্টোরফ্রন্ট থীমকে কাস্টমাইজড করার জন্য বলা হবে ; আর এটি করা খুবই সহজ। আপনি যখন খুশি তখন এই কাজটি করতে পারবেন। কেবল Appearance থেকে Customize এ চাপ দিলেই আপনি থীম এডিট করতে পাচ্ছেন।

ড্যাসবোর্ড থেকে নতুন কোনো প্রোডাক্ট যুক্ত করাও অনেক সহজ ; আর এক্ষেত্রে Products ট্যাব থেকে Add New Product ক্লিক করে নতুন প্রোডাক্ট যুক্ত করা যাবে। All Products থেকে আগের প্রোডাক্ট, নতুন প্রোডাক্ট সব দেখা যাবে এবং এগুলো ডিলিট বা এডিটও করা যাবে।

একইভাবে WooCommerce ট্যাব থেকে যাবতীয় অর্ডার থেকে শুরু করে, রিপোর্ট বা অর্ডার এর পরবর্তী অবস্হা বা স্ট্যাটাস ইত্যাদি বিষয় পর্যবেক্ষণ করা যাবে। আমার ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি করা ডেমো ইকমার্স সাইটটি দেখতে এখানে ক্লিক করতে পারেন।


পরিশেষে

উকমার্স মূলত কেবল ওয়ার্সপ্রেসেরই জন্য তৈরি একটি ওপেন সোর্স একটি সফটওয়্যার ; আর যাকে প্লাগিন আকারে ওয়ার্ডপ্রেসের সাথে যুক্ত করার মাধ্যমে ওয়ার্ডপ্রেসকে পুরোপুরিভাবে একটি ইকমার্স প্লাটফর্মে রূপান্তরিত করা যায়। আপনি একটি ইকমার্স সাইটের জন্য এমন কোনো কিছু নেই যা এখানে যুক্ত করতে পারবেন না,বা খুঁজে পাবেন না। কেননা উকমার্স এর জন্য আপনি ফ্রী, পেইড মিলে প্রায় সহস্রাধিক প্লাগিনস খুঁজে পাবেন। তাছাড়াও এমন শত শত উকমার্স রেডি ওয়ার্ডপ্রেস থীম রয়েছে ; যেগুলোতে আরো অনেক নানারকম ফিচারস পাওয়া যায়।

তৌহিদুর রহমান মাহিন

কোন কিছু জেনে সেটা মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার মধ্য দিয়েই সার্থকতা । আমি মোঃ তৌহিদুর রহমান মাহিন- ভালোবাসি প্রযুক্তিকে , আরও ভালোবাসি প্রযুক্তি সম্পর্কে বেশি বেশি জানতে- জানাতে। নিয়মিত মানসম্মত প্রযুক্তি বিষয়ক আর্টিকেল উপহার দেয়ার প্রত্যয়ে আছি টেকহাবস এর সাথে।

2 comments

সোশ্যাল মিডিয়া

লজ্জা পাবেন না, সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে টেকহাবসের সাথে যুক্ত হয়ে সকল আপডেট গুলো সবার আগে পান!