বর্তমান তারিখ:17 September, 2019

গুগল অ্যাকাউন্ট এর নিরাপত্তা এবং গোপনীয়তা রক্ষার্থে যে বিষয়গুলো মাথায় রাখবেন!

অনলাইনে থাকা আপনার সবগুলো অ্যাকাউন্ট এর ভেতর কোন অ্যাকাউন্ট আপনার কাছে সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ? আপনার কি মনে হয়; ফেসবুক অ্যাকাউন্ট? উমম! না,আমার হিসেবে যদি বলি তবে ইন্টারনেটে আপনার সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ অ্যাকাউন্ট হচ্ছে আপনার গুগল একাউন্ট। হুম, আর কেনইবা গুগল একাউন্ট আপনার জন্য সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ, এমন চিন্তাও যদি করে থাকেন, তাহলে একটু ভাবুন গুগল অ্যাকাউন্ট কি কি ভাবে আপনার সাথে সম্পৃক্ত, তাহলেই উত্তর পেয়ে যাবেন। আমাদের দেশে আমরা বেশির ভাগই গুগলের অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ইউজার; আর এর ফলে ফোনের মেইন অ্যাকাউন্ট হিসেবে কাজ করছে একটি গুগল অ্যাকাউন্ট। একসময় আমরা ইয়াহু ব্যবহার করলেও বর্তমানে ব্যাপক সংখ্যক মানুষ ইমেইল সার্ভিস হিসেবে কেবল জিমেইল ব্যবহার করে। আর একটি জিমেইল অ্যাকাউন্ট মানেই একটি গুগল অ্যাকাউন্ট।

আমাদের ভেতর অনেকে জিমেইল অ্যাকাউন্ট বা গুগল অ্যাকাউন্ট আলাদা বা ভিন্ন কিছু মনে করি ; তবে জিমেইল অ্যাকাউন্ট মানেই একটি গুগল অ্যাকাউন্ট। তাছাড়াও গুগলের আরো নানা সেবা যেমন, গুগল ডকস বা গুগল ক্লাউড স্টোরেজ / ড্রাইভ ব্যবহার করতে গিয়ে আমাদের গুগল অ্যাকাউন্ট প্রয়োজন এবং ব্যবহার হয়। গুগল আমাদের এই গুগল অ্যাকাউন্ট এর সাহায্যে  মোবাইল বা কম্পিউটার দিয়ে, আমাদের একটি জালে আবদ্ধ করে নানাভাবে আমাদের অনেক তথ্য সংগ্রহ করছে এবং অনেক সময় ব্যবহারের স্বার্থে আমরাও সেচ্ছায় আমাদের নানা তথ্য গুগলের হাতে সপে দিচ্ছি বা গুগলের দায়িত্বে রেখে দিয়েছি। আমার গত এক আর্টিকেলে এটিও উল্লেখ করেছি যে,গুগল কিন্তু আমরা কোথায় থেকে কোথায় যাই তা পর্যন্ত মনিটর করে। আর সে জন্য, আজকের টপিক আমাদের অনলাইন জগতের মহামূল্যবান এই একাউন্ট; গুগল অ্যাকাউন্ট সুরক্ষার বিষয় নিয়ে আর আপনি এর সুরক্ষা অ নিরাপত্তার  জন্য যা করতে পারেন, তা নিয়ে।

নিরাপত্তা

শুরুতে আপনার একাউন্টের সিকিউরিটি/নিরাপত্তা এবং প্রাইভেসি/গোপনীয়তা সম্পর্কে জেনে নেয়া সবচাইতে ভালো হবে। আর এই কাজটি আপনি খুবই সহজে আপনার গুগল একাউন্টে সাইন ইন করার মধ্য দিয়ে করতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্রথমে আপনি আপনার একাউন্টে প্রবেশ এর জন্য এই লিঙ্কটিতে প্রবেশ করুন।

তারপর প্রথমে নিরাপত্তা পরীক্ষা করুন লেখাটিতে ক্লিক করুন। তারপর আপনার সামনে একটি পেজ ওপেন হবে। এখন আপনার অ্যাকাউন্ট কানেক্টেড কোনো ডিভাইসে যদি সিকিউরিটি ফল্ট ইস্যু থাকে তবে তা দেখাবে। যেমন চিত্রে আপনি দেখতে পারবেন যে, আমার অ্যাকাউন্ট কানেক্টেড একটি অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে আমি স্ক্রীন লক দেই নি; আর সেটা এখানে সিকিউরিটি ফল্ট হিসেবে দেখাচ্ছে।

তাছাড়াও এখানে কোন কোন ডিভাইসে আপনার অ্যাকাউন্ট এই মুহূর্তে কানেক্টেড রয়েছে তাও সহজে দেখা যাবে। আপনি হয়ত অনেক সময় আপনার বন্ধুর ফোনে বা কোনো সাইবার ক্যাফেতে আপনার অ্যাকাউন্ট লগইন করে রেখেছিলেন; পরবর্তীতে আপনার মনে পরছে না। আর সেক্ষেত্রে আপনি এখান থেকে দেখে নিতে পারবেন যে, আসলে কোন কোন ডিভাইস আপনার অ্যাকাউন্ট এর সাথে কানেক্টেড বা সংযুক্ত রয়েছে। অনেক ক্ষেত্রে কী-লগার দিয়ে পাসওয়ার্ড এবং ইউজার ডাটা চুরি করে অনেকে আপনার অ্যাকাউন্ট এর এক্সেস নিতে পারে ; আর সেক্ষেত্রেও এই ফিচারটি আপনাকে  সাহায্য করবে।  অ্যাকাউন্ট এর দূর্ঘটনাবশত যেকোনো সমস্যা এড়াতে নিশ্চয়ই ব্যাকআপ ইমেইল ও মোবাইল নম্বর এড করা উচিত। সাম্প্রতিক নিরাপত্তা ইভেন্ট অপশন থেকে সর্বশেষ অাপনি কবে পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করেছেন, কেউ আপনার একাউন্টে ঢোকার চেষ্টা করেছিল কিনা সেসকল বিষয়াবলী  দেখতে পারবেন। আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট পুনরুদ্ধার এর জন্য ব্যাকআপ কোনো ইমেইল এবং মোবাইল নম্বর দিয়েছেন কিনা বা দিলেও কি দিয়েছেন তা এখান থেকে দেখতে পারবেন,আবার না দিইয়ে থাকলে যুক্তও করে নিতে পারবেন।

৩য় পক্ষ আপ্লিকেশন এর এক্সেস নিয়ন্ত্রন করুন

ঠিক কতগুলো এবং কি কি অনলাইন ও মোবাইল অ্যাপ আপনার গুগল অ্যাকাউন্ট এর সাথে সংযুক্ত রয়েছে ; আপনি সেটি এখান থেকে পর্যবেক্ষন করতে পারবেন। আপনার মোবাইলএর কোন কোন গেমস আপনার গুগল অ্যাকাউন্ট এর সাথে যুক্ত তাও আপনি দেখতে পারবেন।  এসব অনলাইন এবং মোবাইল ও কম্পিউটার আপ্লিকেশন এর ভেতর আপনার কাছে যদি কোনোটি সন্দেহজনক মনে হয়; বা মনে হয় এটি আমার দরকার নেই তাহলে আপনি সহযে এক ক্লিকে যে আপ্লিকেশন এর গুগল অ্যাকাউন্ট অ্যাক্সেস বন্ধ করে দিতে পারবেন ।


গোপনীয়তা

গুগল আপনার গোপনীয়তা তথা প্রাইভেসি রক্ষার সুযোগও করে দিয়েছে। অনেক ক্ষেত্রে গুগলএর অপর আপনি রাগ করতে পারেন কেননা গুগল আপনার অজান্তে আপনার নানা তথ্য নিয়ে নিচ্ছে । তবে আপনি জেনে হয়ত খুশি হবেন যে গুগল আপনার কি কি তথ্য সংগ্রহ করছে তা  আপনি দেখতে তো পারবেনই ; পাশাপাশি সেগুলোকে আপনি নিয়ন্ত্রনও করতে পারবেন যেন গুগল সেগুল আর নিতে না পারে।

আর এজন্য আপনাকে ব্যবহার করতে হবে আপনার গুগল একাউন্ট এর গোপনীয়তা চেকআপ ফিচার। আগের মত গুগল একাউন্টে সাইন ইন করে, মাই একাউন্ট থেকে এবার “গোপনীয়তা চেকআপ” লেখাটির অপর চাপতে হবে । এরপর আপনার গুগল একাউন্টের প্রাইভেসি নিয়ন্ত্রনের অনেক সুবিধা তথা ফিচার আপনার সামনে উপস্হিত হবে। এখানে প্রথমত আপনি আপনার ইউটিউবের প্রাইভেসি সেটিংস পাবেন;  এখান থেকে কি কি চান বা  কি চান না – সে অপশনগুলো টিক দেয়ার মাধ্যমে নির্ধারন করে দিতে পারবেন। তার নিচে আপনি আপনার মোবাইল নম্বরের  এবং গুগল প্লাস একাউন্ট এর তথ্যের  প্রাইভেসি অপশন পাবেন।

এই ফিচারটির কথাই আমি পারাগ্রাফ এর উপরে উল্লেখ করে ছিলাম । গুগল আপনার অনেক তথ্য ট্র্যাক করছে , আর আপনি যদি না চান গুগল তা ট্র্যাক করুক তবে নিসন্দেহে এই ফিচারটি আপনার জন্য ।  মুলত এখানে গুগল আপনাকে দেখাবে সে আপনার কি কি তথ্য সংরক্ষন করছে ; তারপর আপনি প্রতিটি সংগ্রহকৃত তথ্যের এর অপর ক্লিক করে ডান পাশে একটি সুইচ দেখতে পারবেন , সে সুইচ ডিজেবল করার মধ্য দিয়ে গুগলকে সে তথ্য ট্র্যাক করা হতে আপনি বিরত রাখতে পারবেন ।

অনলাইনে নানারকম ওয়েবসাইট ভিজিট করার সময় আপনি নিশ্চয়ই গুগল এর দেয়া নানা বিজ্ঞাপন বিভিন্ন ওয়েবসাইটে দেখেছেন, তাই নয় কি ? আর হতে পারে এর ভেতর সকল রকম বিজ্ঞাপন আপানার পছন্দ না। আপনি কিন্তু গোপনীয়তা তথা প্রাইভেসি সেটিংস্‌ এর এই অংশ থেকে আপনি কেবল কিরকম বিজ্ঞাপন দেখতে চান তা নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন খুবই সহজে।

2 স্টেপ ভেরিফিকেশন 

সর্বশেষ আপনি যা করবেন তা হল আপনার অ্যাকাউন্ট এর ২ স্টেপ ভেরিফিকেশন সিস্টেমটি নিশ্চিত করবেন । কেননা এই ফিচারটির মাধ্যমেই আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট কে শতভাগ নিরাপদ রাখতে পারবেন। গুগল মাই অ্যাকাউন্ট থেকে আপনি ‘সাইন ইন ও সিকিরিটি’ থেকে আপনি এই 2 স্টেপ ভেরিফিকেশন সিস্টেমটি চালু করতে পারবেন । এর সুবিধা সম্পর্কে সবাই জানেন তাই আর বিস্তারিতও করলাম না ।



WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

আপনার গুগল অ্যাকাউন্ট এর সেরা নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অবশ্যই একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন । কেবল একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড আপনার নিরাপত্তার জন্য ৯০ ভাগ কাজ করবে। কিছুদিন আগে ক্ল্যাস অফ ক্ল্যান্স এর যখন বন্যা অয়ে গেল , তখন গেম এর খাতিরে বহু মানুষ নিজেদের গুগল অ্যাকাউন্ট বিনা দিদায় একে অন্যান্যদের মাঝে ভাগাভাগি করেছে ; তবে এটা করা উচিত নয়। কেবল গেম এর জন্য নিজের একটা পুরো অনলাইন আক্টিভিটি অ্যাকাউন্ট অন্যকে দিয়ে দেয়া একটা বড় প্রাইভেসি ইস্যু।  আপনি যদি আসলেই আপনার গুগল অ্যাকাউন্ট এর নিরাপত্তা ও গোপনীয়তা কে প্রাধান্য দেন তবে উপরের সকল বিষয় গুলো আর ভালভাবে নজরদারি করবেন । কেবল আপনার নজরদারির মাধ্যমে আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট এর বড় কোন হ্যাক বা ক্ষতি থেকে রক্ষা করতে পারবেন । পরিশেষে একটা কথা , নিয়মিত আপনার পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন অন্তত প্রতি মাস পরপর।

কোন কিছু জেনে সেটা মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার মধ্য দিয়েই সার্থকতা । আমি মোঃ তৌহিদুর রহমান মাহিন- ভালোবাসি প্রযুক্তিকে , আরও ভালোবাসি প্রযুক্তি সম্পর্কে বেশি বেশি জানতে- জানাতে। নিয়মিত মানসম্মত প্রযুক্তি বিষয়ক আর্টিকেল উপহার দেয়ার প্রত্যয়ে আছি টেকহাবস এর সাথে।

8 Comments

  1. রাব্বি Reply

    তথ্য বহুল এবং কাজের পোস্ট ।
    অনেকের আইডি হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা পেতে পারবে ।

  2. Salam Ratul Reply

    খুব ভালো লেগেছে আর্টিকেলটি। অনেককিছু জানতে পারলাম। ধন্যবাদ ভাইয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *