কিভাবে আপনার ডেক্সটপ পিসির জন্য সঠিক পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট নির্বাচন করবেন? [দ্যা আল্টিমেট গাইড!]

কিভাবে আপনার ডেক্সটপ পিসির জন্য সঠিক পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট নির্বাচন করবেন

ডেস্কটপ পিসি বিল্ড করার সময় আপনি নিশ্চয় সবকিছু বেশি বেশি লাগানোর কথা চিন্তা করেন, কেননা স্বাভাবিক ভাবে যে জিনিষ নাম্বারে যতোবেশি ততোই ভালো, যেমন- যদি আপনাকে বলা হয় র‍্যাম ৮ জিবি লাগাবেন নাকি ১৬ জিবি, যদি আপনার বাজেট থাকে অবশ্যই আপনি ১৬ জিবির পেছনেই দৌড়াবেন। কিন্তু পিএসইউ (PSU) বা পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট (Power Supply Unit) এমন একটি হার্ডওয়্যার যেটা আপনি কখনোই প্রয়োজনের বেশি চাইবেন না, কেননা এর ক্ষমতা বেশি হয়ে গেলে সম্পূর্ণ কম্পিউটারটিই রুটি সেঁকার উনুনে পরিণত হয়ে যেতে পারে। আপনার পিসির জন্য সঠিক পাওয়ার সাপ্লাই নির্বাচন করা অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি ফ্যাক্টর, কেননা সস্তা আর বেকার কোয়ালিটির পাওয়ার সাপ্লাই আপনার দামী এবং হাই এন্ড সিস্টেমের আয়ুকাল কমিয়ে দিয়ে পারে।

তো আপনি ডেক্সটপ পিসি বিল্ড করার সময় নতুন পাওয়ার সাপ্লাই কিনুন, কিংবা পুরাতন পিএসইউ রিপ্লেস করার চিন্তা করুণ, আপনাকে কিছু বিষয় সর্বদা মাথায় রেখে তবেই পিএসইউ কেনার কথা ভাবতে হবে। আর এই আর্টিকেলে সম্পূর্ণ বিষয় গুলো খুবই সহজভাবে উপস্থান করা হয়েছে, ফলে আপনাকে মোটেও কোন অসুবিধায় পড়তে হবে না।

কম্পিউটার পাওয়ার সাপ্লাই

এর নাম থেকে সহজেই অনুমান করা যায় এই হার্ডওয়্যারটির কাজ কি হতে পারে। এটি এমন একটি যন্ত্রাংশ যেটি আপনার ওয়াল সকেট থেকে পাওয়ার গ্রহণ করে পিসির কেসিং এর মধ্যে লাগানো থাকা বাকী হার্ডওয়্যার গুলোকে স্ট্যাবল পাওয়ার প্রোভাইড করে। এই ইউনিটির প্রধান কাজ হচ্ছে, অল্টারনেটিভ কারেন্টকে কনভার্ট করে কন্টিনিউয়াস পাওয়ারে পরিবর্তন করে যাতে পিসির মধ্যের আলাদা হার্ডওয়্যার গুলো ঠিকঠাক ভাবে রান করতে পারে, বা বলতে পারেন এটি এসি (অল্টারনেটিভ কারেন্ট) থেকে ডিসি (ডাইরেক্ট কারেন্ট) এ কনভার্ট করে। কম্পিউটারে অনেক হার্ডওয়্যার রয়েছে, যেগুলো ছাড়াও আপনার কম্পিউটার ঠিকঠাক মতো চলতে পারবে, যেমন প্রিন্টার বা ডেডিকেটেড গ্রাফিক্স কার্ড, কিন্তু পিএসইউ ছাড়া আপনার কম্পিউটার ব্যাস একটি টিনের কৌটা ছাড়া আর কিছুই নয়।

পাওয়ার সাপ্লাই

যাই হোক, সূচনা অনেক হয়ে গেছে, আপনি নিশ্চয় সূচনা দিয়েই দিন শেষ করতে চান না। এখন আপনি সহজেই বুঝতে পাড়ছেন এটি একটি ইলেকট্রিক্যাল নির্ভর হার্ডওয়্যার, মানে সকল ইলেক্ট্রনিক্স রান করতেই ইলেক্ট্রিসিটি লাগে, কিন্তু এই অংশ হার্ডওয়্যারটি কারেন্ট প্রোভাইড করে সম্পূর্ণ সিস্টেমের বাপ হিসেবে ভূমিকা পালন করে। যেহেতু এখানে কারেন্ট নিয়ে অনেক আলোচনা চলে আসে সেক্ষেত্রে বাকী আর্টিকেলে আপনাকে ভোল্টেজ, ওয়াটেজ ইত্যাদি টার্ম গুলো মুখোমুখি হতে হবে, তবে চিন্তার কারন নেই, এগুলো বোঝা একেবারেই সহজ ব্যাপার।

# সস্তা পিএসইউ থেকে ১০০ হাত দূরে থাকুন!

পিএসপি এর টেকনিক্যাল ব্যাপার গুলো নিয়ে আলোচনা করার পূর্বে আগেই বড় বড় অক্ষরে সতর্কবানী করে দিলাম, সস্তা কম্পিউটার পাওয়ার সাপ্লাই গুলো থেকে একেবারে দূরে থাকবেন। বারো শো, পনেরো শো টাকার পিএসইউ গুলো মোটেও কিনবেন না, কম্পিউটার বিল্ড করার সময় অনেক বিষয়ের উপর ধ্যান রেখে বাজেট বাঁচানো যায়, কিন্তু এ ক্ষেত্রে কন্সিডার করা ঠিক হবে না। আপনার কম্পিউটারে যদি লেটেস্ট প্রসেসর লাগানো থাকে, সেক্ষেত্রে এই কমদামী পাওয়ার সাপ্লাই গুলো কখনোই আপনার প্রসেসরের প্রয়োজনীয় পাওয়ার ঠিকমতো প্রোভাইড করতে পারবেন না।

যখনই আপনি সিস্টেমে ঠিকমতো পাওয়ার প্রোভাইড করতে ব্যার্থ হবেন, ঘটনা সত্যিই অনেক খারাপের দিকে চলে যেতে পারে, কিছুদিন যেতে না যেতেই বা সময়ের সাথে দেখবেন আপনার এক বা একাধিক হার্ডওয়্যার ফেইল করতে আরম্ভ করেছে। এখন আপনি বলবেন, “আচ্ছা, কমদামী পাওয়ার সাপ্লাইয়ের সাথে সমস্যা কি? কম্পিউটারে কি পাওয়ার প্রোভাইড করে না?” — হ্যাঁ পাওয়ার তো প্রোভাইড করে, কিন্তু সাথে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হচ্ছে স্ট্যাবল পাওয়ার প্রোভাইড করা, আর যেটাতে কমদামী পিএসইউ প্রায় সর্বদাই ফেল হয়ে থাকে। তাই আমি কখনোই এক্সট্রিম সস্তা পিএসইউ কেনার জন্য রেকমেন্ড করি না।

সাপোর্টেড পিএসইউ

যতোদিন যাচ্ছে, প্রোসেসর গুলো অনেকবেশি পাওয়ার হাংরি হয়ে যাচ্ছে, শুধু তাই নয় গ্রাফিক্স কার্ড, পিসিআই এক্সপ্রেস বাস সব কিছুতেই বর্তমানে চাই বেশি পাওয়ার। আর এই এক্সট্রা পাওয়ার প্রোভাইড করার লক্ষে ATX12V স্ট্যান্ডার্ড উন্নতি করা হয়েছে। হাই এন্ড সিস্টেম বা বলতে পারেন আজকের মোটামুটি যেকোনো সিস্টেম বিল্ড করার সময় আপনাকে লক্ষ রাখতে হবে পিএসইউটি যেন প্রোপার ATX12V স্ট্যান্ডার্ড সমর্থিত হয়।

স্বাভাবিকভাবে আপনার মাদারবোর্ডের পাওয়ার কানেক্টর এবং পিএসইউ এর কানেক্টর গুলো মিলিয়ে দেখুন, যদি কোন কানেক্টর মিসিং থাকে সেক্ষেত্রে পিএসইউটি ATX12V স্ট্যান্ডার্ড সমর্থিত নয়। যখন কেবল ম্যানেজমেন্ট নিয়ে কথা আসে সেক্ষেত্রে তিনটি টার্ম দেখতে পাওয়া যায়, নন-মডিউলার, সেমি-মডিউলার, এবং মডিউলার — আর এদের মধ্যে মূল পার্থক্য হচ্ছে ক্যাবল ম্যানেজমেন্ট নিয়ে। নন-মডিউলার পিএসপি’তে আগে থেকেই মানে প্যাকেট থেকে ডজন খানেক ক্যাবল লাগানো থাকে, সেগুলো আপনার মাদারবোর্ডের সাথে সম্পূর্ণ ম্যাচিং করতেও পারে আবার নাও করতে পারে, যদিও করে দেখা যায় অনেক ক্যাবল ফাঁকা পড়ে থাকে, আর এজন্য ভেতরের বিল্ড দেখতে কুৎসিত লাগে। আর সবচাইতে বড় সমস্যা হচ্ছে আপনি ক্যাস্টমভাবে পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট করতে ঝামেলায় পড়ে যাবেন।

ফুল মডিউলার পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিটের সাথে কোন ডিফল্টভাবে ক্যাবল লাগানো থাকে না, আপনি ইচ্ছা মতো এবং প্রয়োজন অনুসারে সিস্টেমে ক্যাবল টানতে পারবেন। যেখানে নন-মডিউলারের তুলনায় ফুল-মডিউলার পিএসইউ এর দাম খুব একটা কমবেশি হয় না। এদের মাঝামাঝী পর্যায়ে আরেকটি টাইপ রয়েছে, সেটা হচ্ছে সেমি-মডিউলার, এখানে আসলে শুধু মাত্র অত্যন্ত প্রয়োজনীয় কিছু ক্যাবল ডিফল্টভাবে সেট করা থাকে, কিন্তু বাকীটা আপনি নিজের ইচ্ছা মতো ম্যানেজ করতে পারবেন। ফুল-মডিউলার টাইপ থেকে সেমি-মডিউলার টাইপ একটু কমদামী হয়ে থাকে, তবে নন-মডিউলার থেকে এটি ভালো, কেননা অন্তত ক্যাস্টম ম্যানেজমেন্ট অপশন থাকছে এখানে।

ওয়াটেজ রেটিং

এই প্যারাগ্রাফে আমি মোটেও কমপ্লেক্স বিষয় গুলো উল্লেখ্য করে গোলমাল পাকিয়ে দিতে চাই না। ওয়াটেজের সংজ্ঞা নিয়ে আপনার তেমন জানার কোন প্রয়োজনীয়তা নেই, আপনি জাস্ট রেটিং দেখেই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারবেন এটি আপনার সিস্টেমের জন্য উপযোগী কিনা। যদি নতুন পিসি বিল্ড করেন, সেক্ষেত্রে বেস্ট হয় আপনার হার্ডওয়্যার গুলোর গায়ে লেখা থাকা ওয়াটেজের গড় হিসেব করে পাওয়ার সাপ্লাইয়ের ওয়াটেজ নির্বাচন করা। যদি পিসির কোন হার্ডওয়্যার আপগ্রেড করেন, বিশেষ করে প্রসেসর বা জিপিইউ আপগ্রেড করলে অবশ্যই পাওয়ার সাপ্লাই আপগ্রেড করতে হয়, সেক্ষেত্রে নতুন হার্ডওয়্যার গুলোর ওয়াটেজ পরিমাপ করেই পিএসইউ নির্বাচন করতে হবে।

আপনি যদি ডেডিকেটেড গ্রাফিক্স কার্ড লাগানোর চিন্তা করেন সেক্ষেত্রে অবশ্যই বেশি ওয়াটেজ প্রয়োজনীয় হবে। যদি গ্রাফিক্স কার্ডের প্ল্যান না থাকে সেক্ষেত্রে মোটামুটি ৩০০ ওয়াটেজ যথেষ্ট হতে পারে। একটি আদর্শ পিএসইউ তে অবশ্যই অ্যাটলিস্ট 18A থাকতে হয় এবং +12V লাইনের উপর কাজ করে। এখন কতোটা লোড প্রয়োজনীয় সেটা নির্ভর করবে আপনার প্রয়োজনের উপর। যদি ডুয়াল গ্রাফিক্স কার্ড ব্যবহার করেন সেক্ষেত্রে আরো বেশি ওয়াটেজ প্রয়োজনীয় হবে।

ফিজিক্যাল সাইজ ও নয়েজ

এই প্রবলেম অনেকেই ফেস করেন, বিশেষ করে পিসির কেসিং এ জায়গা কম থাকলে আর নন-মডিউলার পাওয়ার সাপ্লাই কিনলে অনেক ক্যাবল ভেজাল বাঁধিয়ে দেয়, সেগুলোকে জট পাকীয়ে ভেতরে রেখে দিতে হয়। আমার হাই ওয়াটেজ পাওয়ার সাপ্লাই গুলোর সাইজ ও একটু বড় হয়ে থাকে, তাই সঠিক প্রয়োজনে সঠিক কেসিং এবং পাওয়ার সাপ্লাই সাইজের দিকেও লক্ষ রাখা প্রয়োজনীয়।

পাওয়ার সাপ্লাই গুলোর বিশেষ একটি সমস্যা হচ্ছে এদের মধ্যের বিল্ডইন ফ্যান থেকে অনেক নয়েজ বের হয়। নয়েজ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য দুইটি অপশন আপনার হাতে রয়েছে, প্রথমত বড় সাইজের ফ্যান নির্বাচন করা যেখানে বেশি বায়ু প্রবাহিত হবে এবং কম আরপিএম এ কাজ হবে ফলে নয়েজ অনেক কমে যাবে। আর আরেকটি সলিউশন হচ্ছে ট্যাম্প্রেচার কন্ট্রোল ফ্যান ওয়ালা পাওয়ার সাপ্লাই নির্বাচন করতে পারেন। আবার চাইলে কমপ্লিট ফ্যান ছাড়া পাওয়ার সাপ্লাই কিনতে পারেন, কিন্তু সেখানে কিছু অসুবিধা তৈরি হবে।

পাওয়ার দক্ষতা

আপনার কম্পিউটারের পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট টি একটি কারেন্ট কনভার্টার ডিভাইজ। যখন এসি থেকে ডিসিতে কারেক্ট কনভার্ট করা হয় বা বলতে পারেন হাই লেভেল কারেন্ট থেকে লো লেভেল কারেন্টে কনভার্ট করা হয় সেক্ষেত্রে পিএসইউতে হিট জেনারেট হয় এবং কিছু পাওয়ার লস হয়। যতোবেশি দক্ষ পাওয়ার সাপ্লাই কিনবেন, সেক্ষেত্রে ইলেক্ট্রিসিটি অপচয় বেঁচে যাবে। পাওয়ার দক্ষতার উপর ভিত্তি করে মোট ৬টি লেভেলের দক্ষতা রেটিং করা হয়েছে। আপনি যতোবেশি রেটিং দেওয়া পাওয়ার সাপ্লাই কিনবেন, সেটা ততোবেশি পাওয়ার সেভ করতে পারবে এবং হিট ও ততোবেশি কম জেনারেট হবে।

তবে এখানে একটি কথা মনে রাখতে হবে, বেশি এফিসিয়েন্ট রেটিং করা পিএসইউ অবশ্যই বেশি টাকা কস্ট করতে পারে। তবে আপনার পিএসইউটি কমপক্ষে 80 Plus রেটিং করা থাকতেই হবে, নিচে বাকী রেটিং গুলোর লিস্ট প্রদান করা হলো।

  • 80 Plus offers, well, 80% efficiency.
  • 80 Plus Bronze offers 82% – 85% efficiency.
  • 80 Plus Silver offers 85% to 89% efficiency.
  • 80 Plus Gold offers 87% to 92% efficiency.
  • 80 Plus Platinum offers 89% to 94% efficiency.
  • 80 Plus Titanium offers 90 to a whopping 96% efficiency.

কম্পিউটার পাওয়ার সাপ্লাই


পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিটকে অনেকটা পরিবারের অন্যদাতা পিতার সাথে তুলনা করতে পারেন, যদিও প্রসেসর সকল কাজ গুলো করে থাকে কিন্তু পিএসইউ ছাড়া কেউই চলতে পারবে না বরং কম্পিউটার শুধু খেলনার একটি যন্ত্র ছাড়া আর কিছুই থাকবে না। যাই হোক, যদি সঠিক পাওয়ার সাপ্লাই নির্বাচন না করতে পারেন সেক্ষেত্রে বিশাল বিপদের সৃষ্টি করতে পারে। নন-ব্র্যান্ডেড পাওয়ার সাপ্লাই গুলো থেকে দূরে থাকায় ভালো, বিশেষ করে Corsair, SeaSonic,  Antec, XFX, Cooler Master ইত্যাদি বিশ্বস্ত ব্র্যান্ড গুলোর দিকে তাকানো বেস্ট হবে। আর বাকী কোন কোন বিষয়ের উপর বিশেষ নজর রাখতে হবে সেগুলো নিয়ে তো উপরে আলোচনা করলামই।


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

ইমেজ ক্রেডিটঃ By Charcompix Via Shutterstock | By Michael C. Gray Via Shutterstock | By MNI Via Shutterstock

প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।

15 Comments

  1. Asraful kabir Rumman Reply

    vai apnar pc ta somossa hoyse.. bujhe uthte parsi na ki somossa. pc on korle kotkot sound hocce tarpore.. dekhi windows onk sloww kaj korte suru kore dicche. computer hang hoye jacce khub.. ekhon ki korbo..?

  2. Johny Reply

    ভাই অনলাইন PSU ক্যালকুলেটর গুলো কতটা ভরসার হয়?

  3. abu sufian Reply

    if you’re on a budget, be willing to sacrifice a speed grade on your CPU for a better PSU. This really a great article thanks bro.

  4. অর্নব Reply

    খুব ভালো লিখেছেন দাদা। এখন সম্পূর্ণ পিসি নিয়ে একটা দ্যা আল্টিমেট গাইড সাজিয়ে ফেলুন তো।

  5. Anirban Reply

    Bhai er sb post gulo k osadharon blle khb kom bla hy…. r post pore comment krar bhasha thke na…..

    WOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOOW!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

    Airplane niye details post chai…

  6. সেলিম খান Reply

    আমি ডুয়েল কোর কম্পিউটার বানাবো র্যাম ৪ জিবি হার্ডডিস্ক ৫০০ জিবি,তাহলে পাওয়ার সাপ্লাই কোনটি ব্যবহার করবো???

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *