অনলাইনে উপার্জন শুরু করতে পারেন যেভাবে! [পর্ব: ১]

আমাদের প্রতিদিনের ব্যবহার্য ভাত-মাছের মত ইন্টারনেট তথা অনলাইন হল পৃথিবীর মত আরেকটি ভার্চুয়াল ওয়ার্ল্ড। একে সেকেন্ড ওয়ার্ল্ড বললেও ভুল হবে না। এখানে কোটি কোটি মানুষ বিচরন করে ভার্চুয়ালি। আর এই ভার্চুয়াল ওয়ার্ল্ড ইন্টারনেট নিয়ে, আমাদের মধ্যে সবসময় নানা প্রশ্ন, জানার ইচ্ছা কাজ করে। আর সেই জানার ইচ্ছা অনেকসময় আমাদের টেনে নিয়ে ওয়্যারবিডিের মত ওয়েবসাইটে।

অনলাইনে অর্থ উপার্জন নিয়ে আমাদের সকলের একটা প্রশ্ন মাথায় থাকেই। অামরা অনেকে একে সহজ বিষয় মনে করে থাকি। তবে কম্পিউটার ইন্টারনেট থাকলে ইন্টারনেট থেকে আয় করা যায় না, আয় করতে আপনার কোনো স্পেসিফিক বিষয়ে স্কিলড হতে হয়। ক্লিক করে বা বসে বসে আয় করার স্বপ্ন সবসময় স্বপ্নই থেকে যায়। তবে নিজের একটু মেধা ও পরিশ্রমকে কাজে লাগিয়ে এই ভার্চুয়াল জগত থেকে টাকা আয় করা সম্ভব। আজ অনলাইনে উপার্জনন করবেন কিভাবে আর্টিকেলের প্রথম পর্বে, জানাবো কয়েকটি বিষয় সম্পর্কে, যেখান থেকে আপনি ভালো মানের উপার্জন করতে পারবেন। তো বন্ধুরা, তাহলে কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক…

এডসেন্স থেকে

Photo by pasja1000 on Pixabay.com

বর্তমানে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করার খুবই বড় একটি সুযোগ গুগল এর এডসেন্স । ব্যাক্তিগত ওয়েবসাইট বা ব্লগে রিলিভেন্ট বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করানোর মাধ্যমে, এডসেন্স হতে পাবলিশার বা ওয়েবসাইট মালিক উপার্জন করতে পারে। তবে এডসেন্স থেকে ভালো কিছু পেতে ভালো মানের কনটেন্ট নিয়ে কাজ করতে হয়। গুগল ব্লগার দিয়ে ফ্রী ব্লগ তৈরি করে, সেখানে ভালো কনটেন্ট লিখলে, সেখানেও এডসেন্স এর মাধ্যমে টাকা আয় করা যায়। তবে নিজের ডোমেইন ও হোস্টিং কিনে ওয়ার্ডপ্রেসে বা নিজস্ব প্রোগ্রাম এর তৈরি ওয়েবসাইট এ  গুগল এর এডসেন্স ব্যবহার করে ভালো মানের টাকা আয় করা যায়। এতদিন বাংলা ভাষায় অ্যাডসেন্স না থাকার ফলে বাংলা কনটেন্ট এর জন্য আয় তেমন আশা করা যেত না। তবে বর্তমানে বাংলা ভাষায় অ্যাডসেন্স উন্মুক্ত হয়ার ফলে অনলাইনে বাংলা টেক্সট কনটেন্ট তৈরিকারক দের জন্য অ্যাডসেন্স বড় সুযোগ হতে পারে। সঠিক পরিশ্রম আপনাকে অ্যাডসেন্স থেকে আপনার ক্যারিয়ার সেট করেও দিতে পারে।

ঠিক একইভাবে ইউটিউব চ্যানেলেও অ্যাডসেন্স প্রোগ্রাম এর সাথে যুক্ত হয়ে কনটেন্ট ক্রিয়েটর টাকা আয় করতে পারে। এখানে অ্যাডসেন্স এর মাধ্যমে তার নিজের ভিডিও মোনিটাইজেশন করার মধ্য দিয়ে কনটেন্ট ক্রিয়েটর উপার্জন করে থাকে। তবে এর যোগ্য হওয়া একটু কঠিন ব্যাপার বটে! আপনার চ্যানেল তৈরির পর থেকে তার ১ হাজার সাবস্কাইবার ও ৪ হাজার ঘণ্টা ওয়াচ টাইম না হলে আপনি এই সুবিধা পাবেন না। তবে আপনার চ্যানেল একবার অ্যাডসেন্স এর জন্য তৈরি হয়ে গেলে আপনার উপার্জন ভালো মানের হবে এটি নিশ্চিত। আর একটু ভালো মানের ভিডিও নিয়মিত বানালে এই লক্ষ মাত্রা পার করা কঠিন কিছু নয় ।

এফ কমার্স ও ইনস্টা কমার্স থেকে

Photo by Pexels

এফ কমার্স ও ইনস্টা কমার্স অর্থাত ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম এর মত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সাইট ব্যবহার করে আপনি অনলাইনে ব্যবসা করতে পারেন। এখানে ব্যবসা করবেন কিভাবে? তা হল আপনার বিভিন্ন পন্য এসব মাধ্যমের সাহায্যে বিক্রয় করে। অনেকে বাসায় বিভিন্ন কারুশিল্প তৈরি করে থালেন, তাদের জন্য এই সব বাসায় তৈরি শিল্পের বিক্রয়ের বড় মাধ্যম হতে পারে এই এফ/ইনস্টা কমার্স ; কেননা প্রতি মুহূর্তে কোটি কোটি ইউজার এসব সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করছে। বিজনেস পেজ তৈরি করে, নিজেদেরর পন্যের বিজ্ঞাপন পোস্ট আকারে দিয়ে তা বুস্ট করার মাধ্যমে, একজন ব্যবসায়ী এখানে তার পন্যের বিক্রয় বাড়িয়ে তুলতে পারেন।

তবে এসব সামাজিক মাধ্যমে পন্যের ব্যবসা করার ক্ষেত্রে, একটি জিনিস মাথায় রাখতে হবে আপনি কি বিক্রয় করবেন সেটি নিয়ে। বাজারে সচরাচর যেসব জিনিস পাওয়া যায়, তা আপনি কখনও এসব মাধ্যম ব্যবহার করে বিক্রি করতে যাবেন না। আপনার নিজের তৈরি কারুশিল্প প্রকৃতির পন্য থাকলে বিক্রয় করতে পারেন ; অথবা আপনি আলিবাবার মত মার্কেট প্লেস থেকে কমদামে আকর্ষনীয় সব পন্য বিদেশ থেকে আমদানি করে দেশে ভালো মুনাফার সাথে তা সামাজিক মাধ্যম কমার্সে বিক্রয় করতে পারেন। আর সাধারনত এসব মাধ্যমে ইলেক্ট্রনিকস আকর্ষনীয় সব পন্য বিক্রয় করে মাস শেষে আপনি একটা মোটা অংকের টাকা আয় করতে পারবেন।

ছবি বিক্রয় করে

সাটারস্টক, আইস্টক, ড্রিমসটাইম এর মত ওয়েবসাইটে একজন ফটোগ্রাফার তার তোলা অসাধারন বিভিন্ন ছবি বিক্রয় করতে পারেন।
Photo by Min An from Pexels

বিগত ১-২ বছর হল আমাদের দেশে ডিএসএলআর ক্যামেরা কেনা একটা ট্রেন্ড, এর সাথে সাথে বেড়েছে তথাকথিত অনেক ফটোগ্রাফার । তবে দিনশেষে এসব বেশির ভাগ ফটোগ্রাফার ছবি ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল এর ভেতরই সীমাবদ্ধ থাকছে। এর থেকে অনেকে কোনো আর্থিক লাভ আনতে পারছেন না। বেশিরভাগ ডিএসএলআর ধারী ফটোগ্রাফার শেষমেষ ঝুঁকে পড়েন ওয়েডিং ফটোগ্রাফীর দিকে, যাই হোক। আমার চাইতে যারা ফটোগ্রাফী নিয়ে আয়ের পথ খুঁজছেন, তারা ফটোগ্রাফী সম্পর্কে বেশি জানেন। তাদের জন্য এর থেকে আয়ের একটি বড় পথ হল এসব ছবি অনলাইনে বিক্রয় করা।

সাটারস্টক, আইস্টক, ড্রিমসটাইম এর মত ওয়েবসাইটে একজন ফটোগ্রাফার তার তোলা অসাধারন বিভিন্ন ছবি বিক্রয় করতে পারেন। আর যেহেতু বাংলাদেশে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অভাব নেই, অসাধারন নানা ছবি তুলে এসব ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রতি সেলে (বিক্রয়ে) একজন আপলোড কারী ৫০-২০০০ টাকা আয় করতে পারেন, অর্থাত ১০০ জন তার ছবি এসব ওয়েবসাইট থেকে কিনলে তিনি পাবেন ৫০০০-২০০০০০ টাকা। সুতরাং একজন স্কিলড ফটোগ্রাফার তার ছবির মাধ্যমে অনলাইন থেকে অনেক ভালো আয় করতে পারবে।

Photo by Negative Space on Pexels

গ্রাফিক্স ডিজাইনারঃ কেবল ফটোগ্রাফার নয়, কম্পিউটার অন স্ক্রীন গ্রাফিক্স ডিজাইনার তাদের বিভিন্ন ব্যানার,বিজনেস কার্ড, ভেক্টর ডিজাইন তৈরি করে সাটারস্টক এর মত ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রয় করে, অনলাইনে আয় করতে পারবে।

টি-সার্ট ডিজাইন করে

আপনার মাথায় কি অসাধারন একটি টি-সার্টের ডিজাইন ঘুরঘুর করছে? তবে সুযোগ তা টাকায় পরিনত করার। অনলাইনে টিস্প্রিং এর মত ওয়েবসাইটে টি-সার্ট ডিজাইন বিক্রয় করে আপনি হাজার ডলার পর্যন্ত আয় করতে পারেন। যারা গ্রাফিক্স/ভেক্টর/টাইপোগ্রাফি ডিজাইনার তাদের জন্য এটি একটি প্লাস পয়েন্ট। তবে যারা এসব জানেননা, তবে রং তুলিতে ক্যানভাসে অসাধারন ডিজাইন করতে পারেন ; তারা তাদের ডিজাইন সহজেই কম্পিউটারে স্ক্যান করে ডিজাইন বিক্রয় করতে পারবেন।

এখানে আপনার ডিজাইন ক্রিয়েটিভিটি এবং ট্রেন্ড টপিক ক্যাপচার করার ক্ষমতা যত বেশি আপনার আয় তত বেশি। সাটারস্টক এর মতই এখানে আপনার ডিজাইন টিস্প্রিং এ যত বেশি বিক্রয় হবে, আপনার আয় হবে তত বেশি। সুতরাং চিত্রাংকন প্রেমী ও গ্রাফিক্স ডিজাইনার দুশ্রেনীর মানুষের জন্যই অনলাইনে উপার্জন করার এটি একটি বড় প্লাটফর্ম।



WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

এই ছিল অনলাইনে উপার্জন করার কয়েকটি কার্যকর উপায়। আর এই পর্বে এইকটি নিয়েই আলোচনা করলাম। অনলাইনে উপার্জন বিষয়ে পরবর্তী পর্ব চান কিনা তা আপনি অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন। এখানে এই বিষয়গুলোকে সহজ বলে কখনই উড়িয়ে দিবেন না, সবগুলোই পরিশ্রম ও আপনাকে কিছু সময় দিতে হবে। এখানে আরও কিছু জানার থাকলে অবশ্যই নিচে কমেন্টে জানাবেন। পরবর্তীতে আমরা এডসেন্স, ইউটিউব, ওয়েব হোস্টিং ব্যবসা, ই কমার্স, অ্যাফিলিয়েট ইত্যাদি বিষয়ে জানব। আর সে পর্যন্ত সাথেই থাকবেন, নিয়মিত ওয়্যারবিডি এর পাশে থাকবেন।

[Featured Image by bruce mars from Pexels]