ওয়াইফাই এন্টেনা | রাউটারে এন্টেনার কাজ কি? এন্টেনা সত্যিই কতোটা প্রয়োজনীয়? [বিস্তারিত!]

ওয়াইফাই এন্টেনা

শুধু ওয়াইফাই নয়, যেকোনো রেডিও বা ওয়্যারলেস টেকনোলজি বিশেষ এক অংশের উপর নির্ভরশীল, যার নাম এন্টেনা। যেকোনো ওয়্যারলেস কমিউনিকেশন সিস্টেমে দুই টাইপের এন্টেনা দেখতে পাওয়া যায়, এক টাইপ এন্টেনা সিগন্যাল সেন্ড করে তাই একে ট্র্যান্সমিটার এবং আরেক টাইপ এন্টেনা সিগন্যাল রিসিভ করে তাই একে রিসিভার এন্টেনা বলা হয়ে থাকে। আবার অনেক টাইপ এন্টেনা রয়েছে যারা একসাথে সিগন্যাল রিসিভ এবং ট্র্যান্সমিট উভয়ই করতে পারে। যাই হোক, এন্টেনা এবং ট্র্যান্সমিটার কীভাবে কাজ করে — এই আর্টিকেল থেকে এন্টেনা সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে পাড়বেন। এই আর্টিকেলে বিশেষ করে ওয়াইফাই এন্টেনা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো, রাউটারে এন্টেনার সত্যিই কতোটা প্রয়োজনীয়তা রয়েছে এবং সাথে বিভিন্ন টাইপের ওয়াইফাই এন্টেনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো।

ওয়াইফাই এন্টেনা

যেকোনো রেডিও টেকনোলজি, আর ওয়াইফাই হুবহু একই স্টাইলে কাজ করে, ওয়াইফাই রাউটার বিশেষ রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি ব্যবহার করে সিগন্যাল ট্র্যান্সমিট করে এবং আপনার ফোন, ল্যাপটপ, বা যেকোনো ডিভাইজ সেই সিগন্যাল রিসিভ করে নেটওয়ার্কের সাথে কানেক্টেড হতে পারে। তো একটি সম্পূর্ণ সফল ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক তৈরি করতে কি প্রয়োজনীয় হচ্ছে, ওয়াইফাই রাউটার, আপনার ল্যাপটপ, স্মার্টফোন, যেকোনো যেকোনো ডিভাইজ যেটা ওয়াইফাই সমর্থন করে কাজ করে — কিন্তু এখানে ওয়াইফাই ওয়্যারলেস এন্টেনা ও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সিগন্যাল সেন্ড বা রিসিভ করার জন্য এই এন্টেনায় সবচাইতে প্রধান ভূমিকা পালন করে থাকে।

ওয়াইফাই এন্টেনা

এখন আপনি হয়তো ভাবছেন, আপনার স্মার্টফোন বা ল্যাপটপ উভয়ই তো ওয়াইফাই সমর্থন করে, কিন্তু সেখানে তো কোন এন্টেনা দেখতে পাওয়া যায় না। তাহলে রাউটারে তিনটা-চারটা লম্বা লম্বা এন্টেনা কেন লাগানো থাকে, এগুলো লাগানো না থাকলে কি হতো? অনেকে আবার সিগন্যাল বৃদ্ধি করার জন্য আলাদা এন্টেনা লাগিয়ে থাকে, আসলে এগুলো করার কি সত্যিই প্রয়োজনীয়তা রয়েছে? — ওয়েল, আপনার ফোন বা ল্যাপটপে লম্বা এন্টেনা না দেখা গেলেও সেখানে ভেতরে কিন্তু এন্টেনা লাগানো থাকে, কেনোনা ওয়্যারলেস প্রযুক্তি এন্টেনা ছাড়া কাজ করতে পারে না। আর কিছু টাইপের এন্টেনা ডিভাইজের বাইরে লাগানো থাকে, যেমন আপনার রাউটার বা পিসির ওয়াইফাই অ্যাডাপটার এন্টেনা ডিভাইজের বাইরে লাগানো দেখতে পাওয়া যায়।

আর এন্টেনা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, কেনোনা ওয়্যারলেস টেকনোলজিতে আপনি কোন ইনফরমেশন কতো দ্রুত সেন্ড বা রিসিভ করতে পাড়বেন সেটার অনেকখানি নির্ভর করে, আপনি কোন টাইপ এন্টেনা ব্যবহার করছেন এবং আপনার সিগন্যাল কতোটা শক্তিশালী তার উপরে।

ওয়াইফাই ওয়্যারলেস এন্টেনার প্রকারভেদ

আপনার ওয়াইফাই এন্টেনা থেকে ঠিক কতোটা রেঞ্জ এবং সিগন্যাল কোয়ালিটি পেতে পাড়বেন সেটা নির্ভর করে এন্টেনার পাওয়ার গেইনের উপরে। এন্টেনার গেইন কোয়ালিটিকে সাধারণত ডেসিবেল (Decibels) বা ডিবি (dB) দ্বারা প্রকাশ করা হয়ে থাকে। তবে ডিভাইজ প্রস্তুতকারী কোম্পানিগন আরো দুইটি আলাদা আলাদা স্ট্যান্ডার্ড ব্যবহার করে এন্টেনা গুলোকে রেটিং করে থাকে। একটি ডিবিআই (dBi) এবং আরেকটি ডিবিডি (dBd) — তবে বেশিরভাগ কোম্পানি গেইন পরিমাপক হিসেবে ডিবিআই স্ট্যান্ডার্ড ব্যবহার করে থাকে, যেখানে ২.১৪ ডিবিআই থেকে কোন এন্টেনা কাজ করতে শুরু করে দেয়। এখানে পরিমাপ করে সংখ্যা যতোবেশি হবে, সিগন্যাল কোয়ালিটি এবং সিগন্যাল রেঞ্জ ততোবেশি হবে, সাথে ততোবেশি পাওয়ারও প্রয়োজনীয় হবে। ওয়্যারলেস রাউটার বা সেলুলার প্রোডাক্ট গুলোতে মূলত দুই টাইপের এন্টেনা যায়, অমনি-ডিরেকশনাল (Omnidirectional) ওয়াইফাই এন্টেনা এবং ডিরেকশনাল (Directional) ওয়াইফাই এন্টেনা।

ওয়াইফাই ওয়্যারলেস এন্টেনা

অমনি-ডিরেকশনালঃ— এই টাইপ এন্টেনার নাম শুনেই নিশ্চয় বুঝতে পাড়ছেন, এটি সকল দিকে সমানভাবে সিগন্যাল ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এই এন্টেনা যেকোনো দিকে একই কোয়ালিটির সিগন্যাল বীম ছুঁড়ে মারে, আজকের বেশিরভাগ ওয়াইফাই বা মোবাইল রাউটার গুলোতে অমনি-ডিরেকশনাল টাইপ এন্টেনাই লাগানো থাকে। স্বাভাবিকভাবে এই টাইপ এন্টেনা আপনার ঘরের যেকোনো প্রান্তে রাখলে, অ্যাক্সেস পয়েন্ট থেকে চারিদিকে সমানভাবে সিগন্যাল ছড়িয়ে দেয়।

ডিরেকশনাল এন্টেনাঃ— অমনি-ডিরেকশনাল টাইপ এন্টেনাতে যতোই গেইন পাওয়ার থাকুক না কেন, সেটা যদি কেবল এক দিকে মাপা হয় তো সিগন্যাল কোয়ালিটি তেমন উন্নত হয় না, কেনোনা এটি ৩৬০ ডিগ্রিতে সমস্থ শক্তি ছড়িয়ে দেয়। কিন্তু চিন্তা করুণ যদি সমস্ত গেইন পাওয়ার চারিদিকে না ছড়িয়ে কেবল নির্দিষ্ট একদিকে ছুঁড়ে মারা হয়, সেটা অনেক বেশি শক্তিশালী সিগন্যাল তৈরি করতে সক্ষম হবে। ডিরেকশনাল এন্টেনা, তার সমস্ত সিগন্যাল গেইন যেকোনো নির্দিষ্ট দিকে ছুঁড়ে মারতে পারে, এতে একদিকে অনেক শক্তিশালী সিগন্যাল কোয়ালিটি পাওয়া যায়।

যদি আপনি সম্পূর্ণ বাড়ি জুড়ে সিগন্যাল পেতে চান বা সম্পূর্ণ অফিস সিগন্যাল দ্বারা কভার করতে চান, সেক্ষেত্রে অবশ্যই অমনি-ডিরেকশনাল প্রয়োজনীয় হবে, কিন্তু চিন্তা করে দেখুন অফিসের এমন রুমের কথা যেখানে সিগন্যাল খুব অল্প পৌছাতে পারে, সেদিকে ডিরেকশনাল টাইপ এন্টেনা অনেক কাজে আসবে। ডিরেকশনাল এন্টেনার একটি ব্র্যান্ড নেম হচ্ছে ক্যান্টেনা (Cantenna) — এটি ২.৪ গিগাহার্জ ফ্রিকোয়েন্সি সমর্থন করে এবং 12 dBi সিগন্যাল বীম ৩০ ডিগ্রী কোণে যেকোনো নির্দিষ্ট দিকে ছুঁড়ে মারতে পারে। অনেক এন্টেনা ডুয়াল ব্যান্ড সমর্থন করে, এগুলো ২.৪ গিগাহার্জ থেকে ২.৫ গিগাহার্জ এবং ৫.১ গিগাহার্জ থেকে ৫.৯ গিগাহার্জ ফ্রিকোয়েন্সিতে কাজ করতে পারে। আবার কিছু এন্টেনা শুধু ৫.১ গিগাহার্জ থেকে ৫.৯ গিগাহার্জ ফ্রিকোয়েন্সিতে কাজ করে। আরেক টাইপের ডিরেকশনাল এন্টেনা হচ্ছে ইয়াগি (Yagi) এন্টেনা, যেটা অনেক দূরত্ব পর্যন্ত ওয়াইফাই সিগন্যাল পাঠাতে পারে, মূলত এটি 12 dBi বা আরো হাই গেইন তৈরি করে ছুঁড়ে মারে।

এন্টেনা আপগ্রেড

ওয়াইফাই বা যেকোনো ওয়্যারলেস নেটওয়ার্কে ব্যান্ডউইথ রেট খারাপ হয়ে যাওয়ার পেছনে মূল কারণ হচ্ছে খারাপ বা দুর্বল সিগন্যাল কোয়ালিটি। অনেক সময় হাই গেইন এন্টেনা লাগিয়ে সিগন্যাল কোয়ালিটি উন্নত করা সম্ভব হতে পারে। তবে এন্টেনা আপগ্রেড করার সময় প্রয়োজনের কথা খেয়াল রাখা ভালো, যদি সমস্ত বাড়ি বা অফিস জুড়ে সিগন্যাল দরকারি না হয়, সেক্ষেত্রে ডিরেকশনাল টাইপ এন্টেনা বেস্ট হবে, এতে একদিকে হাই গেইন সিগন্যাল পাওয়া যাবে। এন্টেনা আপগ্রেড করার আগে অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে আপনার ওয়াইফাই গিয়ার আলাদা এন্টেনা সাপোর্ট করে কিনা, অবশ্যই ম্যানুয়াল বই দেখে বা অনলাইন থেকে নিশ্চিত হতে হবে। যদি সম্পূর্ণ বাড়ি জুড়ে সিগন্যাল প্রয়োজনীয় হয়, সেক্ষেত্রে আগের চেয়ে বেটার গেইনের অমনি-ডিরেকশনাল টাইপ এন্টেনা ইন্সটল করার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করা যেতে পারে।

এন্টেনা আপগ্রেড

এন্টেনা আপগ্রেড করার মাধ্যমে আউটডোর এবং ইনডোর উভয় পরিবেশেই বেটার সিগন্যাল কোয়ালিটি পাওয়া সম্ভব। এন্টেনা হয়তো সিগন্যাল রেঞ্জিং এ অনেকটা সাহায্য করে দেবে, কিন্তু মূল সিগন্যাল ক্ষমতা রেডিও ট্র্যান্সমিটারের উপর নির্ভরশীল, তাই অনেক বেশি জায়গা জুড়ে সিগন্যাল কভার করার জন্য সিগন্যাল বুস্টার বা সিগন্যাল অ্যামপ্লিফায়ার ব্যবহার করতে হতে পারে। অনেক সময় সিগন্যাল রিপিটার গ্রেট সিগন্যাল কোয়ালিটি ক্যাচ করতে সাহায্য করে থাকে।


আশা করছি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি থেকে আপনি সহজেই বুঝতে পেড়ে গেছেন, ওয়াইফাই বা যেকোনো ওয়্যারলেস নেটওয়ার্কের ক্ষেত্রে এন্টেনা কতোটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, যদি আপনি এন্টেনা আপগ্রেড করার চিন্তা করে থাকেন, সেক্ষেত্রে প্রয়োজন অনুসারে এন্টেনা টাইপ, সিগন্যাল ব্যান্ড, গেইন, রেঞ্জ ইত্যাদি বিষয় গুলো মাথায় রাখতে হবে। তবে সিম্পলভাবে জাস্ট রিপিটার ব্যবহার করেও সিগন্যাল সমস্যা দুর করা যেতে পারে।


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

ইমেজ ক্রেডিটঃ By nadtochiy Via Shutterstock | By Piotr Adamowicz Via Shutterstock | By Milosbeo Via Shutterstock

তাহমিদ বোরহান
প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।