বর্তমান তারিখ:17 August, 2019

বেঞ্চমার্ক রেজাল্ট নির্ভর করে কি ফোন ভালো না মন্দ বিচার করা উচিৎ?

বেঞ্চমার্ক

ফোনের বেঞ্চমার্ক রেজাল্টের উপর নির্ভর করে আমাদের মধ্যে অনেকে তাদের নতুন ফোনটি কেনার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন। তারা সবসময় লখ্য করেন যে সেই ফোনটি আলাদা আলদা বেঞ্চমার্কস সফটওয়্যারে কত স্কোর করেছে। অথবা আপনি যখন আপনার ফোনটির সাথে আপনার বন্ধুর ফোনটি তুলনা করেন তখন প্রায় সবসময়ই অ্যানতুতু বেঞ্চমার্কস স্কোর দেখে বলেন যে, “আমার ফোনের স্কোর বেশি অতএব আমার ফোনটি বেশি ভালো এবং তোমার ফোনের স্কোর কম তাই তোমার ফোনটি তেমন ভালো না”। এখন প্রশ্ন হচ্ছে যে, শুধু কি বেঞ্চমার্কস রেজাল্টের উপর ভিত্তি করে কোন ফোনকে ভালো অথবা খারাপ বলে আখ্যায়িত করা যুক্তি যোগ্য? এই পোস্টে বেঞ্চমার্কস এর গুরুত্ব এবং প্রয়োজনীয়তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

আরো জানুন

বেঞ্চমার্ক কি?

বেঞ্চমার্ক কি?

এখন যদি বলি বেঞ্চমার্কস কি, তবে এটি এমন একটি স্ক্রিপ্ট বা একটি কোড যা সফটওয়্যারের রুপে পাওয়া যায় এবং আপনার ফোনে ইন্সটল করার মাধ্যমে কাজ করে। এবং এই স্ক্রিপ্ট আপনার ফোনের পারফর্মেন্স পরীক্ষা করে একটি ফল প্রকাশ করে যে আপনার ফোন আলদা আলদা বিষয়ের উপর কতটা ভালো অথবা খারাপ। চলুন বিষয়টিকে আরো পরিষ্কার করার জন্য একটি বাস্তব জীবনের উদাহরণ দেওয়া যাক।

মনে করুন কেউ যদি আমার পারফর্মেন্স এর বেঞ্চমার্ক করতে চায় তবে সে আমাকে একটি কাজ করার রুল দিয়ে দেবে। যে আমাকে প্রথমে ১ কিলোমিটার দৌড় লাগাতে হবে তারপর আমাকে ১ কিলোমিটার সাঁতার কাটতে হবে তারপর আরো ২ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে যেতে হবে তারপর পাহাড়ে চড়তে হবে এবং শেষে ৫০ বার পুশআপস লাগাতে হবে। তো এটি একটি নির্ধারিত সিস্টেম যেখানে আমাকে এসকল কাজ করতে হবে। এবার মনে করুন আমি হয়তো সব টাস্ক এর ভেতর ২ টি টাস্কে অনেক ভালো অথবা ১ টি কাজ ভালো করতে পারিনি অথবা আমি সব গুলো রুলই খুব ভালো ভাবে সম্পূর্ণ করতে পেরেছি। এবং আমার এই পারফর্মেন্স এর উপর ভিত্তি করে সে ব্যাক্তিটি আমাকে একটি ফাইনাল স্কোর প্রদান করবে। যে হাঁ তুমি সাঁতার ভালো কাটতে পারো কিন্তু ভালো দৌড়াতে পারো না অথবা পাহাড়ে ভালো করে চড়তে পেরেছ কিন্তু পুশআপস ভালো করে দিতে পারনি ইত্যাদি এবং এই নাও তোমার বেঞ্চমার্কস স্কোর।

ঠিক একই ভাবে আজকের দিনের স্মার্টফোন বেঞ্চমার্কস সফটওয়্যার গুলো কাজ করে থাকে। মার্কেট প্লেসে অনেক গুলো বেঞ্চমার্কস সফটওয়্যার পাওয়া যায়, কিন্তু আমরা অ্যানতুতু এবং গিগবেঞ্চ নামক এই দুই সফটওয়্যারকে সর্বাধিক ব্যবহার করে থাকি। দেখুন অ্যানতুতু সফটওয়্যারের মধ্যে এমন অনেক প্যারামিটারস থাকে যা সিপিইউ, জিপিইউ, ব্যাটারি, র‍্যাম, স্টোরেজ ইত্যাদির পারফর্মেন্স চেক করে এবং শেষে সব কিছু মিলিয়ে একটি গড় রেজাল্ট আপনার সামনে প্রকাশ করে থাকে।

আমার মতে বেঞ্চমার্কের গুরুত্ব

আমার মতে বেঞ্চমার্কের গুরুত্ব

দেখুন যদি আমার ব্যাক্তিগত মতামত জানতে চান তবে আমি বলবো যে বেঞ্চমার্কের কোন গুরুত্ব নেই একটি ফোনকে ভালো বা খারাপ হিসেবে প্রমান করার। আজকের দিনে ফোন বেঞ্চমার্কস টেস্ট করা ব্যাস একটি ফ্যাশানে পরিণত হয়েছে। আমরা ভাবি যে সবাই এটি টেস্ট করে তো আমিও করবো। আজকাল বিভিন্ন ওয়েবসাইটে বিভিন্ন রিভিউার দের কাছে বেঞ্চমার্কস টেস্ট করা একটি সাধারন বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। আপনি হয়তো অনেক ওয়েবসাইটে বা অনেক ইউটিউব ভিডিওতে দেখেছেন যখন একাধিক ফোনের মধ্যে তুলনা করে কোন পোস্ট বা রিভিউ বা ভিডিও বানানো হয় তখন সবসময় বেঞ্চমার্কস টেস্টকে হাইলাইট করা হয়। আমি আগেই বলেছি ব্যাস আজকাল এটি একটি ফ্যাশান হয়ে দাঁড়িয়েছে। অন্যজন যদি বেঞ্চমার্কস টেস্ট করে একটি রিভিউ বানায় এবং আমি যদি বেঞ্চমার্ক না করি তবে আপনি হয়তো বলবেন যে আমি ভালো করে রিভিউ করলাম না বা আমার রিভিউটি পরিপূর্ণ হলো না। তো এভাবেই এটি ব্যাস একটি সিস্টেম হিসেবে দাঁড়িয়েছে এবং আমরা প্রায় সবাই এটি করে থাকি।

দেখুন আসলে কিন্তু বেঞ্চমার্কস করে কিছুই হয়না, এটি শুধু আপনার ফোনের পারফর্মেন্স এর সম্পর্কে একটি ধারণা প্রদান করে থাকে, যে আপনার ফোনের পারফর্মেন্স এমনটা হতে পারে। কিন্তু ফোনটির পারফর্মেন্স সত্যিই কতটা ভালো তা সবসময় নির্ভর করে ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম, ফোনটির অ্যান্ড্রয়েড ভার্সন, ফোনটির হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার নিজেদের মধ্যে কত ভালোভাবে সম্পর্ক স্থাপন করার ক্ষমতা রাখছে, সফটওয়্যারটি কতটা দক্ষ, ফোনটির স্ক্রীন কেমন ইত্যাদির উপর।

অনেক ইউজারদের মতামতে জানা গেছে অনেক সময় বেঞ্চমার্কস স্কোরে শীর্ষে থাকা ফোন গুলো এতোটা ভালো পারফর্মেন্স দিতে পারে নি যেটা হয়তো বেঞ্চমার্কস স্কোরে কিছু কম থাকা ফোন গুলো থেকে পাওয়া গেছে। অর্থাৎ আপনার ফোনটি যদি বেঞ্চমার্কস স্কোরে শীর্ষ তালিকায় থাকে তবে এর মানে এইটা নয় যে আপনার ফোন বাস্তব পারফর্মেন্স এও সবার শীর্ষে থাকবে। বেঞ্চমার্কস কি তা বুঝাতে গিয়ে আমি যে সাঁতার, দৌড় বা পুশআপস এর নাম নিয়েছি সে অনুসারে মনে করুন সেখানে আমি খুব পাওয়ার ফুল ছিলাম। তাই আমি সাঁতার তো নিজের শক্তি দিয়েই কেটে যাচ্ছি, এবং ভালো স্কোর করলাম। কিন্তু আমার প্রতিদ্বন্দ্বী যদি হয় বুদ্ধিমান তবেও হয়তো তার স্কোর আমার মতো হবে না, কিন্তু যখন বাস্তব জীবনে বন্যা আসবে তখন আমি তো সাঁতার কেটেই পার হবো কেনোনা আমি শুধু সাঁতার কাটতেই জানি কিন্তু সে একটি নৌকা লাগাবে আর আরামে বৈঠা মেরে পাড় হয়ে যাবে। মনে করুন একটি ফোনের কথা যেটি বেঞ্চমার্কে অনেক ভালো কিন্তু ফোনটির যে অপারেটিং সিস্টেম আছে তা একদম ফোনটিকে সীমাবদ্ধ করে রেখেছে তবে বাস্তব জীবনে ফোনটি ব্যবহার করার সময় আপনি ভালো বা মন মতো পারফর্মেন্স ফোনটি থেকে কখনো দেখতেই পাবেন না। আবার আরেকটি ফোনের কথা ভাবুন যেটির বেঞ্চমার্ক স্কোর একটু কম কিন্তু ফোনটির অপারেটিং সিস্টেমটি অনেক দক্ষ এবং ফোনটির হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যারের মাঝে খুব ভালো সম্পর্ক আছে, তবে আমি নিঃসন্দেহে ফোনটির চরম পারফর্মেন্স উপভোগ করতে পারবেন।

আরো জানুন

তো এতক্ষণের লম্বা আলোচনায় আমি শুধু এটুকুই বোঝাতে চেয়েছি যে, বেঞ্চমার্কস এর উপর দয়া করে অন্ধ বিশ্বাস করবেন না। তবে বেঞ্চমার্কস স্কোর বেশি হওয়াটা অবশ্যই ভালো ব্যাপার। তাছাড়া বড় বড় ফোন নির্মাতা কোম্পানি গুলো এটি ব্যবহার করে তাদের আগের বছরের ফোনের সাথে বর্তমান ফোনের তুলনা দেখিয়ে থাকে। তো এটি একটি মার্কেটিং টার্ম হয়ে দাঁড়িয়েছে। কোম্পানিরা এটার মাধ্যমে দেখায় যে, “দেখো গত ভার্সনের ফোনে সিপিইউ স্কোর বা জিপিইউ স্কোর এই ছিল এবং এবার তা বাড়িয়ে এই করা হয়েছে”। তাছাড়া এই স্কোরের সাহায্যে আপনি হয়তো জানতে পারেন যে আপনার ফোনটি বর্তমান পাওয়ার ফুল ফোন গুলোর তালিকায় আছে কিনা। তো এটি অবশ্যই একটি ভালো কথা। কিন্তু দয়া করে একে আপনি ফোনের জন্য একটি স্ট্যান্ডার্ড বানিয়ে ফেলবেন না। দেখুন এই স্কোর আপনার ফোনের ভালো বা মন্দ হওয়ার কোন সার্টিফিকেট নয়। বা মানুষকে দেখানোর জন্য বেশি স্কোর ওয়ালা ফোন কেনার প্রয়োজন নেই। বরং আপনি আপনার ফোনকে হাতে নিয়ে ব্যবহার করুন। আপনার নিত্য চাহিদা অনুসারে ফোনটিকে ব্যবহার করুন। এবার লখ্য করুন যে এই ফোন থেকে আপনি আপনার চাহিদা অনুসারে কেমন পারফর্মেন্স পাচ্ছেন। আর আপনার চাহিদা পুরন হওয়াটাই হলো আসল ব্যাপার। অমুক ফোনের অনেক ভালো স্কোর কিন্তু কাজের বেলা ঘণ্টা, তাহলে স্কোর কি জলের সাথে ধুয়ে খাবেন? আর যদি ফোনটি ভালো হয় এবং একজন ইউজার তা ইউজ করে ভালো পারফর্মেন্স পান তবে বেঞ্চমার্ক কোন ব্যাপার না, জাহান্নামে যাক বেঞ্চমার্কস স্কোর 😛

শেষ কথা


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

এক কথায় বলতে গেলে ফোনের বেঞ্চমার্কস স্কোর বেশি হওয়াটা অবশ্যই ভালো ব্যাপার, কিন্তু এটির উপর অন্ধ বিশ্বাস করার প্রয়োজন নেই। এটা একদমই জরুরী নয় যে, ভালো স্কোর ওয়ালা ফোন ভালো ইউজার এক্সপেরিএন্স ও দিতে পারবে। আপনি সবসময় আপনার ব্যাবহারের উপর ভিত্তি করে তবেই কোন ফোনকে বিচার করুন। আশা করি আজকের বিষয়টি পরিষ্কার ভাবে উপস্থাপন করতে সক্ষম হয়েছি, এবং আপনারা মূল বিষয়টি বুঝে গেছেন। আপনার যেকোনো প্রশ্নের জন্য অবশ্যই কমেন্ট করুন। এবং পোস্ট টি ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই শেয়ার করুন।

প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।

18 Comments

  1. Anirban Dutta Reply

    Bhai apni khub bhalo post koren. Ami apnar post gulo na porle mon e santi paina. Asha kori Kitkat to Lollipop custom ROM diye korar post ta pabo. Thanks.

  2. foot cushions Reply

    Hi, i think that i saw you visited my website so i came to �return the favor�.I am attempting to in finding issues to enhance
    my site!I guess its ok to make use of a few of your ideas!!

  3. শাহনেওয়াজ শুভ Reply

    লেখাটা দারুণ ছিল।ধারণাটা স্পষ্ট হল।ধন্যবাদ।

  4. Salam Ratul Reply

    মজায় মজায় হাস্যরসের মধ্য দিয়ে আর্টিকেলটি উপস্থাপনা আমার খুব ভালো লেগেছে। উপকারী পোস্ট ছিল। ধন্যবাদ ভাইয়া।

  5. Mizan Reply

    তাহমিদ ভাই। সত্যিই খুব ভালো লিখেছেন।ois & eis সম্পর্কে বিস্তারিত একটা পোস্ট করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *