ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস : ফেসবুকের তৈরি নতুন ভিডিও প্ল্যাটফর্ম!

ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস

আজকের দিনে ফেসবুক ব্যবহার করেনা বা ফেসবুক চেনেনা এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া প্রায় অসম্ভব। আমরা সবাই প্রতিদিন ফেসবুক নামক এই সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহার করি বন্ধুদের সাথে অনলাইনে কানেক্টেড থাকার জন্য বা প্রিয়জনদের সাথে চ্যাট করার জন্য। ফেসবুকের এই দুটি সুবিধার কথা বললে ফেসবুককে অনেকটা অপমানই করা হয়। কারন, ফেসবুকে এসব সাধারণ কাজ ছাড়াও আরও অনেক ব্যবহার রয়েছে যেগুলো আমাদের কারোরই অজানা নয়। ফেসবুক বর্তমানে একজন মানুষের সম্পূর্ণ অনলাইন অস্তিত্বের মত। এটি বর্তমানে সবথেকে জনপ্রিয়, সবথেকে বড় এবং সবথেকে বেশি ব্যবহার করা সোশ্যাল নেটওয়ার্ক। আর এবার ফেসবুক রিলিজ করতে চলেছে তাদের একটি সম্পূর্ণ নিউ ফিচার, যার নাম, ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস (Facebook For Creators)। নাম শুনেই বুঝতে পারছেন  যে এটি মূলত কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের ফোকাস করে তৈরি করা হয়েছে। যাইহোক, আমাদের আজকের আলোচনার বিষয় হচ্ছে ফেসবুকের এই নিউ ফিচারটি।

ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস

ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস কি?

ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস হচ্ছে ফেসবুকে কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের তৈরি একটি কমিউনিটি। এটি প্রায় অনেকটাই ইউটিউব কমিউনিটির মত যেখানে আপনি যদি একজন কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হন, তবে আপনার তৈরি করা কন্টেন্ট বা আপনার তৈরি করা ভিডিও হাজার হাজার মানুষ দেখবে (বিশেষভাবে-আপনার সাবসক্রাইবাররা) এবং আপনার একটি ফ্যান বেস বা একটি কমিউনিটি তৈরি হবে। ফেসবুকও এই ক্ষেত্রে ঠিক এমনটাই করতে চাচ্ছে। ফেসবুকের ভাষায়, আপনি যদি একজন কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হন এবং কোয়ালিটি ভিডিও কন্টেন্ট তৈরি করতে পারেন তবে আপনি সেটি ফেসবুক ক্রিয়েটর হিসেবে পোস্ট করবেন এবং ফেসবুক মূলত আপনার ভিডিওটিকে মনেটাইজ করবে। মনেটাইজ মানে কি সেটা নিশ্চই জানেন। যদি না জানেন, তাহলে বলি, ফেসবুক আপনার ভিডিওতে এডস শো করবে এবং সেই এডস এর ইম্প্রেশন বা ক্লিকস কাউন্ট অনুযায়ী আপনাকে প্রোফিট দেবে, ঠিক যেমনটা ইউটিউব করে থাকে। তাহলে ইউটিউব এবং ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস এর মধ্যে পার্থক্যটি কি হল? এখনও পর্যন্ত যতটুকু জানা গিয়েছে, তাতে ইউটিউব এবং এটির মধ্যে প্রধান এবং সবথেকে বড় পার্থক্য হচ্ছে ইউটিউব ভিডিওগুলো থাকে গুগলের তত্ত্বাবধায়নে। আর ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস এর ভিডিওগুলো থাকবে ফেসবুক সার্ভারের তত্ত্বাবধায়নে। এছাড়া ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস এর কিছু সত্যিকারের অ্যাডভান্টেজও রয়েছে যেগুলো এটিকে অনেক ক্ষেত্রে ইউটিউবের থেকে এগিয়ে রাখবে। সেগুলো নিয়ে নিচে আলোচনা করবো।

ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস

কিভাবে জয়েন করবেন?

ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস ফিচারটি এখনও পুরোপুরিভাবে ফেসবুক চালু করেনি। আশা করা যায় ২০১৮ এর শুরুর দিকে এই ফিচারটি সম্পূর্ণভাবে চালু করা হবে। তবে আপনি চাইলে আজই এবং এক্ষুনি ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরসে জয়েন করার জন্য প্রি-রেজিস্ট্রেশন করে রাখতে পারবেন যাতে এটি লঞ্চ করার সাথে সাথেই আপনি এটি ব্যবহার করা শুরু করে দিতে পারেন। ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস প্রোগ্রামে জয়েন করতে হলে আপনার জাস্ট দুটি জিনিস আগে থেকে থাকতে হবে।

১। একটি ফেসবুক আইডি

২। একটি ফেসবুক পেজ

আপনার যদি উপরের দুটি আগে থেকেই থাকে, তাহলে আপনি ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরসে জয়েন করার জন্য ১০০% এলিজিবল হবেন। ইউটিউবের সাথে যদি তুলনা করতে চান, তবে ভেবে নিতে পারেন যে এক্ষেত্রে আপনার ফেসবুক পেজটি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের মত কাজ করবে। আপনি আপনার ফেসবুক পেজে ভিডিও আপলোড করবেন, মনেটাইজ করবেন, অ্যাডস প্লেস করবেন এবং প্রায় আরো প্রায় অধিকাংশ মনেটাইজেশন ফিচারই অ্যাক্সেস করতে পারবেন।  এরপর যখন আপনার ভিডিওটি আপনার পেজের সকল অডিয়েন্সের কাছে পৌঁছে যাবে এবং তারা আপনার ভিডিও দেখবে, তখন আপনি ঠিক ইউটিউবের মতই অ্যাডস ইম্প্রেশন বা অ্যাড ক্লিকস কাউন্টস থেকে ডলার ইনকাম করতে পারবেন। এক্ষেত্রে সবথেকে বেশি উপকৃত যারা হবে তারা হচ্ছে, যাদের আগে থেকেই ফেসবুকে অনেক বড় একটি ফ্যান বেস বা অনেক বড় একটি অডিয়েন্স আছে। আপনার যদি আগে থেকেই ফেসবুকে পেজে ভাল অ্যাসোসিয়েশন এবং একটিভ অডিয়েন্স থাকে তবে আপনার জন্য ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস এর মাধ্যমে ভাল পরিমাণ ইনকাম (প্রায় ইউটিউবের সমান) করা তথা ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস প্রোগ্রাম ব্যবহার করে সাকসেসফুল হওয়া বেশি সহজ হবে।

ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস

তবে এক্ষেত্রে একটি বিষয় মনে রাখতে হবে। তা হচ্ছে ইউটিউব এবং ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস এই দুইটি সম্পূর্ণ আলাদা দুটি কমিউনিটি। এই দুটি কমিউনিটির শর্তাবলি বা টার্মস অ্যান্ড কন্ডিশনসও আলাদা। এছাড়া এই কমিউনিটিদুটির কপিরাইট সিস্টেমও আলাদা। আপনি চাইলেই আপনার ইউটিউবে আপলোড করা একই ভিডিও ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরসে আপলোড এবং মনেটাইজ করতে পারবেন না। কারন, আপনাকে ফেসবুকের কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হতে হলে আপনার কন্টেন্টগুলো হতে হবে ইউনিক এবং কোয়ালিটিফুল। তাই আপনি কোন কপিরাইটেড ক্লীপ আপলোড করেই এখান থেকে ইনকাম করতে পারবেন না। এই কমিউনিটিতে ভিডিও আপলোড করতে হলে আপনার সব ধরনের কন্টেন্ট হতে হবে সম্পূর্ণ আপনার নিজের তৈরি এবং সেগুলো সর্বপ্রথম ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস প্রোগ্রামেই পাবলিশড হতে হবে। যদিও ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস ফচারটি এখনও চালু করা হয়নি, তবে যারা ইন্টারেস্টেড, তাদের আগে থেকে এসব বিষয় জেনে রাখা ভালো।

ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরসে প্রি-রেজিস্ট্রেশন করে রাখতে চাইলে এই লিংকে চলে যান। এখানে গিয়ে আপনার ফেসবুক আইডিতে লগিন করে বাকি সব ইনফরমেশন দিয়ে ফর্মটি পূরণ করলেই আপনার রেজিস্ট্রেশন কমপ্লিট হয়ে যাবে। বাকি অংশ করতে হবে এই ফিচারটি সম্পূর্ণভাবে রিলিজ হওয়ার পরে।


আজকের মত এখানেই শেষ করছি। আশা করি আজকের লেখাটি আপনাদের ভালো লেগেছে। আর্টিকেল সম্পর্কে কোন ধরনের প্রশ্ন বা মতামত থাকলে অবশ্যই কমেন্ট সেকশনে জানাবেন। ভালো থাকবেন।


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

ইমেজ ক্রেডিটঃ By Chinnapong Via Shutterstock | Facebook.Com

সিয়াম
অনেক ছোটবেলা থেকেই প্রযুক্তির প্রতি আকর্ষণ ছিলো এবং হয়তো সেই আকর্ষণটা আরো সাধারন দশ জনের থেকে একটু বেশি। নোকিয়ার বাটন ফোন থেকে শুরু করে ইনফিনিটি ডিসপ্লের বেজেললেস স্মার্টফোন, সবই আমার প্রিয়। জীবনে টেকনোলজি আমাকে যতটা ইম্প্রেস করেছে ততোটা অন্যকিছু কখনো করতে পারেনি। আর এই প্রযুক্তির প্রতি আগ্রহ থেকেই লেখালেখির শুরু.....