বর্তমান তারিখ:22 July, 2019

নতুন পিসি কিনেছেন? সবার আগে এই পাঁচটি কাজ সম্পূর্ণ করুণ!

নতুন পিসি কিনেছেন? সবার আগে এই পাঁচটি কাজ সম্পূর্ণ করুণ!

আপনার নতুন কম্পিউটারের জন্য আপনাকে অভিনন্দন জানায়! হ্যাঁ, আপনি এখন এমন এক মেশিনের মালিক যেটার মাধ্যমে ভার্চুয়ালি প্রায় যেকোনো কাজ করা সম্ভব! আপনি কোন কম্পিউটার কিনেছেন সেটা কোন ব্যাপার না, হতে পারে সেটা মাইক্রোসফট সার্ফেস, অথবা কোন কাস্টম বিল্ড পিসি, অথবা যেকোনো উইন্ডোজ ১০ ল্যাপটপ। নতুন কম্পিউটারটি কেমন হলো, কেমন কাজ করবে, কী-বোর্ডের কী গুলো কেমন —এসব নিয়ে চিন্তা করা বাদ দিয়ে এই আর্টিকেলে বর্ণিত পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ আগে সম্পূর্ণ করে নিন, তারপরে যা ইচ্ছা তা চিন্তা করুণ বসে থেকে…

আপনার অ্যান্টিভাইরাস আপডেট করে নিন

আপনি একদম চকচকে কম্পিউটার শপ থেকে কিনে নিয়ে আসলেন, কিন্তু জানেন কি? —আপনার কম্পিউটার শপ থেকেই ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হতে পারে। হ্যাঁ, বর্তমানে কম্পিউটার ভাইরাসের অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করানো হয়। মানে হ্যাকারের হয়ে অনেক মানুষ টাকার জন্য আপনার কম্পিউটার আক্রান্ত করানোর পেছনে লেগে থাকে। তো আপনি নিশ্চয় চাইবেন না, শপ থেকেই রোগাক্রান্ত কম্পিউটার বাসায় নিয়ে আসতে!

অ্যান্টিভাইরাস আপডেট

যাই হোক, যদি আপনি কম্পিউটারের সাথে একটি ভালো অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার কিনে থাকেন, সর্বপ্রথম সেটাকে আপনার সিস্টেমে ইন্সটল করে নিন। তারপরে অ্যান্টিভাইরাস ডাটাবেজ আপডেট করতে লাগিয়ে দিন। যদি আপনি আলাদা অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার নাও কিনে থাকেন, আপনার উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমের সাথে বিল্ডইন ভাবে উইন্ডোজ ডিফেন্ডার রয়েছে, জাস্ট সেটাকে সবার আগে আপডেট করে নিন। অ্যান্টিভাইরাস প্রোগ্রাম আপডেট করা হয়ে গেলে সম্পূর্ণ সিস্টেম স্ক্যান দিয়ে দিন!

উইন্ডোজ আপডেট ইন্সটল করুণ

আমি এটা বিশেষ করে লক্ষ্য করেছি, প্রায় অনেকেই উইন্ডোজ আপডেট ইন্সটল করা তো দুরের কথা উইন্ডোজ আপডেট ডিসেবল করে রাখে। ব্যাট উইন্ডোজ আপডেট ডিসেবল করে আপনি কম্পিউটার’কে বিশাল সিকিউরিটি হুমকির মুখে ফেলে দেন। হ্যাঁ, আপনি হয়তো সামান্য কিছু ইন্টারনেট ডাটা বাঁচানোর জন্য এমনটা করে থাকেন, ব্যাট এতে লাভের চেয়ে ক্ষতির পরিমানই বেশি। রিসেন্ট র‍্যানসমওয়্যার অ্যাটাক নিশ্চয় ভুলে যান নি, যেটা শুধু মাত্র এতোটা সফল হয়েছিলো, কেনোনা মানুষেরা উইন্ডোজ আপডেট ইন্সটল করা নিয়ে উদাসীন ছিল।

উইন্ডোজ আপডেট ইন্সটল

দেখুন, উইন্ডোজ আপডেট মানেই কিন্তু সবসময়ই নতুন ফিচার কম্পিউটারে যুক্ত হবে তা কিন্তু নয়। অনেক সময় সিকিউরিটি প্যাচ এবং বাগ ফিক্স করার জন্যও আপডেট প্রদান করা হয়। তাই উইন্ডোজ সর্বদা আপডেটেড রাখা সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ টাস্ক। শুধু নতুন কম্পিউটার কেনার পরেই নয়, এই টাস্ক আপনাকে সারাজীবন চালিয়ে যেতে হবে। সৌভাগ্যবসত উইন্ডোজ স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপডেট হতে পারে, তাই কখনোই উইন্ডোজ আপডেট বন্ধ করে দিবেন না। একটি কথা পরিষ্কার করে জানিয়ে রাখি, উইন্ডোজ আপডেট যদি নিয়মিত না ইন্সটল করেন, অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার কখনোই একাই সকল সিকিউরিটি দিতে সক্ষম নয়।

ফাইল রিকভারি প্রোগ্রাম ইন্সটল করুণ

এই পর্যায়ে এসে আপনি নিশ্চয় আশ্চর্য হলেন, কেন ফাইল রিকভারি প্রোগ্রাম কেন ইন্সটল করতে হবে? হ্যাঁ, আপনি নতুন কম্পিউটার কিনেছেন সাথে আপনি যদি একজন নতুন কম্পিউটার ইউজারও হোন তাহলে ফাইল রিকভারি সফটওয়্যার আপনার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কেনোনা আপনি ভুল করে যেকোনো ফাইল ডিলিট করে ফেলতে পারেন। আর ডিলিট করা ফাইল ঠিক তখনোই ১০০% রিকভারি করা সম্ভব হয়, ঐ স্থানে যদি আর কোন ফাইল ওভাররাইট না হয়।

ফাইল রিকভারি সফটওয়্যার আগে থেকেই সিস্টেমে ইন্সটল থাকলে, ওভাররাইট ঝুঁকি কমে যায়। মানে আপনি কোন ফাইল ডিলিট করার পরে যখন ফাইল রিকভারি সফটওয়্যার ইন্সটল করবেন, হতে পারে ঐ সফটওয়্যারটি ইন্সটল হওয়ার সময়ই অনেক ফাইল ওভাররাইট করে দেবে! তো বুঝতে পারলেন এর গুরুত্ব! অনেক ফ্রী ফাইল রিকভারি প্রোগ্রাম রয়েছে যেমন- RecuvaPuran File RecoveryDisk Drill, ইত্যাদি।

ওএস ক্লোন করে রাখুন

তো নতুন কম্পিউটারের সবকিছু আপডেট করে নিয়েছেন, ব্যাস এবার কম্পিউটার ব্যবহারের জন্য রেডি তাই না? না… এখনো একটু কাজ আছে। আপনার কম্পিউটার এখন বেস্ট অবস্থায় আছে, একেবারে নতুন ওএস, ফাস্ট, জাঙ্ক ফ্রী, ভাইরাস ফ্রী! এরপরে আপনার কম্পিউটারকে নানান সমস্যার সাথে মুকাবিলা করতে হতে পারে।

হার্ড ডিস্ক ড্রাইভ

আমরা যেমন সুখের মুহূর্তের ফটো তুলতে পছন্দ করি, তো কেন কম্পিউটারের সাথে এমনটা নয়? হ্যাঁ,আপনাকে এখন ওএস ক্লোন করে রাখতে হবে। এর মানে হচ্ছে একটি আলাদা এক্সটারনাল হার্ড ড্রাইভে আপনার বর্তমান হার্ড ড্রাইভের ওএস হুবহু কপি করে রাখতে হবে। যখন ভবিষ্যতে কোন সমস্যা দেখা দেবে, আপনি কোন ঝামেলা ছাড়ায় বেস্ট উইন্ডোজ ভার্সন রিস্টোর করতে পারবেন।

অকাজের প্রোগ্রাম গুলোকে অ্যানইন্সটল করে নিন

হতে পারে আপনার কম্পিউটারে অনেক সফটওয়্যার ইন্সটল করা রয়েছে। যদিও সফটওয়্যার ইন্সটল করা থাকলে সেটা কম্পিউটারের জন্য ক্ষতির কিছু নয়, তবে সফটওয়্যার গুলো যদি অপ্রয়োজনীয় হয়, সেটা অনেকখানি হার্ড ড্রাইভ স্পেস খেয়ে রেখে দেবে। আর গুলোকে অ্যানইন্সটল করার মাধ্যমে আপনি হার্ড ড্রাইভ স্পেস ফাঁকা করতে পারবেন, যেখানে আরো প্রয়োজনীয় ফাইল স্টোর করা সম্ভব হবে।

তাছাড়া অনেক প্রোগ্রাম প্রসেসর, র‍্যাম থেকেও রিসোর্স কিল করে, তাই এটা সবসময়ই বুদ্ধিমানের মতো কাজ, জাস্ট অকাজের সফটওয়্যার গুলোকে কম্পিউটার থেকে রিমুভ করে দেওয়া। কন্ট্রোল প্যানেলে চলে যান, ইন্সটল থাকা সফটওয়্যার গুলোর উপর নজর বুলিয়ে দেখুন, যে সফটওয়্যার গুলো কাজের নয় জাস্ট অ্যানইন্সটল করে দিন। আপনি তৃতীয়পক্ষ অ্যানইন্সটলার প্রোগ্রাম ব্যবহার করেও সফটওয়্যার রিমুভ করতে পারেন।


আপনার কম্পিউটার অবশ্যই অসাধারণ এক মেশিন, যেটা অবশ্যই আপনাকে অসাধারণ এক্সপেরিয়েন্স প্রদান করবে। তবে উপরের বর্ণিত ধাপ গুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে আপনার বর্তমান এবং ভবিষ্যতের অনেকটা ঝামেলা বেঁচে যাবে। বিশ্বাস করুণ, কম্পিউটারের কিছু হলে সেটা না খেয়ে থাকার চেয়েও কষ্টসাধ্য ব্যাপার হতে পারে, আর এখানে আবার কথা বলা হচ্ছে নতুন কম্পিউটার সম্পর্কে! যাই হোক, আপনার যেকোনো মতামত বা প্রশ্ন আমাকে নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিতে পারেন।


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

ইমেজ ক্রেডিট; By NakoPhotography Via Shutterstock

প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।

5 Comments

  1. সুমন কাইসার Reply

    পোস্ট টি খুব ভালো লাগলো। নতুন কম্পিউটার কেনার পরে অবশ্যই এগুলো আগে করবো। ধন্যবাদ ভাই।

    1. তাহমিদ বোরহান Post author Reply

      আমি তো ক্লিন করার কথা বলি নি, ক্লোন করার কথা বলেছি! ওএস ক্লোন করে রাখলে, কোন সমস্যা হওয়া মাত্র আবার ফ্রেস ওএসে ফেরত আসতে পাড়বেন। ব্যাট এখানে আপনার সকল ফ্রেস ইন্সটল করা সফটওয়্যার এবং ফ্রেশ কাস্টম সেটিং থাকবে, তাই নতুন করে উইন্ডোজ দেওয়া আর এর মধ্যে পার্থক্য রয়েছে!

  2. Salam Ratul Reply

    অনেক সুন্দর এবং উপকারী পোষ্ট ছিলো। ধন্যবাদ ভাইয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *