আপনার ইউএসবি ড্রাইভ কে কোন ফাইল সিস্টেমে ফরম্যাট করবেন?

ইউএসবি ড্রাইভ কে কোন ফাইল সিস্টেমে ফরম্যাট করবেন?

আজকের দিনে ইউএসবি ফ্ল্যাশ ড্রাইভ, ইউএসবি ড্রাইভ,  পেনড্রাইভ—ব্যবহার করেন না এমন কাউকে খুঁজে পাওয়াই দুর্লভ, যদি আপনি এখনো গুহাতে বাস না করে থাকেন। অফিসের ফাইল, মুভি, মুউজিক, বন্ধুকে গেম শেয়ার করার বেস্ট অফলাইন মেথড হচ্ছে এই ইউএসবি ড্রাইভ। কিন্তু সমস্যার ব্যাপার হচ্ছে, আমাদের কাছে এবং চারপাশে রয়েছে আলাদা আলাদা ধরণের ডিভাইজ যেগুলোর ফাইল সিস্টেমও আলাদা আলাদা। আপনার বন্ধুর ম্যাক কম্পিউটারে আপনার পেনড্রাইভ ফরম্যাট করে সেখানে কোন ফাইল লোড করে নিয়ে আসলেন, কিন্তু সেই পেনড্রাইভকে আপনার উইন্ডোজ কম্পিউটার চিনতেই পারবে না—কেনোনা ম্যাক এবং উইন্ডোজের ফাইল সিস্টেম আলাদা হয়ে থাকে। এই আর্টিকেল থেকে আমরা এই সমস্যাটিরই সমাধান খুঁজতে চলেছি, তো চলুন শুরু করা যাক…

ফাইল সিস্টেম

কোন হার্ড ড্রাইভে বা যেকোনো স্টোরেজ মিডিয়াতে ফাইল রীড এবং রাইট করার জন্য ফাইল সিস্টেমের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। আপনি আপনার কম্পিউটার হার্ড ড্রাইভে থাকা কোন ফাইলকে হয়তো আইকন আকারে দেখতে পান, কিন্তু কম্পিউটার সেটাকে কোন বিশেষ ফাইল বা আইকন হিসেবে দেখতে পায়না। কম্পিউটারের কাছে যেকোনো ফাইলই কেবল জিরো আর ওয়ানের প্যাটার্ন মাত্র। এখন এই কম্পিউটার ফাইল সিস্টেমই হলো সেই সিস্টেম যেটা কম্পিউটারকে বলে দেয়, সেভ করে রাখা ফাইলটি কোন ফাইল বা কম্পিউটার যখন কোন ফাইল সেভ করে সেটা কোন প্যাটার্নে সেভ করবে। যদি ফাইল সিস্টেমটি অপারেটিং সিস্টেমের কাছে পরিচিত না হয়, সে কখনোই সেই ফাইলটি পড়তে পারবে না, কেনোনা সে জানেই না সেটা কোন প্যাটার্নে সেভ করা রয়েছে (সবই জিরো আর ওয়ান, তাই না?)।

কম্পিউটার ফাইল সিস্টেম—এই আর্টিকেল থেকে আরো বিস্তারিত করে বিষয়টি জানতে পারেন। যাই হোক, আজকের সবচাইতে কমন ফাইল সিস্টেম গুলো হচ্ছে ফ্যাট৩২, এক্সফ্যাট, এবং এনটিএফএস যেগুলো উইন্ডোজ কম্পিউটারে ব্যবহৃত হয়, এইচএফএস+ ম্যাক কম্পিউটারে এবং ইএক্সটি২, ৩, ৪ ব্যবহৃত হয় লিনাক্স কম্পিউটারে। আর এখানেই তো আসল কনফিউশন—কেনোনা আপনি জানেন না কোন অপারেটিং সিস্টেম কোন ফাইল সিস্টেম গুলোকে সমর্থন করে বা করে না। আর আপনার ইউএসবি ড্রাইভকে কোন ফাইল সিস্টেমে ফরম্যাট করবেন?

ফাইল সিস্টেম কনফিউশন

আগেই বলেছি, বিভিন্ন কম্পিউটার ফাইল সিস্টেম বিভিন্নভাবে রিপ্রেজেন্ট করে যে, ডিস্কে ডাটাটি কিভাবে সেভড থাকবে। ফাইল সিস্টেমই অপারেটিং সিস্টেমকে বাইনারি ডাটা রীড রাইট করতে সাহায্য করে। অপারেটিং সিস্টেম কখনোই ফাইল সিস্টেমের সাহায্য ছাড়া ডাটা রীড করতে পারে না। এজন্য আপনার ইউএসবি ড্রাইভটি যদি ফরম্যাট না করা থাকে, সেক্ষেত্রে কম্পিউটার সেখানে কোন ডাটা রাইট বা রীড করতে পারে না। আপনার অবশ্যই আপনার ফ্ল্যাশ ড্রাইভটিকে ফরম্যাট করতে হয়।

এখন সমস্যা হচ্ছে, বিভিন্ন বিজনেসে বা বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন টাইপের ডিভাইজ এবং বিভিন্ন অপারেটিং সিস্টেমের কম্পিউটার থাকে। ধরুন আপনি আপনার উইন্ডোজ কম্পিউটার থেকে কোন অফিশিয়াল ফাইল লোড করে আপনার অফিসের পার্টনার শাখায় গেলেন, কিন্তু সেখানে তারা উইন্ডোজ কম্পিউটার ব্যবহার করে না, তারা ম্যাক ব্যবহার করে। ম্যাক উইন্ডোজ কম্পিউটারের এনটিএফএস ফাইল সিস্টেমকে রীড করতে পারে, কিন্তু সেখানে কোন ডাটা রাইট করতে পারবে না।মানে আপনি সেখান থেকে কোন ফাইল আপনার উইন্ডোজ কম্পিউটারের জন্য নিয়ে আসতে চাইলে সেটা পারবেন না। আবার যদি সেখানে আপনার পেনড্রাইভকে এইচএফএস+ এ ফরম্যাট করেন, আপনার উইন্ডোজ কম্পিউটার সেটা পড়তেই পারবে না। এইচএফএস+কে উইন্ডোজ কম্পিউটার সমর্থনই করে না।

আবার ধরুন, আপনার বাড়িতেই হয়তো বিভিন্ন ধরণের ডিভাইজ রয়েছে। আপনার পেন ড্রাইভকে এনটিএফএস এ ফরম্যাট করে সেখানে কোন মিউজিক লোড করলেন এবং আপনার কারের ইউএসবি প্লেয়ারে সেটাকে প্লে করতে চাচ্ছেন, তো আপনার কারের প্লেয়ার সেটাকে পড়তেই পারবে না, ইউএসবি প্লেয়ার গুলো এনটিএফএস সমর্থন করে না।

তাহলে কোন ফাইল সিস্টেমে ফরম্যাট করবো?

উপরের আলোচনা থেকে অবশ্যই বুঝতে পারছেন, এটা কতোটা ঝামেলার ব্যাপার হতে পারে। আপনি হয়তো কোথাও কাজের ফাইল গুলোকে পোর্টেবল হার্ড ড্রাইভে নিয়ে যাচ্ছেন, কিন্তু আপনি হয়তো জানেন না সেখানে কোন অপারেটিং সিস্টেমের কম্পিউটার থেকে আপনার ফাইল গুলোকে অ্যাক্সেস করা হবে, তো এখানে ভুল ফাইল সিস্টেমে আপনার ইউএসবি ড্রাইভ ফরম্যাট করা থাকলে, ঐ ফাইল গুলো রীড করায় পসিবল হবেনা হয়তো। এখন একটি ইউনিভার্সাল ফাইল সিস্টেম রয়েছে  “ফ্যাট৩২” যেটা অনেক পুরাতন একটি ফাইল সিস্টেম এবং উইন্ডোজে ডিফল্টভাবে এনটিএফএস সমর্থন করার আগে এটিই ডিফল্ট ফাইল সিস্টেম ছিল। ফ্যাট৩২ কে প্রায় যেকোনো ডিভাইজ এবং যেকোনো অপারেটিং সিস্টেম চিনতে এবং রীড রাইট করতে পারে।

এখন আপনি নিশ্চয় বলবেন, তাহলে এতো টেনশন কিসের ভাই? ফ্যাট৩২ দিয়ে ইউএসবি ড্রাইভ ফরম্যাট করলেই তো হয়। এখানেও কিছু সমস্যা রয়েছে ভাই! প্রথমেই বলেছি, এটি অনেক পুরাতন একটি ফাইল সিস্টেম, আর এর কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে। প্রথমত, আপনার ড্রাইভটির সাইজ যদি ৮ টেরাবাইটের উপর হয়, তবে সেই ড্রাইভকে ফ্যাট৩২ ফাইল সিস্টেমে ফরম্যাট করতে পারবেন না। এখন, এটি একটি সীমাবদ্ধতা হলেও, পোর্টেবল ড্রাইভের ক্ষেত্রে ৮ টেরাবাইট অনেক বড় সাইজ। কিন্তু এর আরেকটি সীমাবদ্ধতা রয়েছে, যেটা সত্যি সত্যি সমস্যায় ব্যাপার তৈরি করতে পারে। ফ্যাট৩২ কেবল ৪ জিবি সাইজ পর্যন্ত সিঙ্গেল ফাইল ধারণ করতে পারে। মানে আপনার কাছে যদি কোন উইন্ডোজ আইএসও ফাইল থাকে, যেটা ৪জিবির উপর সাইজ হয়, সেটাকে আপনি ফ্যাট৩২ ফাইল সিস্টেমে ফরম্যাট করা পেনড্রাইভে লোড করতে পারবেন না। আজকের দিনে ক্যামেরার র‍্যো ফুটেজ অনায়াসে ৪ জিবির উপর সাইজ হতে পারে আবার আন-কম্প্রেসড ভিডিও ফাইলের সাইজ ৪ জিবির উপর হয়, যেটা বিশাল সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে (জেনে নিন, কিভাবে ভিডিও কোয়ালিটি নষ্ট না করে সাইজ কমাবেন!)।

সিদ্ধান্ত

আপনি হয়তো এতদিন ভাবছিলেন, মডার্ন অপারেটিং সিস্টেম গুলো একে অপরের ফাইল সিস্টেমকে সমর্থন করবে, কিন্তু ব্যস্তবে সেটা একেবারেই নয়। তাই আপনাকে অবশ্যই সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহন করতে হবে, চলুন আপনার জন্য সম্পূর্ণ বিষয়টি অনেক সহজ করা যাক…

আপনার ক্ষেত্রে যদি এমন হয়, আপনি যেখানে ফাইল বহন করে নিয়ে যাচ্ছেন, আপনি জানেন না সেখানে কোন কম্পিউটার বা কোন ডিভাইজ থেকে অ্যাক্সেস করা হবে, সেক্ষেত্রে ফ্যাট৩২ ফাইল সিস্টেম দ্বারা ইউএসবি ড্রাইভ ফরম্যাট করা উত্তম হবে। যদিও আপনি সেখানে ৪ জিবির উপর সিঙ্গেল ফাইল বহন করতে পারবেন না। তবে ফাইলটি কমপ্রেস করেও ফাইল সাইজ কমাতে পারেন।

যদি এরকম হয়, আপনার বাড়িতে, অফিসে, বন্ধুর কাছে, সবার কাছে শুধু উইন্ডোজ কম্পিউটারই রয়েছে, তবে আপনার ইউএসবি ড্রাইভকে এনটিএফএস ফাইল সিস্টেমে ফরম্যাট করা ঠিক হবে। এনটিএফএস ফাইল সিস্টেমের কোন সীমাবদ্ধতা নেই, এটি এক্সবাইট পর্যন্ত ড্রাইভ সমর্থন করে এবং সিঙ্গেল ফাইলের কোন লিমিট নেই। পাশাপাশি যদি আপনার সব ক্ষেত্রে শুধু ম্যাক কম্পিউটার ব্যবহার করেন, তো ম্যাক এর ডিফল্ট ফাইল সিস্টেম এইচএফএস+ দ্বারা ফরম্যাট করা ঠিক হবে, এবং লিনাক্সের ক্ষেত্রে অবশ্যই ইএক্সটি৪ ফরম্যাট করা বেস্ট হবে। যদিও লিনাক্স ফ্যাট৩২, এনটিএফএস’কেও আরামে সমর্থন করতে পারে।



WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

আপনি যদি একসাথে সকল ডিভাইজ সমর্থন এবং বড় সিঙ্গেল ফাইল ধারণ করার সুবিধা পেতে চান, সেক্ষেত্রে এক্সফ্যাট ফাইল সিস্টেমও ফরম্যাট করতে পারেন। কিন্তু এক্সফ্যাট অনেক আলাদা ডিভাইজ গুলো সমর্থন করে না যতোটা ফ্যাট৩২ সমর্থন করে। আর আমার মনে হয়না, আপনাকে কোন ক্ষেত্রে কোন ফাইল সিস্টেম দ্বারা ফরম্যাট করা প্রয়োজনীয় সেটা নিয়ে আর কোন সন্দেহ রয়েছে। যদি এখনো কোন প্রশ্ন থাকে, তো অবশ্যই আমাকে নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

তাহমিদ বোরহান
প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।