বেগুন ও পিচ ফলের ইমোজি ফেসবুক ও ইন্সটাগ্রাম থেকে ব্যান করা হয়েছে!

সোশ্যাল মিডিয়া গুলো হঠাৎ করে সবজি আর ফলের ইমোজি ব্যান করার পেছনে কেন পরলো? আসলে সবজি বা ফলের কোন দোষ নেই, দোষ হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া ইউজারদের, এই দুইটি ইমোজি “সেক্সুয়াল” প্রতীক হিসেবে ইউজ হয় সোশ্যাল মিডিয়াতে। জুলাই মাসের দিকে ফেসবুক ও ইন্সটাগ্রামের কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ডে পার্থক্য আনা হয়েছে, এই পার্থক্য অনুসারে যেকোনো সেক্সুয়াল এক্সপ্রেশন দেখায় এমন ইমোজি ফেসবুক ও ইন্সটাগ্রাম থেকে ব্যান করা হবে। এই ইমোজি গুলোকে “যৌন আবেদন মূলক” সেকশনে অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

এই ইমোজি গুলোতে তো সরাসরি কোন খারাপ কিছু নেই, তবে এতে লুকায়িত ম্যাসেজ রয়েছে, যেগুলো মানুষের গপনাঙ্গের ইঙ্গিত দেয়! কোন ইউজার যদি সরাসরি এই ইমোজি গুলো ইউজ করে পোস্ট তৈরি করে বা কোন ফটোর বিশেষ অংশে এই ইমোজি গুলো ইউজ করে, সোশ্যাল মিডিয়া দুইটি থেকে সেই পোস্ট বা ইমেজ গুলো ডিলিট করা হবে সাথে ইউজার অ্যাকাউন্ট ও ব্যান হয়ে যেতে পারে।

আগে অনেকেই নোংরা পিকচার আপলোড করার পরে সেই পিকচারের গোপন অঙ্গ এই ইমোজি গুলো দিয়ে ঢেকে দিতো। এটা ফেসবুকের নতুন পলিসি অনুসারে সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ, আর রুলসটা ইন্সটাগ্রামের জন্য ও সেইম! এই ব্যাপার নিয়ে আপনি যদি ক্ষুব্ধ হয়ে থাকেন, হ্যাঁ, আসলেই এটা হয়তো বাচ্চামু পদক্ষেপ, কোন ফলের ইমোজি আর সবজিকে ব্যান করা। কিন্তু এটা সোশ্যাল মিডিয়াকে সুস্থ রাখার জন্য বিশেষ পদক্ষেপ! আপনি এই সম্পর্কে কি মনে করেন, আমাদের নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন!



WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

Image: Nypost

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *