ভিপিএন ইউজ করে এই ৫টি জিনিষ লুকিয়ে ফেলুন সহজেই!

আপনার কল্পনার চেয়েও বেশি কিছু করে ভিপিএন!

ভিপিএন ইউজ করে এই ৫টি জিনিষ লুকিয়ে ফেলুন সহজেই!

ইন্টারনেট ব্রাউজার করার সময় নিজেকে লুকিয়ে রাখতে ও ব্রাউজিং ডাটা প্রাইভেট রাখতে অনেকেই এখন ভিপিএন (ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক) ইউজ করেন। অনলাইনে নিজের প্রাইভেসি ঠিক করার জন্য ভিপিএন এক অভিনব পদ্ধতি, জাস্ট এক ক্লিক করে সহজেই নিজেকে ভার্চুয়ালভাবে গায়েব করা যেতে পারে। ভিপিএন ইউজ করে অনেক কিছুই লুকিয়ে রাখা যায়, আর ঠিক কি কি লুকিয়ে রাখতে পারবেন এই লিস্ট নিয়েই সাজিয়েছি এই আর্টিকেলটি!

তো চলুন, জেনে নেওয়া যাক এমন ৫টি জিনিষের কথা, যেগুলোকে ভিপিএন ইউজ করে লুকিয়ে রাখা সম্ভব!


ভিপিএন আপনার আসল আইপি অ্যাড্রেস লুকিয়ে রাখে

আপনার কম্পিউটারের আইপি অ্যাড্রেস ইন্টারনেটের কাছে একটি ইউনিক নাম্বার। কেউ আপনার ফোন নাম্বার পেয়ে গেলে যেমন আপনাকে সহজেই পেয়ে যাবে, ঠিক আপনার আসল আইপি অ্যাড্রেস থেকেও আপনাকে পেয়ে যাওয়া অনেক সহজ ব্যাপার। আপনি অনলাইনে যাই করুন না কেন, সবকিছুই কিন্তু আপনার আইপি অ্যাড্রেসের সাথে লিংক করানো যেতে পারে। যেমন- আপনি যদি আপনার আসল ফোন নাম্বার ইউজ করে কাউকে হুমকি দেন, সহজেই সে ব্যাক্তি আপনাকে খুঁজে পাবে কেনোনা তার কাছে আপনার আসল ফোন নাম্বার রয়েছে।

আইপি অ্যাড্রেস

কিন্তু আপনি যখন ভিপিএন ইউজ করবেন, আপনার আসল আইপি অ্যাড্রেসের জায়গায় ভিপিএন নিজের সার্ভার আইপি বসিয়ে দেবে। মানে আপনার আসল আইপি অ্যাড্রেস কোথাও লিক হবে না। এর মানে আপনি কি কি সুবিধা পাবেন? ওয়েল, নিজের আইপি হাইড রাখার সুবিধা অনেক কিন্তু এক লাইনে বলতে গেলে; আপনার আইএসপি, সার্চ ইঞ্জিন, যেকোনো ওয়েবসাইট, মার্কেটার, এবং হ্যাকাররা পর্যন্ত আপনার অ্যাক্টিভিটির উপরে সহজে নজর রাখতে পারবে না। আপনি ওয়েবে কি করছেন সেটা সকলের নজরের বাইরে থাকবে!

ভিপিএন আপনার লোকেশন লুকিয়ে রাখে

আইপি অ্যাড্রেস থেকে কিন্তু জিওলোকেশন বের করা সম্ভব। যদিও সেটা ১০০% সঠিক হয়না কিন্তু মোটামুটি ধারণা পাওয়া যেতে পারে আপনি দুনিয়ার কোন প্রান্ত থেকে ইন্টারনেট ইউজ করছেন। ইন্টারনেট ব্রাউজ করার সময় যেহেতু আপনার আইপি অ্যাড্রেস সব জায়গায় লিক হয়ে যায়, তাই আপনার আইপি কাজে লাগিয়ে সহজেই কেউ আপনার দেশের নাম, বিভাগের নাম, এমনকি আপনার হোম টাউন ও আপনি কোন ইন্টারনেট সার্ভিস প্রভাইডার থেকে কানেকশন নিয়েছেন তা বের করা যেতে পারে। (এই আর্টিকেল থেকে আইপি  অ্যাড্রেস ট্র্যাকিং নিয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন!)

ভিপিএন লোকেশন লুকিয়ে রাখে

ভিপিএন সারা দুনিয়ায় অবস্থিত নানান লোকেশন থেকে সার্ভার ইউজ করে। আপনি সহজেই দুনিয়ার যেকোনো দেশের সার্ভার সিলেক্ট করতে পারেন, সেক্ষেত্রে আপনার আইপি অ্যাড্রেসের সাথে আপনার লোকেশন ও পরিবর্তন হয়ে যায়। আপনি বাংলাদেশ থেকে Spotify এ মিউজিক স্ট্রিম করতে পারবেন না, কেনোনা এদের সার্ভিস বাংলাদেশের জন্য ব্লক করা। এখন এরা কিভাবে বোঝে আপনি কোন দেশ থেকে ভিজিট করেছেন? “আপনার আইপি অ্যাড্রেস থেকে বুঝতে পারে!

ভিপিএন ইউজ করে যখন আপনি অ্যামেরিকার আইপি অ্যাড্রেস ইউজ করবেন, আপনার লোকেশন ও পরিবর্তন হয়ে অ্যামেরিকা হয়ে যাবে, ব্যাস কাজ শেষ! আপনি যেকোনো ব্লকড কন্টেন্ট আনলক করতে পারবেন। সাথে যেকোনো ওয়েবসাইট বা যে আপনাকে ট্র্যাক করতে চাইবে সে ও আর আপনার আসল লোকেশন দেখতে পাবে না, কেনোনা আপনি তো আসল আইপি থেকে কাজ করছেন না।

ভিপিএন পার্সোনাল ডাটা লুকিয়ে রাখে

ভিপিএন শুধু আপনার আইপি অ্যাড্রেস আর জিওলোকেশন ই নয়, বরং আপনার পার্সোনাল ডাটা গুলোকে ও লুকিয়ে রাখে হ্যাকারের নজর থেকে। আপনি হয়তো অনেক ট্র্যাভেল করেন বা হতে পারে আপনি বাইরেই থাকেন দিনের বেশিরভাগ সময়ে, সেক্ষেত্রে হয়তো অনেক পাবলিক ওয়াইফাই হটস্পটের সাথে কানেক্ট হতে হয়। কিন্তু আপনি জানেন কি, এগুলো পাবলিক ওয়াইফাই হটস্পট মোটেও সুবিধার নয়, যে কেউই আপনার ডিভাইজের উপরে নজর রাখতে পারে। আপনি কি করছেন, কোন সাইট ভিজিট করছেন, কোন ক্রেডিট কার্ড নাম্বার কোথায় প্রবেশ করালেন, আপনার ব্যাংক পাসওয়ার্ড — ইত্যাদি সকল ডাটা তাদের হাতে বাইপাস হয়ে যেতে পারে।

ভিপিএন পার্সোনাল ডাটা লুকিয়ে রাখে

আপনি ভিপিএন ইউজ করলে আপনার প্রত্যেকটি ডাটা এক বিশেষ সিকিউর পথে সার্ভারের কাছে গিয়ে পৌছায়, এতে হ্যাকার আপনার উপরে নজর রেখেও বিশেষ লাভ করতে পারবে না। সাথে ভিপিএন অ্যাপ গুলো এনক্রিপশন পদ্ধতি ইউজ করে আপনার ডাটা গুলো এলোমেলো করে রাখে, এতে হ্যাকার ডাটা আক্সেস করার পরেও কিছুই পড়তে পারবে না।

আপনার ওয়েব ব্রাউজিং হিস্টোরি লুকিয়ে রাখে

আপনি যতোই ব্রাউজারে ইনকগনিটো ট্যাব ওপেন করে দুষ্ট সাইট ভিজিট করুন না কেন, আপনার ইন্টারনেট সার্ভিস প্রভাইডার সেগুলোকে ঠিকই দেখতে পায়। শুধু আপনার আইএসপি নয়; সার্চ ইঞ্জিন, আপনি যে সাইট ভিজিট করছেন তারা, এমনকি মার্কেটার’রা ও আপনার অ্যাক্টিভিটি গুলো সহজেই ট্র্যাক করতে পারে।

আপনার ওয়েব ব্রাউজিং হিস্টোরি লুকিয়ে রাখে

ব্রাউজারের ইনকগনিটো মুড কেবল আপনার ব্রাউজার হিস্টোরি, ক্যাশ, কুকিজ, বা পাসওয়ার্ড লোকাল ব্রাউজারে সেভ করে না, কিন্তু ইন্টারনেটের আরেক প্রান্তে নজর রাখা চোখ গুলো সবকিছুই দেখতে পায়। কিন্তু যখন আপনি ভিপিএন ইউজ করে ব্রাউজ করেন, আপনার আইপি অ্যাড্রেস পরিবর্তন হয়ে যায় আর আপনার ব্রাউজিং ডাটা গুলো আলাদা পথে সার্ভারের কাছে গিয়ে পৌছায়, তাই আপনার ব্রাউজার হিস্টোরির উপরে কেউ নজর রাখতে পারে না।

আপনার অফিসের বস থেকে আপনাকে লুকিয়ে রাখে

আপনার অফিসে হয়তো ফ্রী ইন্টারনেট কানেকশন রয়েছে, কিন্তু আপনার অফিসের বস কখনোই চাইবেন না আপনি অফিস টাইমে বসে ফেসবুক ব্রাউজ করুন বা ওয়্যারবিডিতে আর্টিকেল পড়ে গুরু হয়ে যান! অনেক অফিসে সোশ্যাল সাইট গুলো ব্লক করা থাকে আর অনেক অফিসে বস তার নেটওয়ার্ক মনিটর করে যে কে কোন সাইট ভিজিট করছে।

আপনার অফিসের বস থেকে আপনাকে লুকিয়ে রাখে

আপনি যদি ভিপিএন ইউজ করেন, আপনার অফিসের বস আপনার ইন্টারনেট অ্যাক্টিভিটি দেখতে পাবে না। হ্যাঁ, বসে থেকের আপনার কিছুই হাইড রাখার দরকার নেই, কিন্তু তারপরেও সে আপনাকে অভিযুক্ত করতে পারবে না, আপনি ইন্টারনেটে আলাদা কাজ করে টাইম নষ্ট করেছেন!


আপনি ভিপিএন নিয়ে যা ভেবেছেন, আজকে জানলেন ভিপিএন এর থেকেও বেশি কিছু হাইড রাখতে আপনাকে সাহায্য করতে পারে। তবে এর মানে এটাও নয় আপনি যা ইচ্ছা তাই করবেন, আপনি ভিপিএন ইউজ করে অবৈধ কাজ করলেও বেঁচে যাবেন, এমনটা মোটেও নয়। কোন টেকনোলোজিই ১০০% পারফেক্ট নয়, তাই সাবধান! যদি নিজের অনলাইন প্রাইভেসি নিয়ে চিন্তা করেন সেটা অনেক ইজি ব্যাপার, ভিপিএন আপনাকে সহজেই হেল্প করতে পারে!


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

Image: Shutterstock.com

প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।

One Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *