আপনার ইন্টারনেট স্পীড টেস্ট করার জন্য ৫টি বেস্ট ওয়েবসাইট!

প্রত্যেকটা আইএসপি দাবি করে, তাদের নেট স্পীড সবচাইতে বেস্ট, যাতে আপনি তাদের সার্ভিসই সাইন আপ করেন। আপনি যে স্পীডের জন্য আইএসপিকে টাকা দিচ্ছেন, আর আপনি যে স্পীড পাচ্ছেন, এই দুইয়ের মধ্যে পার্থক্য থাকতে পারে, আবার হতে পারে আপনি মোটেও সেই স্পীড পাচ্ছেন না। এ জায়গাতেই চলে আসে নানান স্পীড টেস্ট টুলের কাজ।ইন্টারনেটে অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যারা আপনার বর্তমান ইন্টারনেট স্পীড পরিমাপ করতে সাহায্য করে। কিন্তু কোন স্পীড টেস্ট ওয়েবসাইট গুলো বেস্ট, আপনি কেন তাদের ইউজ করবেন?

এই আর্টিকেলে ৫টি বেস্ট স্পীড টেস্ট ওয়েবসাইট নিয়ে আলোচনা করা হলো, যেগুলো থেকে সহজেই আপনার বর্তমান ইন্টারনেট স্পীড পরিমাপ করতে পারবেন। তো চলুন, জেনে নেওয়া যাক…


Google

গুগল বলতে, স্পীড টেস্ট করার জন্য গুগল সার্চ করতে বলিনি। গুগলের নিজস্ব এক স্পীড টেস্ট টুল রয়েছে, আপনি গুগলে গিয়ে Internet speed test লিখে সার্চ করলেই এই স্পীড টেস্ট টুলটি সামনে চলে আসে। সার্চ রেজাল্ট থেকে “Run Speed Test.” বাটনটি প্রেস করলেই স্পীড টেস্ট শুরু হয়ে যাবে।

গুগলের এই স্পীড টেস্ট টুলটি অনেক স্ট্রেইট ফরওয়ার্ড, আপনি কোন সার্ভার নির্বাচন করতে পারবেন না, গুগল নিজে থেকেই এক অটোমেটিক সেটিংস ইউজ করে আপনার স্পীড টেস্ট রান করবে। তাছাড়া পূর্বে এই টুল ইউজ করে কেমন স্পীড পেয়েছেন সেই ব্যাপারে ও কোন স্ট্যাটিস্টিক পাবেন না এই টুল থেকে।

আপনি যদি জাস্ট আপনার স্পীড নিয়ে এটা কুইক আইডিয়া নিতে চান সেক্ষেত্রে এই টুলটি ইউজ করতে পারেন। যদিও এই টুলটি সব সময় সার্চ থেকে দেখতেও পাওয়া যায় না, বিশেষ করে বাংলাদেশ থেকে আসে না সবসময়। যদি আইপি পরিবর্তন করে ইউএস করা যায় সেক্ষেত্রে এই টুলটি এমনিতেই সামনে চলে আসে! তো এটা আমাদের জন্য খুব একটা কাজের প্রমাণিত না হলেও জাস্ট জেনে রাখলেন এরকম কিছু একটার অস্তিত্ব আছে অন্তত!

ooKla SpeedTest

দুনিয়ার মধ্যে সবচাইতে জনপ্রিয় স্পীড টেস্ট ওয়েবসাইট টি হচ্ছে ওকলার Speedtest.net — তাই ইন্টারনেট স্পীড মাপার কথা চিন্তা করতেই এই টুলটিকে বাদ রাখা অসম্ভব। যদি ঝামেলা না করতে চান, সেক্ষেত্রে জাস্ট GO বাটনটি প্রেস করলেই আপনার স্পীড টেস্ট হওয়া শুরু হয়ে যাবে। আপনি সহজেই ডাউনলোড স্পীড, আপলোড স্পীড এবং পিং পরিমাপ করতে পারবেন।

স্পীড টেস্ট এই টুলটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার আইএসপির সবচাইতে কাছের সার্ভারের সাথে কানেক্ট হয়ে সকল রেজাল্ট প্রদান করে। অনেকে বলে, আপনি আইএসপির দেওয়া স্পীড থেকেও বা আলাদা টুল থেকে মাপার পরে স্পীড টেস্ট টুলে বেশি স্পীড দেখতে পাচ্ছি, তাহলে আমার আসল স্পীড কোনটা?

অনেক সময় আপনার আইএসপিতে লোকাল ইন্টারনেট এক্সচেঞ্জ এনাবল করা থাকে, মানে যে সার্ভারের সাথে আপনার আইএসপির স্পীড টেস্ট করা হচ্ছে তাদের মধ্যে লোকাল নেটওয়ার্ক কানেকশন রয়েছে, এই জন্য এতোবেশু ফাস্ট স্পীড দেখানো হয়। আবার এমন ও হতে পারে আপনার আইএসপি স্পীড টেস্ট টুলের সাথে ট্রিক করে রেখেছে ফলে এই টুলে বেশি স্পীড দেখাচ্ছে, যেহেতু এটা অনেক বেশি জনপ্রিয় টুল।

তবে এই সমস্যা গুলো এড়ানোর জন্য স্পীড টেস্ট থেকে আলাদ দেশের সার্ভার সিলেক্ট করতে পারেন, যেমন সিঙ্গাপুরের সার্ভার সিলেক্ট করলে দেখবেন আগের মতো এতো বেশি স্পীড আর দেখাবে না, বরং সঠিক স্পীড শো করবে!

Speedof.me

এই টুলটি অনেকটা সঠিক স্পীড দেখাতে সক্ষম, এই টুলে এক সাথে অনেক গুলো স্পীড টেস্ট নেওয়া হয় তারপরে সব গুলো টেস্ট এক করে গড় স্পীড রেজাল্ট দেখানো হয়ে থাকে। আপনি যখন স্পীড টেস্ট শুরু করেন, সাইটটি আপনার ব্রাউজারকে কিছু ফাইল ডাউনলোড করতে দেয় আর সেই ফাইল গুলোর ট্র্যান্সফার স্পীড থেকেই আপনার ব্যান্ডউইথ স্পীড মাপা হয়ে থাকে।

আপনাকে কোন ফাইল সেভ করতে হয় না ডাউনলোড করার জন্য, আপনার ব্রাউজার নিজে থেকেই সকল ফাইল হ্যান্ডেল করে থাকে। আপনার ব্রাউজার যদি ৮ সেকেন্ডের ও কম সময়ে ফাইলটি ডাউনলোড করে ফেলে সেক্ষেত্রে সামনে আরো বড় ফাইল সেন্ড করা হয়, এভাবে র‍্যান্ডম কিছু টেস্ট গ্রহণ করে এই টুলটি। এরপরে আপলোড স্পীড টেস্ট করা হয়, আর সাইট ও ব্রাউজার এবার উল্টা পদ্ধতিতে কাজ করে, এবার ব্রাউজার এই সাইটকে কিছু ফাইল সেন্ড করে আর সেটার ট্র্যান্সফার গতি অনুসারে আপনার আপলোড গতি নির্ণয় করা হয়।

এই ওয়েবসাইটে হিস্টোরি ট্যাব রয়েছে, যেখানে আপনার পূর্বের স্পীড টেস্ট গুলোর লিস্ট দেখতে পাবেন। যদি রিসেন্ট আইএসপি পরিবর্তন করে থাকেন সেক্ষেত্রে সহজেই কম্প্যায়ার করতে পারবেন, আগে কতো স্পীড পেয়েছেন এবং এখন কতো পাচ্ছেন।

Fast.com

এটি স্ট্রিমিং সার্ভিস নেটফ্লিক্সের একটি অফিশিয়াল স্পীড টেস্ট টুল। আপনি নেটফ্লিক্সে কেমন স্পীড পাবেন সেটা চেক করার জন্য এই টুলটি ইউজ করতে পারেন, তবে এটা দ্বারা আপানার আইএসপির স্পীড সম্পর্কেও ধারণা পেয়ে যাবেন। এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার সাথেই সাথেই আপনার স্পীড টেস্ট শুরু হয়ে যাবে। আর প্রাথমিকভাবে এটা কেবল আপনার ডাউনলোড স্পীড পরিমাপ করে, আপনি যদি ডাউনলোড/আপলোড বা পিং রেট পেতে চান সেক্ষেত্রে “Show More Info” বাটনটিতে প্রেস করতে পারেন!

Testmy.net

এটা অনেক পুরাতন একটি স্পীড টেস্ট টুল, মোটামুটি ২০ বছর ধরে মার্কেটে রয়েছে, আর আপনি স্পীড টেস্ট করলে আপনার আইএসপির সাথে কানেক্টেড আলাদা ইউজাররা কিরকম স্পীড পাচ্ছেন, এই টুল থেকে সেটার তুলনা পেয়ে যাবেন। এটা একসাথে অনেক গুলো ছোট ছোট ফাইল ডাউনলোড ও আপলোড করার মাধ্যমে আপনার স্পীড প্রদর্শিত করিয়ে থাকে। আর বাকিটা এই ওয়েবসাইট ভিজিট করলেই পেয়ে যাবেন।


আপনি যদি স্পীড কম পেয়ে থাকেন, সেক্ষেত্রে সরাসরি আইএসপির ঘাড় চেপে ধরার পূর্বে আপনার রাউটার চেক করে দেখুন, দেখুন সেটা বেশি স্পীড প্রদানে সক্ষম কিনা। তাছাড়া আপনি আমাদের এই আর্টিকেলটি পড়তে পারেন; “কিভাবে আপনার ইন্টারনেট স্পীড বারিয়ে নেবেন?” — তো আপনার সবচাইতে পছন্দের স্পীড টেস্ট ওয়েবসাইট কোনটি? নিচে আমাদের কমেন্ট করে জানান!



WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

Feature Image; Shutterstock

প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।

2 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *