পোর্ট ৪৪৩ কি? এটি কেন ব্যাবহৃত হয়, কেন এতো গুরুত্বপূর্ণ?

আমাদের কম্পিউটারে যখন আমরা কোনো ওয়েবসাইটে ভিজিট করি, তখন কম্পিউটারটি আমাদের ওয়েবসাইটটির হোম পেজ বা ইন্টারফেস  দেখায়। কিন্তু এর পেছনে কাজ করে অনেক বিশাল একটি নেটওয়ার্ক। কিন্তু সেটা এত দ্রুত কাজ করে যে আপনি সেটা বুঝে উঠতে পারবেন না। আর এই নেটওয়ার্কিং এর একটা অংশ হচ্ছে পোর্ট। পোর্ট অনেক ধরনের হয়ে থাকে, যেমন 80, 443, 3306 ইত্যাদি! এই পোর্ট গুলো ফিজিক্যাল কোন পোর্ট বা ডিভাইজ নয়, বরং ভার্চুয়াল পোর্ট, নানান পোর্টে কম্পিউটার নানান টাইপের ট্র্যাফিক অ্যালাউ করে থাকে!

কিন্তু সকল পোর্টের মধ্যে বর্তমানে 443 একটি গুরুত্বপূর্ণ পোর্ট, সাথে বহুল ব্যাবহৃত ও বটে! তো চলুন জেনে নেওয়া যাক, পোর্ট 443 কি? এটি কেন ব্যাবহৃত হয়, কেন এতো গুরুত্বপূর্ণ?


পোর্ট কি?

পোর্ট কি আপনি যদি সাদা বাংলা ভাষায় বুঝতে চান তাহলে পোর্ট হচ্ছে একটা ঘরের দরজা জানালার মত। ধরুন আপনার ওয়েবসাইট বা সার্ভার হচ্ছে আপনার ঘর। এবার সেই ঘরে কোন দরজা জানালা নাই, তাহলে আপনার ওই ঘরটাকে ঘর বলে গণ্য করা যাবে না। কেননা যে ঘরে কোন মানুষ ঢুকতে পারে না আলো বাতাস ঢুকতে পারে না সেটাকে গোদাম বলে। এবার আপনি আপনার ঘরের দুইটা দরজা বানাইলেন। এই দুইটা দরজা দিয়ে আপনি ঢুকতে পারবেন। এবার আপনি আপনার ঘরের তিনটা জানালা বানাইলেন। এই তিনটা জানালা দিয়ে আলো-বাতাস ইত্যাদি ঢুকতে পারে। ঠিক এমন  ভাবে আপনার ওয়েবসাইটে বা সার্ভারে ভিজিট করতে গেলে কোন পোর্ট দরকার। সাথে আপনি এটাও বুঝতে পারছেন পোর্ট অনেক ধরনের হতে পারে, একটা সার্ভারে বা একটা ওয়েবসাইটে অনেকগুলো পোর্ট থাকতে পারে। কিন্তু পোর্ট কখনো ফিজিক্যাল হয় না, পোর্ট হয় ভার্চুয়াল। গুগলে সার্চ দিয়ে পোর্ট লিস্ট বের করতে পারেন।

পোর্ট নিয়ে আরো জানতে চাইলে; নেটওয়ার্ক পোর্ট কি? ইন্টারনেট পরিকাঠামো নিয়ে বিস্তারিত — এই আর্টিকেলটি পড়ে নিতে পারেন!

Port

Service nameTransport protocol
20, 21 File Transfer Protocol (FTP) TCP
22 Secure Shell (SSH) TCP and UDP
23 Telnet TCP
25 Simple Mail Transfer Protocol (SMTP) TCP
50, 51 IPSec
53 Domain Name System (DNS) TCP and UDP
67, 68 Dynamic Host Configuration Protocol (DHCP) UDP
69 Trivial File Transfer Protocol (TFTP) UDP
80 HyperText Transfer Protocol (HTTP) TCP
110 Post Office Protocol (POP3) TCP
119 Network News Transport Protocol (NNTP) TCP
123 Network Time Protocol (NTP) UDP
135-139 NetBIOS TCP and UDP
143 Internet Message Access Protocol (IMAP4) TCP and UDP
161, 162 Simple Network Management Protocol (SNMP) TCP and UDP
389 Lightweight Directory Access Protocol TCP and UDP
443 HTTP with Secure Sockets Layer (SSL) TCP and UDP
3389 Remote Desktop Protocol TCP and UDP

পোর্ট ৪৪৩ কি?

৪৪৩ হচ্ছে সিকিউর কানেকশনে ব্যবহারের জন্য বহুল ব্যবহৃত একটি পোর্ট। যেটা HTTPS  প্রোটোকলের জন্য ব্যবহার করা হয়। আপনি যদি লক্ষ্য করেন আপনি যখন ওয়্যারবিডিত ভিজিট করেন, তখন অ্যাড্রেস বারের পাশে একটা লক চিহ্ন থাকে। এটা দিয়ে বোঝায় এই সাইটি সিকিউর অর্থাৎ এই সাইটে যেকোনো ডাটা আদান-প্রদান প্লেন টেক্সটের মাধ্যমে হবে না। লক চিহ্নটি HTTPS  প্রোটোকলের কারণে দেখিয়ে থাকে আর HTTPS প্রোটোকলের ডিফল্ট পোর্ট হচ্ছে 443।

পোর্ট ৪৪৩ কি?

সাধারণত port-80 ও ও পোর্ট 443 একই কাজে ব্যবহৃত হয়। পার্থক্য শুধুমাত্র সিকিউরিটির জন্য, পোর্ট 80 তে ইউজারের সাথে সার্ভারের তথ্য আদান প্রদান হয় প্লেইন টেক্সটে ও পোর্ট 443 তে ইউজারের সাথে সার্ভারের ডাটা আদান প্রদান হয় এনক্রিপ্ট হয়ে। ডিফল্টভাবে পোর্ট ৮০ এর প্রোটোকল হচ্ছে HTTP ও পোর্ট ৪৪৩ এর প্রোটোকল হচ্ছে HTTPS!

কেন ৪৪৩ এত গুরুত্বপূর্ণ?

পোর্ট 443 যত HTTP ট্রাফিক আছে সে গুলোকে HTTPS কানেকশনে রিপ্লেস করে নেয়।  কেননা বর্তমানে সিকিউরিটি ও প্রাইভেসি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এনক্রিপশন খুবই গুরুত্বপূর্ণ কেননা এটাই একমাত্র পারে আপনার কম্পিউটারের সাথে সার্ভারের ডাটা আদান প্রদান কে সুরক্ষিত রাখতে।

ধরুন আপনি আপনার ব্যাংকের একাউন্টে লগইন করবেন, এখন আপনার নেটওয়ার্কের আমি ম্যান ইন দ্যা মিডিল এট্যাক দিলাম। এখন আপনার ব্যাংকে যদি 443 পোর্ট ওপেন না থাকে এবং এসএসএল সার্টিফিকেট ইন্সটল না থাকে, তবে আপনার সকল ইনফর্মেশন, পাসওয়ার্ড ও অন্যান্য ডাটা সার্ভারের সাথে প্লেন টেক্সটের মাধ্যমে আদান-প্রদান হবে। তখন আমি আপনার সাথে আপনার ব্যাংকের কি কি তথ্য আদান-প্রদান হচ্ছে সবকিছুই দেখতে পারবো। যেমন আপনার পাসওয়ার্ড! কিন্তু আপনার ব্যাংকের সার্ভারের যদি পোর্ট 443 ওপেন থাকে এবং এসএসএল ইন্সটল থাকে তাহলে আমি অ্যাটাক দেওয়ার পরেও কোন তথ্য দেখতে পাবো না। সবকিছু থাকবে এনক্রিপ্ট অবস্থায়!

আপনার যদি কোন ওয়েবসাইট থাকে তবে আপনার ক্ষেত্রেও পোর্ট 443 অনেক গুরুত্বপূর্ণ। সিকিউর কানেকশন তৈরি করার জন্য ব্রাউজার ডিফল্টভাবেই পোর্ট ৪৪৩ এর সাথে কানেক্ট হওয়ার চেষ্টা করবে। কোন কারণে সার্ভারে পোর্ট ৪৪৩ ওপেন না থাকলে পোর্ট ৮০তেই এসএসএল ইন্সটল করা যায়। বর্তমানে সকল ব্রাউজার SSL বা HTTPS কানেকশন রিকোমেন্ড করে থাকে, আপনার সাইটে এসএসএল না থাকলে বেশিরভাগ ব্রাউজার আপনার সাইটটি “NOT SECURE” বলে শো করে। এক্ষেত্রে অনেক সময় আপনার ইউজারদের কে আপনার সাইটে ভিজিট করতে নাও দিতে পারে না। তাছাড়া বর্তমানে যে সকল সার্চ ইঞ্জিন আছে সবাই ssl বা HTTPS কানেকশন কে রিকোমেন্ড করে।

পোর্ট ৪৪৩ কিভাবে ব্যবহার করবেন?

এটা ব্যবহারের নিয়ে ইউজারদের খুব একটা চিন্তা করার কারণ নাই! কেননা বর্তমানে সকল সার্ভার অ্যাডমিনিস্ট্রেটর নিজেরাই পোর্ট 443 বা SSL অটো একটিভ করে দেয়। কিন্তু তারপরেও যদি আপনি চান, আপনি আপনার ক্রোম বা ফায়ার ফক্স ব্রাউজারে HTTPS Everywhere এই অ্যাডোনটি ব্যবহার করতে পারেন।

আপনি যদি সার্ভার অ্যাডমিনিস্ট্রেটর হয়ে থাকেন, তবে আপনি NGINX বা Apache সার্ভার কনফিগার করে নিন। এর জন্য আপনার SSL Certificate প্রয়োজন হবে। আপনার আপনার সার্ভার প্রোভাইডারের কাছে থেকে SSL Certificate কিনতে পারেন অথবা  LetsEncrypt এখান থেকে ফ্রিতে SSL Certificate নিতে পারেন।



WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

Images: Shutterstock.com

টেক বিষয় টা আমার কাছে যত ভাল লাগে তার থেকে বেশি ভাল লাগে সিকিউরিটি। আর সেই কারণেই আমি মূলত সিকিউরিটি নিয়ে লেখালিখি করছি। আমি একজন সিকিউরিটি এনালাইজার ও ইথ্যিক্যাল হ্যাকার। এখনো নিজে পড়াশুনো করে যাচ্ছি আরো নতুন কিছু শেখার জন্য, সাথে আপনাদের এই অল্প বিদ্যা থেকে কিছু শেখাতে এসেছি। আশা করি ভাল কিছু শেখাতে পারবো।

3 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *