হুয়াওয়ের “Harmony OS” টি ওপেন সোর্স হবে!

হুয়াওয়ের “Harmony OS” ওপেন সোর্স হবে!

২০১২ সাল থেকে নাকি হুয়াওয়ে তাদের এই ওএস নিয়ে কাজ করছিলো। এই ওএসটি বিশেষ করে ইন্টারনেট অফ থিংগস বা IoT ডিভাইজে ইউজ করার জন্য বানানো হচ্ছিলো। কিন্তু মোটামুটি দুই বছর পূর্বে কোম্পানিটি এই ওএসকে মাল্টি-প্ল্যাটফর্ম এর জন্য রেডি করে ফেলে।

যদি ইউএস সরকার আর হুয়াওয়ের সাথে সমস্যা না হতো, যদি ইউএসএ তে হুয়াওয়েকে ব্যান না করা হতো, এই নতুন ওএস টি হয়তো স্টেজে এসে হুয়াওয়ে কখনোই রিলিজ করতো না, আর ওএস টি রিলিজ হতেই হয়তো আরো ২-৩ বছর বেশি লেগে যেতো!

তো অনেক সমস্যা আর উঁচুনিচু পথ পারি দেওয়ার পরে হুয়াওয়ে অবশেষে স্টেজে উঠে তাদের নতুন অ্যান্ড্রয়েড বিকল্প অপারেটিং সিস্টেম “হারমনি ওএস” (Harmony OS), অথবা চায়নার জন্য “হংমেং ওএস”, বা আর্ক ওএস — যেটাই বলুন না কেন, অবশেষে রিলিজ করেছে!

এই অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে অনেক কথা বলার রয়েছে, বিশেষ করে এই ওএস নিয়ে আমাদের প্রযুক্তি ব্যাখ্যা সিরিজে বিস্তারিত আর্টিকেল আসবে, ওএস টির বর্তমান আরেকটি হাইলাইটেড ব্যাপার হচ্ছে ওএস টি ওপেন-সোর্স হিসেবে রিলিজ করা হবে। অদূর ভবিষ্যতে হুয়াওয়ে তাদের এই নতুন ওএস এর জন্য ওপেন-সোর্স ফাউন্ডেশন, এবং একটি কমিউনিটি তৈরি করবে, যাতে ওএস টিতে সকলে বেশি বেশি করে কন্ট্রিবিউট করতে পারে।

হুয়াওয়ের তৈরি করা এই নতুন ওএস টি একটি মডিউলার টাইপের ওএস যেটা microkernel দ্বারা তৈরি, আর এই কার্নেল ও হুয়াওয়েরই ঘরের সম্পত্তি! কোম্পানির অনুসারে হারমনি ওএস; অ্যান্ড্রয়েড বা আইওএস থেকে অনেক আলাদা আর এটা কিছু ডিভাইজের জন্য বর্তমানে স্টাবল একটি ওএস!

এই নতুন হারমনি ওএস, অ্যান্ড্রয়েড ওএস থেকে বেশি ফাস্ট, আর কেবল স্মার্টফোন পর্যন্তই এই ওএসটি সিমাবদ্ধ নয় — ওয়ারেবল ডিভাইজ, স্মার্ট ওয়াচ, স্মার্ট স্পীকার, স্মার্ট টিভি, রেফ্রিজারেটর, গাড়ি, ইত্যাদি নানান ডিভাইজে এই ওএস ব্যবহার করার প্ল্যান করছে হুয়াওয়ে!

এই বছরের শেষের দিকে চায়নাতে এই নতুন ওএস টি “স্মার্ট স্ক্রীন প্রোডাক্ট” টার্গেট করে রিলিজ করা হবে, মানে আসল ডিভাইজে ইউজ করতে দেখা যাবে। এই ওএস টিকে রান করা প্রথম ডিভাইজটি হবে Honor, তবে সেটা ফোন নয়, বরং Honor Vision TV! আর এই নতুন টিভিতে স্মার্ট ফিচার যেমন- পপ-আপ ক্যামেরা ফিচার থাকবে।

আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, হুয়াওয়ে তাদের এই নতুন ওএসকে অ্যান্ড্রয়েড বিকল্প হিসেবে ঘোষণা করছে না, তবে এই ওএসকে প্ল্যান বি বলতে পারেন। যদি ইউএস সরকার হুয়াওয়েকে অ্যান্ড্রয়েড লাইসেন্স থেকে জোরপূর্বক বাতিল করে তখন এই ওএসটি অ্যান্ড্রয়েড বিকল্প হিসেবে ঘষিত হতে পারে!

বর্তমানে, এই হারমনি ওএস অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস গুলো বিল্ডইন ভাবে রান করতে পারে না। ডেভেলপারদের হারমনি ওএস এর জন্য অ্যাপ গুলোকে কম্পাইল করতে হবে। হুয়াওয়ের আরেকটি বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে তাদের নতুন ওএস এর প্রতি ডেভেলপারদের আকৃষ্ট করা, যাতে অ্যান্ড্রয়েডের বিপরীতে তারা নতুন একটি ইকো-সিস্টেম তৈরি করতে পারে!



WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

Image: Shutterstock.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *