বর্তমান তারিখ:13 October, 2019

নিড ফর স্পীড (Need For Speed) : আরেক ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস? [মুভি রিভিউ]

রেসাররা রেস করবে, পুলিশরা বিড়ি খাবে!

আমরা যারা জাভা ফোন জেনারেশনের পোলাপান, তাদের শৈশবের একটা অংশ জুড়েই আছে নিড ফর স্পিড গেমটি।জাভা ফোনের ছোট ডিসপ্লেতেই আমরা গতির ঝড় তুলতাম। শৈশবের সেই দিনগুলিতে জাভা ফোন ইউজ করেছে অথচ NFS তথা Need For Speed খেলে নাই এমন পাবলিক খুজে পাওয়াই দায়! সেই NFS তথা Need For Speed এর মুভি ও বের হয়ে গেছিলো, যদিও আমি জানতাম না।

গুগলে মুভি নিয়ে সার্চ করার সময়ে হঠাত করেই চোখে পড়লো, আর সাথে সাথে শুরু নস্টালজিয়ায় ভোগা। সেই শৈশবের গেমটির পর্দার রুপায়ন দেখার জন্যে মন খুঁত খুত করছিলো। তাই দেরি না করেই বসে গেলাম, পর্দায় গতির ঝড় দেখার জন্যে।

যেহেতু গেমের নামেই মুভির নাম। কাজেই অনেক ধুমধাড়াক্কা রেসিং তো থাকবেই। এনএফএস এর সেই ট্রাডিশনাল স্পোর্টস কার তো ছিলই, সেই সাথে এক্সট্রা হিসেবে ছিল, সুন্দরী সুন্দরী দামী-সেক্সি সব গাড়ির মেলা গাড়ির সাথে সুন্দরী নায়িকাও মিস যায় নি। :3

মুভির কাহিনির সাথে ফাস্ট এন্ড ফিউরিয়াসের মিল আছে। অবশ্য মানের দিক দিয়ে ফাস্ট এন্ড ফিউরিয়াসের ধারে কাছেও নাই আই গেস। তাই তুলনায় যাবো না এই ব্যাপারে।

টবি মার্শাল,একজন মেকানিক। গাড়ি বানানো ও ঠিক করাই তার পেশা। তার পেশা বললে ভুল হবে, সে এবং বন্ধুরা মিলেই একটা গ্যারেজ চালায়,যেখানেই এইসব ভাংগা গড়ার কাজ করে। সেই সাথে সে একজন সাবেক আন্ডারগ্রাউন্ড রেসার ও বটে। এরই মধ্যে তার সাবেক প্রেমিকার বর্তমান প্রেমিক,ধনীর দুলাল ডিনো ভ্রিউস্টার একটা প্রপোজাল নিয়ে আসে। গাড়ি বানানোর প্রস্তাব। তাও যেন তেন গাড়ি না।

একবারে ট্রাডিশনাল স্পোর্টসকার! সেই গাড়ি বেচে ভালই ধান্ধা করার কথা ছিল। বাট ডিনো তাকে প্রস্তাব দেয় একটা রেসের। তার এবং টবির মধ্যে। যে জিতবে সে গাড়ির বিক্রির সব পাবে,আর না জিতলে কিছু পাবে না। শুরু হয় পর্দায় গতির ঝড় তোলা।আর শুরু হয় খুনখারাবি এবং পুলিশের সাথে ইদুর দৌড়!

তারকায় ঠাসা এই মুভিতে টবি মার্শাল এর ভুমিকায় অভিনয় করেছেন এরন পল।ব্রেকিং ব্যাড এর সুবাদে যাকে আমরা জেসি বিচ পিংকম্যান হিসেবে ও চিনি! এ ছাড়া আছেন ডাকোটা জনসন,(ফিফটি শেডস অব গ্রে),মাইকেল কিটন(স্পটলাইট), রেইমি মালিক (বোহেমিয়ান র‍্যাপসোডি,রোবট) সহ আরো অনেকে!


মুভিটি অবশ্য প্রত্যাশা অনুযায়ী খুব একটা ব্যবসা করতে পারেনি।পারেনি সমালোচকদের মন জয় করতে।যার দরুন আইএমডিবিতে রেটিং মাত্র ৬.৫।যা মোটেও এনএফএস সুলভ নয়।
আপনারা যারা এনএফএস লাভার আছেন তারা দেখতে পারেন। যেহেতু শৈশবের গেম এর উপর উপজীব্য করে বানানো মুভি বলে কথা।

হ্যাপি ওয়াচিং!



WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

Images: Electronic Arts

মুভি,টিভি-সিরিজ লাভার! প্রচন্ড অলস প্রকৃতির এই লোক ঠিক করেছেন তিনি সারাজীবন মুভি আর সিরিজ দেখেই কাটিয়ে দিবেন!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *