বর্তমান তারিখ:21 September, 2019

একটানা বেশিক্ষণ বসে থাকা কি আপনার স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর?

একটানা বেশিক্ষণ বসে থাকা কি আপনার স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর?

বর্তমান দিনে এমন অনেকেই রয়েছেন যাদের কাজে বেশিরভাগ সময় বসে থাকার প্রয়োজন পরে। আমি একজন ফুল টাইম ব্লগার হিসেবে নিজের কথায় বলবো, কোন কোন দিন তো টানা ৮-১০ ঘণ্টা কম্পিউটারের সামনে বসেই কেটে যায়। জবের কথা তো বাদই দিলাম, যদি গেমারদের কথা বলি, নিশ্চয় আমাদের বসে থাকার রেকর্ডকে অনেক আগেই টপকে দিতে সক্ষম এনারা!

আপনি হয়তো বলবেন, “আহ, কি ভাগ্য আপনার ভাই, আমরা সারাদিন বাইরে রোদে খেটে মরি, আর আপনি বসে থেকে টাকা ইনকাম করেন!” — তবে, বসে থেকে কাজ করা শুনতে যতোটা কুল মনে হয়, ব্যাস্তবে ব্যাপারটা ততোটা মজার নয়। বিশেষ করে দীর্ঘ সময় ধরে একটানা বসে থাকায় মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকি রয়েছে! আপনি যখন লম্বা সময় ধরে বসে থাকেন এতে আপনার শরীরের অনেক অংশ ইনঅ্যাক্টিভ হয়ে যায়। তো আপনার শরীর ইন-অ্যাক্টিভ হয়ে গেলে কি ঘটতে পারে? বেশি সময় ধরে বসে থাকলে স্বাস্থ্য়ের কি ক্ষতি হতে পারে? কিভাবে আপনার শরীরকে অ্যাক্টিভ রাখবেন? — এই বিষয় গুলোর উপর আলোচনা করেই আজকের এই আর্টিকেলটি!


বেশিক্ষণ বসে থাকা কেন ক্ষতিকর?

এক দৃষ্টিতে বলতে গেলে, আমাদের বর্তমান মডার্ন সমাজ বসে থাকার জন্যই ডিজাইনড হয়ে গেছে। আমাদের বাপ দাদারা কিন্তু এতোটা বসে থেকে সময় কাটাতেন না, যতোটা আজকে আমরা বসে থেকে সময় কাটায়। আর উপরেই তো হিন্ট দিলাম যে অত্যন্ত বসে থেকে কাটানো শরীরের জন্য ক্ষতিকর প্রমাণিত হতে পারে।

দ্যা ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশ  (World Health Organization – WHO) এর অনুয়ারে, ইন-অ্যাক্টিভ অবস্থায় শরীর থাকার কারণে গোটা দুনিয়াতে প্রায় ৬% মানুষ মারা যায়। হ্যাঁ, নাম্বারটা শুনতে অনেক বড় নয়, কিন্তু মানুষ মারা যাওয়ার ৪র্থ তম বড় কারণ এটি! আরো তিনটি কারণ হচ্ছে, মলাশয় ও স্তন ক্যান্সার (২৫%), ডায়াবেটিস (২৭%), এবং হৃদরোগ (৩০%)!

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, বসে থাকা কিভাবে খারাপ জিনিষ হতে পারে? বসে থাকা তো একটি স্বাভাবিক শারীরিক অঙ্গভঙ্গি, তাই না? মানুষ তো গাড়ি চালানোর সময়, ভ্রমনের সময়, অফিসের ডেস্কে, টিভি দেখার সময় বসেই থাকে। এতে সমস্যা কি? ওয়েল, বসে থাকা আর অত্তাধিক বসে থাকার মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। আমি জানি যারা বিশেষ করে অনলাইন পেশার সাথে জড়িত রয়েছেন তাদের একটু বেশিই বসে থাকতে হয়। কিন্তু এই বসে থাকার ফলে আপনার শরীর ঠিক ততোটা ক্যালোরি খরচ করতে পারেনা যতোটা আপানার শরীর সুস্থ রাখার জন্য করার দরকার।

যদিও শরীর যখন বসে থাকে বা শুয়ে থাকে, তারপরেও আপনার শরীর ক্যালোরি খরচ করে। কিন্তু শরীর এক্ষেত্রে অনেক ধিরে ক্যালোরি খরচ করে। আপনি যখন বসে থাকেন আপনার শরীর মিনিটে মাত্র ১ ক্যালোরি খরচ করে। যেহেতু আপনি নড়াচড়া কম করেন, তাই আপনার পেশীর ইলেকট্রিক্যাল অ্যাটিভিটি ও কমে যায়। যখন আপনি দিনে ৬ ঘণ্টার বেশি সময় বসে থেকে কাটিয়ে দেন, আপনার শরীরের অক্সিজেন ব্যয় কমে যায়, ফলে আপনি সাধারণ ব্যায়াম করতে গিয়েও হাপিয়ে যান।

রিপোর্ট অনুসারে, ডেস্কে বসে কাজ করা ব্যাক্তির চেয়ে কৃষকের দিনে প্রায় ১,০০০ ক্যালোরি বেশি খরচ হয়। কেনোনা তারা দাঁড়িয়ে এবং হেঁটে বেশি সময় ব্যয় করেন। তাছাড়া বেশিক্ষণ একটানা বসে থাকলে আপনার ওজন বৃদ্ধি পাবে। এটা জানার জন্য মেডিক্যাল ডিগ্রী অর্জন করতে হবে না, আপনি কম ক্যালোরি খরচ করবেন মানে উল্টা দিকে আপনার ওজন বেড়ে যাবে!

আপনি হয়তো প্রত্যেকদিন হালকা বা বেশি ব্যায়াম করেন, হ্যাঁ, অবশ্যই ব্যায়াম করা শরীরের জন্য ভালো, কিন্তু বেশিক্ষণ একটানা বসে থাকলে ব্যায়াম করেও এর ঝুঁকি থেকে সম্পূর্ণ বাঁচতে পারবেন না। আপনি হয়তো ১ ঘণ্টা ব্যায়াম করেন দিনে, কিন্তু এতে কি হবে? আপনি টানা বসে থাকেন তো ৬ ঘণ্টা! তো ৬ ঘণ্টা বসে থাকার ক্ষতি কি আর ১ ঘণ্টার ব্যায়ামে যেতে পারে? — তো বুঝতেই পারছেন, একটানা বেশি বসে থাকা কতোটা মারাত্মক প্রমাণিত হতে পারে।

বেশি বসে থাকার স্বাস্থ্য ঝুঁকি!

চলুন, এবার আলোচনা করা যাক বেশিক্ষণ একটানা বসে থাকলে আপনার কি কি মারাত্মক ব্যাধি ঘটতে পারে!

ডায়াবেটিস

আপনার শরীরে ইনসুলিন হচ্ছে সেই হরমোন যেটা আপনার শরীরের সুগার ও কার্বো হাইড্রেড পোড়াতে সাহায্য করে। আপনার শরীর যখন কোনই কাজ করে না তখন ইনসুলিন লেভেলে এক প্রভাব পরে। কেউ ২৪ ঘণ্টা বসে কাটানো মোটেও শরীরের জন্য স্বাভাবিক ব্যাপার নয়, এতে শরীরে ইনসুলিনের প্রভাব ২৪% পর্যন্ত কমে যায়।

shutterstock-571889917

আপনি যদি দিনে ৮ ঘণ্টা বসে থেকে কাটান, সেটা আপনি অফিসের ডেস্কে বসে কাটান আর বাড়িতে টিভি দেখে বা গেম খেলে, এভাবে দু সপ্তাহ চলতে থাকলে আপনার শরীরের ইনসুলিনের প্রভাব বেড়ে যায়। এতে ফিজিক্যালভাবে আপনার ওজন বৃদ্ধি পেয়ে যায় আর মূল্য হিসেবে আপনার রক্তে সুগারের মাত্রা বেড়ে যায়। আর এর ফলে আপনি Type 2 ডায়াবেটিস এ আক্রান্ত হতে পারেন।

হৃদরোগ

ব্যাপারটা পানির মতোই সহজ নয় কি যে, যে জিনিষ আপনার রক্তের সাথে ঝামেলা পাকীয়ে দিয়েচ্ছে সেটাতে আপনার হৃদপিণ্ডও প্রভাবিত হবে? ডায়াবেটিকস হওয়ার ফলে আপনার শরীরের কলেস্টেরল মারাত্মকভাবে বেড়ে যায়। যেটার ফলে আপনার হৃদরোগ হবার সুযোগ ও মারাত্মকভাবে বেড়ে যেতে পারে। কিন্তু ধরুন আপনার ডায়াবেটিকস নেই, কিন্তু তারপরেও বেশিক্ষন বসে থাকলে আপনার রক্তে সুগার লেভেলে গণ্ডগোল দেখা দেবে আর হৃদরোগের চান্স ও বাড়াবে।

shutterstock-792203032.png

আপনি জানেন কি, মাত্র টানা ২ ঘণ্টা বসে থেকে আপনার রক্তের সঠিক লেভেল কলেস্টেরল ২০% নেমে যায়। দিনে যদি ৩-৪ ঘণ্টা নিয়মত বসে টিভি দেখে কাটান, এতে ৬৪% পর্যন্ত সুযোগ চলে আসে আপনি কোন হৃদরোগের প্রান ত্যাগ করবেন। দুনিয়ার বেশিরভাগ মানুষ কোন না কোন টাইপের হৃদরোগেই মারা যায়। তো চিন্তা করে দেখুন, শুধু বসে থাকা কতোটা মারাত্মক হতে পারে।

দুর্বল পা, শক্ত কোমর, আর পিঠে ব্যাথা!

যখন আপনি অত্যাধিক বসে থেকেই সময় কাটাবেন, আপনার পা কিন্তু সেই সময় আপনার শরীরের পেশীর ভর বইবে না। যথেষ্ট কাজ না করতে পারায় পায়ের পেশীক্ষয় হবে ও অপুষ্টিতে ভুগবে, এতে ধীরেধীরে আপনার পা দুর্বল হয়ে যাবে।

shutterstock-1372549466.png

আপনার পায়ের মতো আপনার কোমর আর পিঠ ও প্রভাবে পরে যাবে। এতো বেশি ডাক্তারি টার্মে যেতে চাচ্ছি না, তবে বেশি বসে থাকলে আপনার কোমরে অত্যন্ত বেশি চাপ পড়বে এতে মেরুদণ্ডও প্রভাবিত হবে। শুধু যে ফিজিক্যাল ইফেক্টই রয়েছে তা কিন্তু নয়, বেশিক্ষণ একটানা বসে থাকার মেন্টাল ইফেক্ট ও রয়েছে। যারা বেশিরভাগ সময় বসে থেকেই কাটিয়ে দেয় তাদের Anxiety এবং Depression লেভেলও বেশি হয়ে থাকে।

কিভাবে এই খারাপ প্রভাব কাটানো যেতে পারে?

ব্যাস্ত এই জীবনে অনেক কিছুই করতে হয়, কেউকে দৌড়ে দিন কাটাতে হয় আবার কাউকে বসে থেকে! কাজ তো করতেই হবে, সাথে লাইফের ও ধ্যান রাখতে হবে। যদি বেচেই না থাকেন তো কাজ করেই বা হবে কি? যাইহোক, বসে থাকার অনেক ক্ষতিকর ব্যাপার গুলো তো জানলাম, এখন এ থেকে কিভাবে বাঁচা যেতে পারে সেগুলো নিয়ে আলোচনা করা যাক…

কিভাবে এই খারাপ প্রভাব কাটানো যেতে পারে?

এক গবেষণা অনুসারে, বসে থাকার ৩০ মিনিট পরপর নড়াচড়া বা একটু চলাফেরা থেকে নাটকীয়ভাবে নিষ্ক্রিয়তা থেকে মৃত্যুর ঝুঁকি কমে যেতে পারে। এর মানে এই নয় যে ৩০ মিনিট পরপর আপনাকে দৌড়াতে বের হতে হবে, কিন্তু আপনাকে কিছু ব্যায়াম করতে হবে! একটু উঠে দাঁড়ান, পানির বোতল হাতে আরেক রুমের মাঝে ঘুরে আসুন, ঘর নংরা হয়ে থাকলে একটু পরিষ্কার করুন, আপনার বডি ক্যালোরি খরচ করবার জন্য কিছু  না কিছু তো করতে হবে তাই না?


স্টাডি অনুসারে, একটানা বসে থাকার প্রভাবে আপনার নানান ব্যাধি হতে পারে যেখানে ক্যান্সারের মতো মারাত্মক ব্যাধি ও মিলিত রয়েছে। সাথে স্ট্রোক; কিডনি, ফুসফুস, যকৃতের নানান রোগ হতেই পারে। শুনতে অনেক ভয়ংকর লাগছে তাই না? শুধু মাত্র বসে থাকা থেকেও কতো সহজেই আপনার জীবন শেষ হয়ে যেতে পারে। — আপনি হয়তো এতোদিন ব্যাপারটি জানতেন না বা লক্ষ্য করেন নি। কিন্তু আজ বিষয়টি একটু হলেও জানলেন, হতে পারে আজকের এই আর্টিকেলটিই আপনার জীবন পরিবর্তন করে দেবে!


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

Images: Shutterstock.com

প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।

4 Comments

  1. Sujit roy Reply

    আই লাভ ওয়ারবিডি ❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️❤️

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *