বর্তমান তারিখ:20 September, 2019

হোয়াটস অ্যাপ হ্যাক : আপনি কি হোয়াটস অ্যাপ ইউজ করেন? এক্ষুনি এই আর্টিকেলটি পড়ুন!

হোয়াটস অ্যাপ হ্যাক : আপনি কি হোয়াটস অ্যাপ ইউজ করেন? এক্ষুনি এই আর্টিকেলটি পড়ুন!

লেটেস্ট এক রিপোর্ট অনুসারে, অ্যান্ড্রয়েড এবং আইফোন ইউজারদের হোয়াটস অ্যাপ ম্যাসেজিং অ্যাপটি হ্যাকার জাস্ট কল দিয়ে স্পাইওয়্যার ইন্সটল করিয়ে দিতে সক্ষম হতে পারে। তারপরে হ্যাকার আপনার প্রাইভেট ম্যাসেজ, লোকেশন ডাটা সবকিছুই ট্র্যাক করতে পারবে। সবচাইতে ভয়ংকর ব্যাপার হচ্ছে, আপনার ফোনটি এই লেটেস্ট হ্যাক অ্যাটাকের অলরেডি শিকার হয়েছে কিনা সেটা বোঝার কোনই উপায় নেই।

যদিও এটা বোঝার কাটায় কাটায় কোন পদ্ধতি নেই, তবে কিছু সাইনের দিকে লক্ষ্য রাখা যেতে পারে, যেগুলোর মাধ্যমে ৩য় পক্ষ কোন অ্যাক্টিভিটি ফোনের সাথে ঘটছে কিনা সেটা বুঝতে পারবেন।

আপনার ফোনের দিকে ভালোভাবে লক্ষ্য করে দেখুন, রিসেন্টলি কি আপনার ফোন হঠাৎ করে বেশি ব্যাটারি ইউজ করছে? হঠাৎ করে কি বেশি পরিমাণে ডাটা কেটে নিচ্ছে এবং ফোন গরম হয়ে যাচ্ছে? — কয়েকদিন থেকেই কি হঠাৎ করে এরকম লক্ষণ দেখা দিয়েছে? তাহলে হতে পারে আপনার ডিভাইজটি এই হ্যাক অ্যাটাকের শিকার হয়েছে।

যদি আপনি বিশ্বাস করেন, আপনার ফোনটির সাথে কোন একটা ঝামেলা তো নিশ্চিত হয়েছে সেক্ষেত্রে প্রথমেই আপনার হোয়াটস অ্যাপটি লেটেস্ট ভার্সনে আপডেট করে নিন এবং অপারেটিং সিস্টেমের যেকোনো আপডেট থাকলে তা অ্যাপ্লাই করে নিন।

হোয়াটস অ্যাপ এই বাগটি এই মাসেই ডিটেক্ট করে এবং শীঘ্রই ফিক্স করা নিয়ে কাজ করছে বলে জানিয়েছে। কোম্পানিটির মোট ১.৫ বিলিয়ন ইউজার রয়েছে তবে ঠিক কতো গুলো ইউজার এই হ্যাক অ্যাটাকের ফলে আক্রান্ত হয়েছে এই ব্যাপারে পরিষ্কার করে কোন নিউজই জানা যায় নি।

হোয়াটস অ্যাপের মুখ পাত্র নিচের স্টেটমেন্টটি প্রদান করেছেন,

“Given the limited information we collect, it is hard for us to say with certainty the impact to specific users. We will work with human rights organizations with expertise monitoring the work of private cyber actors. Out of an abundance of caution we are encouraging all users to update WhatsApp as well as keep their mobile OS up to date.”

এই ম্যালওয়্যারটি বিশেষ করে NSO Group নামক একটি ফার্ম তৈরি করেছে বলে এক সোর্স ধারণা করে, যদিও ফার্মটি সরাসরি এই ব্যাপারে কিছুই শিকার করেনি। এই টাইপের ম্যালওয়্যার অনেক দামী হয়ে থাকে আর বিশেষ করে সরকারের কাছে বা কোন গোয়েন্দা সংস্থার কাছে বিক্রি করা হয়।

Kaspersky Labs এর নিরাপত্তা গবেষক Jay Rosenberg বলেন, এই টাইপের ম্যালওয়্যার এভারেজ পারসন কখনোই ইউজ করেনা, কেননা তাদের ইউজ করার কোন কারণ নেই। এই টাইপের ম্যালওয়্যার কিনতে কোটি কোটি টাকার প্রয়োজন, আর ঠিক তখনই এরকম কোন ম্যালওয়্যার বা হ্যাক আপনার ডিভাইজের সাথে কথা হবে যখন আপনি সরাসরি কোন সরকার দ্বারা টার্গেট হবেন।


আমাদের স্মার্টফোন সত্যিই অনেক পারফেক্ট এক স্পাইং ডিভাইজ হিসেবে প্রমাণিত হতে পারে। এর সামনে পেছনে ক্যামেরা রয়েছে, জিপিএস লাগানো রয়েছে, মাইক্রোফোন রয়েছে, আপনার ক্যালেন্ডার থেকে সকল তথ্য পেয়ে যাবে, আপনার প্রত্যেক সেকেন্ডের হিসেব আপনার ফোন থেকে পাওয়া সম্ভব।

বেস্ট হয় আপনার ফোনের ব্যাটারি ও ডাটা ব্যায়ের উপর নজর রাখুন, যদি কোন খটকা নাও লাগে তারপরেও জাস্ট সবকিছু আপডেটেড রাখুন, আপডেট অ্যাপ্লাই না করার কোনই কারণ দেখি না আমি। সাথে আপনার গুরুত্বপূর্ণ ডাটা গুলোর রেগুলার ব্যাকআপ রাখুন!



WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

Image: Shutterstock.com

প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *