অসংখ্য অ্যামেরিকান এই গ্রহ ত্যাগ করতে চায়

অ্যামেরিকান মহাকাশচারী

এক অভূতপূর্ব পরিমান অ্যামেরিকান পৃথিবী ত্যাগ করে মহাকাশ এ পারি জমাতে চান। সম্ভত মঙ্গলের উদ্দেশে। সম্প্রতি নাসা জানিয়ে যে, ১৮,৩০০ ও বেশি অ্যামেরিকান অধিবাসি স্পেস এজেঞ্চি ২০১৭ এর মহাকাশচারী ক্লাস এর জন্য আবেদন করেছেন। স্পেস এজেঞ্চি ২০১৭ এর মহাকাশচারী ক্লাস এ ভর্তির আবেদন এর জন্য দুই মাস সময় দেওয়া হয়েছিলো। যেটার আবেদন নেওয়া গত বৃহস্পতিবার বন্ধ করে দেওয়া হয়।

এই আবেদন সংখ্যা গত বার এর চেয়ে প্রায় তিন গুন। গতবার ২০১২ সাল এ আবেদন গ্রহন করা হয়েছিলো, এবং ২০১৩ মহাকাশচারী ক্লাস শুরু করা হয়। পূর্বের রেকর্ড অনুসারে ১৯৭৮ সালে ৮,০০০ আবেদন করা হয়েছিলো।

নাসার প্রশাসক চার্লি বল্ডেন যিনি নিজেও একজন সাবেক মহাকাশচারী তার এক বক্তব্যে বলেছেন,

এটা আমার কাছে মোটেও আশ্চর্যজনক নয় যে অনেক অ্যামেরিকান, তারা বিভিন্ন পেশা থেকে এসে ব্যাক্তিগত ভাবে মঙ্গল যাবার স্বর্ণ যাত্রাকে রাঙাতে চায়। এবং এদের ভেতর কতিপয় অত্যন্ত প্রতিভাবান পুরুষ ও নারীদের মহাকাশচারী এই দলের জন্য নির্বাচন করা হবে।

বর্তমানে ১৮ মাস এর আবেদন পর্যালোচনা শুরু করা হয়েছে। এবং অত্যন্ত যোগ্যতাসম্পন্ন প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার এর জন্য Johnson Space Center এ ডাকা হচ্ছে। এবং এই প্রক্রিয়া ২০১৭ সালের মধ্য পর্যন্ত চলবে। সর্বশেষ নির্বাচনে ৮-১৪ জন প্রার্থীদের নির্বাচন করা হবে। নির্বাচিত প্রার্থীগন দের ২ বছর প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে স্পেস এর বিভিন্ন বিষয়ের উপর এবং রাশিয়ান ভাষার উপর। তাদের মহাকাশে পাঠানোর আগে নাসার অফিসে কাজ করিয়ে নেওয়া হবে।

আরো পড়ুনঃ

২০১৭ এর ক্লাস থেকে নাসার ২০৩০ এর মঙ্গল অভিযান এ কেও মঙ্গলে পা রাখবে কি না, তা খুব শিগ্রহি জানিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু এজেঞ্চি জানিয়েছে এই নতুন মহাকাশচারীগন দের প্রথম মিশন ২০২০ এ অথবা আরো পরে হতে পারে।


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

ইংরেজি টেক ব্লগ

তাহমিদ বোরহান
প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।