বর্তমান তারিখ:17 August, 2019

স্যামসাং এর নতুন ফোল্ডেবল স্মার্টফোন “গ্যালাক্সি ফোল্ড”

বেশ কয়েক মাস আগে স্যামসাং একটি ডেভেলপার কনফারেন্সে তাদের তৈরি প্রথম ফোল্ডেবল স্মার্টফোন শো অফ করেছিলো, তবে শুধুমাত্র শো অফ করা ছাড়া ডিভাইসটি সম্পর্কে আর তেমন কোন তথ্য যেমন- ডিভাইসটি কবে মার্কেটে এভেইলেবল হবে, প্রাইস কত হবে সে বিষয়ে কিছুই জানায়নি তারা।

তবে গতকালকের স্যামসাং এর আয়োজন করা “গালাক্সি আনফোল্ড” ইভেন্টে গ্যালাক্সি এস ১০ এর পাশাপাশি স্যামসাং অফিসিয়ালি অ্যানাউন্স করে তাদের তৈরি প্রথম ফোল্ডেবল স্মার্টফোন, “গালাক্সি ফোল্ড”। স্যামসাং তাদের এই ফোল্ডেবল স্মার্টফোন আগামী ২৬ এপ্রিল মার্কেটে রিলিজ করবে এবং এই ফোনটির স্টার্টিং প্রাইস হবে ১৯৮০ ইউএস ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ১ লক্ষ ৬৭ হাজার টাকার সমান।

স্যামসাং এই ফোল্ডেবল স্মার্টফোনটির একটি ফোরজি ভার্সন এবং একটি ফাইভজি ভার্সনও রিলিজ করবে মার্কেটে। গ্যালাক্সি ফোল্ড স্মার্টফোনটিতে স্যামসাং ব্যাবহার করছে ৭.৩ ইঞ্চির নতুন ইনফিনিটি ফ্লেক্স ডিসপ্লে। এই ইনফিনিটি ফ্লেক্স ডিসপ্লেটি স্মার্টফোনটিকে একটি ট্যাবলেট সাইজের ডিসপ্লে থেকে ফোল্ড করে একটি মিডিয়াম সাইজের স্মার্টফোনের সাইজে আনতে সাহায্য করে।

স্যামসাং এই ফোনটির ব্যাক সাইডে একটি হিঞ্জ মেকানিজম ব্যাবহার করছে যা কয়েকটি ইন্টারলকিং গিয়ারের সাহায্যে এই সম্পূর্ণ ফোনটিকে ফোল্ড করতে সাহায্য করে। এই সব গিয়ারগুলো ফোনের ব্যাক সাইডে হাইড করা আছে যা ফোনটিকে একটি ট্যাবলেট থেকে ফোনে কনভার্ট করতে পারে চোখের পলকেই।

ডিভাইসটির রিয়ারে আছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপও যা ফোন এবং ট্যাবলেট দুই মোডেই ব্যাবহার করা যাবে। রিয়ারে আছে একটি ১৬ মেগাপিক্সেলের আলট্রা ওয়াইড কামেরা এবং ১২ মেগাপিক্সেলের দুটি ওয়াইড অ্যাঙ্গেল টেলিফোটো ক্যামেরা। এছাড়াও আছে আরেকটি ১০ মেগাপিক্সেলের কভার কামেরা যেটি সেলফি ক্যামেরা হিসেবে ব্যাবহার করা হবে।

এই ফোনটির জন্য স্যামসাং একটি কাস্টম অ্যান্ড্রয়েড স্কিন তৈরি করেছে যেখানে ট্যাবলেট মোডে  একইসাথে তিনটি আলাদা আলাদা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ রান করা যাবে। তবে এই ধরনের ফোল্ডেবল ডিসপ্লের জন্য অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপগুলোকে অপটিমাইয করার দরকার পড়বে। হোয়াটসঅ্যাপ, মাইক্রোসফট অফিস, ইউটিউব এবং আরো কিছু মেজর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপকে ইতোমধ্যেই ফোল্ডেবল ডিসপ্লের জন্য অপটিমাইজ করা হয়েছে।

সম্পূর্ণ সিস্টেমটিকে রান করার জন্য থাকছে কোয়ালকমের সবথেকে পাওয়ারফুল চিপসেট, স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ এবং সর্বোচ্চ ১২ জিবি পর্যন্ত র‍্যাম অপশন। থাকছে ৫১২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। আর সম্পূর্ণ সিস্টেমটিকে ব্যাকআপ করার জন্য রাখা হয়েছে দুইটি ব্যাটারি যা অ্যান্ড্রয়েড সফটওয়্যার কম্বাইন্ড ৪৩৮০ এমএএইচ হিসেবে রিকগনাইজ করে।


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

তবে গালাক্সি ফোল্ড স্মার্টফোনটি এখনো পাবলিক রিলিজের জন্য পারফেক্ট হয়নি। ফোনটির সফটওয়্যার এক্সপেরিয়েন্স এবং বিশেষ করে ট্যাবলেট থেকে ফোন মোডে সুইচ করার ফিচারটি এখনো পর্যন্ত যথেষ্ট স্মুথ এবং স্ট্যাবল নয়। ফোনটির সফটওয়্যার সেকশনে এখনো কিছু ডেভেলপমেন্ট বাকি আছে স্যামসাং-এর। তাই ফোনটি পাবলিক রিলিজের আগে আরো এক মাস সময় নিচ্ছে স্যামসাং।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *