উইন্ডোজ ১০ এর জন্য ৫ টি বেস্ট ফ্রি অ্যাপস

বেশ কিছুদিন ধরেই উইন্ডোজ অ্যাপস নিয়ে তেমন কোন আর্টিকেল কভার করা হচ্ছে না WireBD তে। তাই, আজকে আবারো কথা বলছি উইন্ডোজ ১০ এর জন্য ৫ টি বেস্ট অ্যাপস নিয়ে। তবে এই অ্যাপসগুলো বড় বড় কোন কাজের জন্য আলাদা আলাদা ডেডিকেটেড অ্যাপস নয়। এই অ্যাপসগুলো হচ্ছ ছোট ছোট কিছু লাইট অ্যাপস যেগুলো উইন্ডোজে আপনার প্রোডাক্টিভিটিকে আরও বাড়াতে এবং আপনার কিছুটা সময় বাঁচাতে সাহায্য করবে যা আপনাকে অভারঅল আপনার কম্পিউটারের প্রতিদিনের কাজে আরেকটু বেশি প্রোডাক্টিভ হতে সাহায্য করবে।

এই লিস্টে থাকা অ্যাপসগুলোর মধ্যে যেগুলোর উইন্ডোজ স্টোরের লিংক দেওয়া হবে, সেই অ্যাপস/প্রোগ্রামগুলো শুধুমাত্র উইন্ডোজ ১০ এর জন্যই এভেইলেবল এবং যেসব প্রোগ্রামের এক্সটারনাল লিংক দেওয়া হবে, সেগুলো উইন্ডোজ ১০ ছাড়াও অন্যান্য উইন্ডোজ ভার্শনেও এভেইলেবল হতে পারে। যাইহোক, বেশি কথা বা বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

Adobe Photoshop Express

যারা পিসিতে লাইট ফটো এডিটিং করে থাকেন, অর্থাৎ ফটো এডিটিং এর জন্য অ্যাডভান্সড কোন প্রোগ্রাম যেমন ফুল ফিচারড অ্যাডোব ফটোশপের দরকার হয়না, তারা অ্যাডোবের তৈরি এই বেসিক ফটো এডিটিং টুলটি ব্যবহার করতে পারেন। বেসিক ফটো এডিটিং এর জন্য এই প্রোগ্রামটিতে যথেষ্ট ফিচারস আছে। ইন্সটাগ্রামের মতো ফিল্টারস, অ্যাসপেক্ট রেশিও কন্ট্রোল, ক্রপ, রোটেট ইত্যাদি তো আছেই, এছাড়াও ইমেজের কন্ট্রাস্ট, হাইলাইট শ্যাডো, কালার, ব্রাইটনেস, ইফেক্ট ইত্যাদিও কন্ট্রোল করার ফিচারস আছে এই ফটো এডিটরে।

তাছাড়া বেসিক ফটো এডিটিং এর সময় অধিকাংশ ইউজারের যে ফিচারটি দরকার হয়, ব্লেমিশ রিমুভার, সেটিও আছে এই অ্যাপে। আর UWP অ্যাপ এবং Adobe এর নিজের তৈরি অ্যাপ হওয়ায় অ্যাপটির ইউজার ইন্টারফেসও যথেষ্ট মডার্ন এবং ইজি টু ন্যাভিগেট। এই অ্যাপটি অবশ্যই কোন অ্যাডভান্সড ফটো স্টুডিও সফটওয়্যারের অলটারনেটিভ নয়, তবে উইন্ডোজ পিসির জন্য যদি বেসিক একটি ফটো এডিটরের দরকার হয়, তাহলে অবশ্যই এই অ্যাপটি ট্রাই করে দেখবেন।

ডাউনলোড

EarTrumpet

এটা বেশ ইউজফুল একটি অ্যাপ। অ্যাপ না বলে একটি কনভেনিয়েন্ট টুল বলা যায়। এটা মুলত উইন্ডোজ ১০ এর জন্য একটি সাউন্ড কন্ট্রোল করার টুল। উইন্ডোজ ১০ এর টাস্কবারে যে ডিফল্ট সাউন্ড কন্ট্রোলারটি আছে সেটি খুবই বেসিক লেভেলের। ডিফল্ট সাউন্ড কনট্রোলারটি ব্যবহার করে শুধুমাত্র পিসির মাস্টার ভলিউমই কনট্রোল করা সম্ভব হয়। পিসিতে ওপেন থাকা প্রত্যেকটি ইন্ডিভিজুয়াল অ্যাপসের ভলিউম কনট্রোল করা যায়না।

EarTrumpet জাস্ট খুবই সিম্পল একটি টুল যা আপনার পিসির টাস্কবারে নতুন একটি সাউন্ড আইকন অ্যাড করবে যে সাউন্ড আইকনটি ক্লিক করে আপনি একটি নতুন সাউন্ড কনট্রোলার উইজেট ওপেন করবেন যেখানে শুধুমাত্র আপনার পিসির মাস্টার সাউন্ড নয়, বরং সেই সময় পিসিতে ওপেন থাকা প্রত্যেকটি অ্যাপের সাউন্ড আলাদা আলাদাভাবে সেট করতে পারবেন। এই এক্সট্রা সাউন্ড কনট্রোল ফিচারটি আপনার সবসময় দরকার হবে না, বাট প্রয়োজনের সময় এক্সট্রা অপশন এভেইলেবল থাকা অবশ্যই বেটার।

ডাউনলোড

Ueli

এটাও যথেষ্ট কনভেনিয়েন্ট একটি অ্যাপ বা টুল। আপনি যদি কখনো ম্যাক বা ম্যাকবুক ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে আপনি অবশ্যই ম্যাকের স্পটলাইট সার্চ ফিচারটি ব্যবহার করেছেন। ম্যাক ওএসের অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি ফিচার হচ্ছে এই স্পটলাইট সার্চ। এই সার্চবারটি ওপেন করে ডেক্সটপ থেকেই সম্পূর্ণ পিসির সবকিছু সার্চ করা এবং ইনস্ট্যান্ট সার্চ রেজাল্ট পাওয়া যায় এবং সার্চ রেজাল্টগুলোর সাথে যেকোনোরকম অ্যাকশন নেওয়া যায়। Ueli অ্যাপটি উইন্ডোজেও অনেকটা স্পটলাইট সার্চ ফিচারটি এনে দেয়। এই অ্যাপটির সাহায্যে আপনি শর্টকাট কি ব্যবহার করে যেকোনো সময় একটি সার্চ বার পপআপ পাবেন যেখানে আপনি যেকোনো কিছু সার্চ করতে পারবেন।

হতে পারে সেটি আপনার পিসির কোন সেটিংস, ইন্সটল করা কোন অ্যাপ, কোন একটি ফোল্ডার বা ফাইল এক্সপ্লোরার ইত্যাদি। আপনি চাইলে সরাসরি Ueli এর স্পটলাইট সার্চ বারটি ওপেন করে ছোট ছোট ক্যালকুলেশনও সেরে ফেলতে পারবেন। তাছাড়া আরেকটি কনভেনিয়েন্ট ফিচার হচ্ছে, এই সার্চ বারে আপনি যেকোনো ওয়েব অ্যাড্রেস টাইপ করে সরাসরি আপনার ডিফল্ট ব্রাউজার ব্যবহার করে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করতে পারবেন। অ্যাপটির ইউজার ইন্টারফেসও যথেষ্ট ক্লিন এবং সহজ। তাছাড়া এটির শর্টকাট এবং সেটিংস নিজের ইচ্ছামত কাস্টোমাইজ করার সুবিধা তো থাকছেই।

ডাউনলোড

ShareX

এটি একটি পাওয়ারফুল স্ক্রিনশট টুল। স্ক্রিনশট টুল না বলে একটি কমপ্লিট স্ক্রিনশট সুইটও বলা যায়। পিসিতে স্ক্রিনশট রিলেটেড আপনার যতধরনের প্রয়োজন থাকতে পারে, এই অ্যাপটি সবগুলো মেটাতে সক্ষম। ফুলস্ক্রিন স্ক্রিনশট, উইন্ডো স্ক্রিনশট, রিজিয়ন ক্যাপচার থেকে শুরু করে স্ক্রিন রেকর্ড এবং ইভেন স্ক্রিন রেকর্ড করে সেটা থেকে GIF তৈরি করা পর্যন্ত যত ধরনের ফিচার আপনার দরকার হতে পারে, তার সবগুলোই আছে এই ওপেন সোর্স প্রোগ্রামটিতে।

স্ক্রিনশট ক্যাপচার করার পরে সেটি আপনি ডাইরেক্ট আপনার ক্লাউড ড্রাইভেও অটোমেটিক আপলোড করতে পারবেন। তাছাড়া স্ক্রিনশটগুলো এডিট করার জন্যও বিল্ট ইন পাওয়ারফুল এডিটর টুল আছে এই অ্যাপে। তাছাড়া সব ধরনের স্ক্রিনশটের জন্যই কাস্টম কিবোর্ড শর্টকাট অ্যাসাইন করারও অপশন আছে এখানে। আমার মতে, উইন্ডোজের জন্য বেস্ট স্ক্রিনশট সফটওয়্যার এটাই।

ডাউনলোড

PeaZip

নাম শুনেই বুঝে গেছেন যে এটি একটি ফাইল কম্প্রেসর সফটওয়্যার Winrar এর মতো। এটি Winrar এর মতোই একটি জিপ ফাইল/কমপ্রেসড ফাইল ক্রিয়েটর এবং এক্সট্রাক্টর। তবে এটির ইউজার ইন্টারফেস Winrar এর থেকে অনেক সুন্দর এবং ক্লিন। ফিচারসের দিক থেকে Winrar এর মতো হলেও ডিজাইনের দিক থেকে এই অ্যাপটি অনেক এগিয়ে। তাছাড়া এটি সম্পূর্ণ ফ্রি একটি অ্যাপ, তাই Winrar এর মতো বারবার Trial Expired নোটিস দেখতে হবে না আপনাকে। Winrar পেইড অ্যাপ হওয়ার কথা হলেও ফ্রি অ্যাপই বলা যায়, কারন কোন একটি ভৌতিক কারনে এটির ট্রায়াল পিরিয়ড কখনোই শেষ হয়না।

যাইহোক, PeaZip অ্যাপটি ব্যবহার করে আপনি প্রায় সকল ফরম্যাটেই (zip,tar,iso,7z etc) ফাইল কম্প্রেস করতে পারবেন। Winrar এর মতো নিজের ইচ্ছামত কম্প্রেশন লেভেল সেট করতে পারবেন, ফাইল পাসওয়ার্ড প্রোটেক্ট করতে পারবেন এবং ইভেন টু ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন ব্যবহার করেও পাসওয়ার্ড প্রোটেক্ট করতে পারবেন। যদি একটি ভালো ফুল ফিচারড ফাইল কম্প্রেশন টুলের দরকার হয় এবং Winrar বাদ দিয়ে অন্য ভালো ইউজার ইন্টারফেসের কোন অ্যাপ ব্যবহার করতে চান, তাহলে PeaZip অবশ্যই ট্রাই করতে পারেন।

ডাউনলোড

এই ছিলো উইন্ডোজ ১০ এর জন্য কয়েকটি বেস্ট ফ্রি অ্যাপস। আর এই লিস্টে যতগুলো অ্যাপস নিয়ে কথা বলা হয়েছে, সবগুলোই সম্পূর্ণ অ্যাড-ফ্রি। তাই নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন। আজকের মতো এখানেই শেষ করছি। কোন ধরনের প্রশ্ন বা মতামত থাকলে অবশ্যই কমেন্ট সেকশনে জানাবেন।

Feture Image Credi : TechRadar

 


WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

 

সিয়াম
অনেক ছোটবেলা থেকেই প্রযুক্তির প্রতি আকর্ষণ ছিলো এবং হয়তো সেই আকর্ষণটা আরো সাধারন দশ জনের থেকে একটু বেশি। নোকিয়ার বাটন ফোন থেকে শুরু করে ইনফিনিটি ডিসপ্লের বেজেললেস স্মার্টফোন, সবই আমার প্রিয়। জীবনে টেকনোলজি আমাকে যতটা ইম্প্রেস করেছে ততোটা অন্যকিছু কখনো করতে পারেনি। আর এই প্রযুক্তির প্রতি আগ্রহ থেকেই লেখালেখির শুরু.....