বর্তমান তারিখ:23 August, 2019

১০টি বেস্ট উইন্ডোজ পাসওয়ার্ড রিকভারি টুল!

সর্বকালের সেরা কিছু পাসওয়ার্ড রিকভারি টুলস!

পাসওয়ার্ড রিকভারি

কম্পিউটারের সুরক্ষার জন্য আমরা অনেক সময় উইন্ডোজে পাসওর্য়াড দিয়ে থাকি। মানে কম্পিউটার চালু হবার সময় লগইন পাসওর্য়াড দেওয়া থাকে। কোনো কারণে যদি আমরা এই পাসওর্য়াডটি ভূলে যাই তাহলে নতুন করে উইন্ডোজ সেটআপ করা ছাড়া কোনো উপায় নেই, কিন্তু C Drive এ বা ডেক্সটপে, মাই ডকুমেন্টে যদি আপনার গুরুত্বপূর্ণ কোনো ফাইল থেকে থাকে তাহলে সেগুলোও নতুন করে উইন্ডোজ সেটআপ করার সময় মুছে যাবে। আর এখানেই চলে আসে উইন্ডোজ পাসওয়ার্ড রিকভারি টুল!

এই জাতীয় সফটওয়্যার দিয়ে উইন্ডোজ এর পাসওর্য়াডগুলোকে “crack” করা যায় অথবা কিছু কিছু সফটওয়্যার দিয়ে পাসওর্য়াডগুলোকে রিসেট এবং অনেক সময় রিমুভও করা যায়। ইন্টারনেটে সার্চ দিলে আপনি এই জাতীয় ডজনখানেক সফটওয়্যার পেয়ে যাবেন। কিন্তু প্রতিটি সফটওয়্যারই কিন্তু কাজের নয়। তবে আজকের পোষ্টে আমি নিয়ে এসেছি ১০টি সেরা উইন্ডোজ পাসওর্য়াড রিকোভারী টুলস, এই টুলস এবং টিপসগুলো ব্যবহার করে আপনি সহজেই এবং ইফেক্টিভভাবে উইন্ডোজের পাসওর্য়াড রিকোভারী করতে পারবেন। তবে চলুন ভূমিকায় আর কথা না বাড়িয়ে সরাসরি পোষ্টে চলে যাই।

Pre-Created Password Reset Disk

আপনি যদি কম্পিউটার এর প্রো ইউজার হয়ে থাকেন তাহলে এটা হচ্ছে “ফ্রি”তে উইন্ডোজের পাসওর্য়াড রিকোভারীর সবথেকে সহজ পদ্ধতি। পাসওর্য়াড ছাড়াই আপনার পিসিতে একসেস পাবার বা এই পদ্ধতি কাজ করার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি password reset disk তৈরি করে নিতে হবে।

আপনি যদি আগে থেকেই এই পাসওয়ার্ড রিসেট ডিক্স তৈরি করে না থেকে থাকেন তাহলে এই পদ্ধতি আপনার কাজে আসবে না। পাসওর্য়াড রিসেট ডিক্সটি বা পেনড্রাইভটি পিসিতে প্রবেশ করার, লগইন স্ক্রিণে এসে “Reset Password” অপশনে ক্লিক করুন। তারপর স্ক্রিণে দেখানো নির্দেশনাগুলো অনুসরণ করে নিলেই আপনার পিসির উইন্ডোজ লগইন পাসওর্য়াডটি রিসেট হয়ে যাবে, তারপর নতুন পাসওর্য়াড দিয়ে বেরিয়ে আসুন।

পিসি রিবুট করুন এবং নতুন পাসওর্য়াড দিয়ে উইন্ডোজে লগইন করুন। এখন কথা হচ্ছে কিভাবে পাসওর্য়াড রিসেট ডিক্স তৈরি করবেন? তাহলে এই ইংরেজি পোষ্টটি দেখে আসুন।

UBCD (Ultimate Boot CD) Password Recovery Software

ইতিমধ্যেই উইন্ডোজের লগইন পাসওর্য়াড ভূলে গিয়েছেন বা হারিয়ে ফেলেছেন এবং উইন্ডোজে লগইন করতে পারছেন না এই অবস্থায় পড়া লোকদের এই সফটওয়্যারটি বেশ কাজে দেবে। UCBD বা হচ্ছে একটি সফটওয়্যার স্যুট যেখানে chntpw utility ছাড়াও অনেক টুলস রয়েছে যেগুলো বিভিন্ন উইন্ডোজ ইস্যুতে আপনার কাজে আসতে পারে।

তবে আজকের পোষ্টে আমরা সফটওয়্যারটির পাসওর্য়াড রিকোভারী অংশে ফোকাস করবো প্রথমে অন্য একটি পিসিতে UBCD এর লেটেস্ট সংষ্করণটি ডাউনলোড করে নিন। এবার সফটওয়্যারটি কোনো ডিক্সে বা পেনড্রাইভে বুটেবল ফ্ল্যাশ করে নিন। তারপর আপনার পিসিতে পেনড্রাইভটি প্রবেশ করার এবং বুটআপ করুন। বুট মেন্যুতে দেখবেন “Parted Magic” অপশন আসবে, সেটা সিলেক্ট করে এন্টার দিন। পরবর্তী স্ক্রিণে ডিফল্ট সেটিংয়ে সিলেক্ট করে Parted Magic ডেক্সটপে চলে আসুন।

এবার বাম দিকের System Tools য়ে চলে আসুন, তারপর “PCLoginNow” নাম একটি অপশন পাবেন, সেখানে ক্লিক করুন। ছোট করে একটি উইন্ডো আসবে যেখানে আপনার পিসির সকল পার্টিশনকে দেখতে পাবেন, এদের থেকে যে পার্টিশনে উইন্ডোজ ইন্সটল করা রয়েছে (সাধারণত C ড্রাইভ) সেটা সিলেক্ট করুন, তারপরেই chntpw ইউটিলিটি চালু করে। সেখান থেকে অন-স্ক্রিণ নির্দেশনা অনুসরণ করে পিসির লগইন পাসওর্য়াড কে আপনি এডিট কিংবা ডিলেট করতে পারবেন। করা হয়ে গেলে q প্রেস করে Enter চাপুন, Quit হয়ে যাবেন; সেখান থেকে Y চেপে আবারো Enter চাপুন এতে আপনার পরিবর্তনগুলো রেজিস্ট্রি হয়ে যাবে।

Windows Installation CD or DVD (Command Prompt)

এই পদ্ধতিটি কাজ করার জন্য আপনার দরকার হবে একটি Windows Installaiton CD বা DVD এবং কমান্ড লাইনে কাজ করার অভিজ্ঞতা। Command Line য়ে আপনাকে এক্সপার্ট হওয়ার প্রয়োজন নেই শুধুমাত্র বেসিক জ্ঞান থাকলেই চলবে। তবে কমান্ড লাইনে কাজ করতে যদি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ না করেন তাহলে লিস্টের অনান্য পদ্ধতিতে চলে যেতে পারেন। এই পদ্ধতিতে প্রথমে আপনার পিসিকে Windows Installation CD দিয়ে বুটআপ করে নিন। তারপর আপনার সামনে দুটি অপশন আসবে একটি হলো repair আরেকটি হলো install Windows । এখানে Repair অপশনে ক্লিক করে Command Prompt য়ে ক্লিক করুন।

কমান্ড লাইন চালু হলে নিচের কমান্ডগুলো লিখুন এবং এন্টার দিন:

copy c:\windows\system32\sethc.exe c:\ (Press Enter)
copy /y c:\windows\system32\cmd.exe c:\windows\system32\sethc.exe (Press Enter)

এরপর installation disk টি খুলে ফেলুন এবং পিসিকে রিবুট করুন। লগইন স্ক্রিণে আসলে কিবোর্ডের Shift কীকে ৫ বার চাপুন, আবারো command prompt য়ে চলে আসবেন, এবার এখানে লিখুন net user username newpassword (ইউসার নেম এবং নিউপাসওর্য়াড এর স্থানে আপনার পছন্দমতো এন্ট্রি দিন এবং এন্টার চাপুন)

Ophcrack Windows Password Recovery


এতক্ষণ উইন্ডোজ পাসওর্য়াড রিকোভারী করার কোনো আলাদা থার্ড পার্টির কথা বলিনি, কিন্তু এবার থার্ড পার্টি টুল ব্যবহার করার পালা। থার্ড পার্টি উইন্ডোজ পাসওর্য়াড রিকোভারী সফটওয়্যারের মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় এবং কাজের সফটওয়্যার হলো Ophcrack Live CD। মনে রাখতে হবে যে এটি একটি ওপেন সোর্স সফটওয়্যার, তাই ডাউনলোড করার সময় কোন সংষ্করণটি ডাউনলোড করছেন সেটার দিকে আপনার একটু খেয়াল রাখতে হবে।

Ophcrack Live CD হচ্ছে অরিজিনাল সফটওয়্যারটির একটি “বুটেবল” সংস্করণ। তাই আপনাকে ডাউনলোডের পর সফটওয়্যারটিকে ডিক্সে অথবা পেনড্রাইভে বার্ন করে বুটেবল করে নিতে হবে। প্রথমে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন তাদের ওয়েবসাইট থেকে এখানে ক্লিক করে। ডাউনলোড করে বার্ন করার পর সফটওয়্যারটি দিয়ে বুট করে নিন। তারপর স্ক্রিণে দেখানো নির্দেশনা অনুসরণ করে সহজেই ভুলে যাওয়া পাসওর্য়াডকে উদ্ধার করে নিতে পারবেন।

LCP Windows Password Cracker


উইন্ডোজের পাসওর্য়াড রিকোভার এবং ক্র্যাক করার জন্য LCP হচ্ছে একটি বেশ পাওয়ারফুল একটি টুল। এই সফটওয়্যারটি দিয়ে আপনি আপনার উইন্ডোজ লগইন পাসওর্য়াডটি SAM (Security Account Manager) থেকে ক্র্যাক করতে পারবেন। প্রথমে সফটওয়্যারটির পোর্টেবল সংষ্করণটি ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে। তারপর আনজিপ করে টুলটি ওপেন করুন।

এবার Import মেন্যুতে গিয়ে “Import from SAM File” অপশনে ক্লিক করে SAM ফাইলটি সিলেক্ট করুন। SAM ফাইলটি সাধারণত C:/Windows/System32/Config এই ঠিকানায় থেকে থাকে। সিলেক্ট করার পর OK বাটনে ক্লিক করার আগে “Additional encryption is used” বক্সে আনচেক করে নিতে ভূলবেন না যেন। এবার মাঝের টুলবার থেকে Play বাটনে বা Arrow বাটনে ক্লিক করে পাসওর্য়াড ক্র্যাকিংয়ের প্রক্রিয়া শুরু করে দিতে পারেন।

John the Ripper


John the Ripper হচ্ছে আরেকটি পাওয়ারফুল ইউটিলিটি টুল যা password hashes ক্র্যাক করার কাজে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তার মানে হচ্ছে আপনাকে প্রথমে অন্য যেকোনো টুল দিয়ে SAM ফাইল থেকে Hashes কে বের করে নিতে হবে। এর জন্য ফ্রি ইউটিলিটি PwDump7 কে ডাউনলোড করে নিন এবং আনজিপ করে নিন। এবার command line (Administrator) চালু করুন, যে ডাইরেক্টরিতে PwDump7 কে রেখেছেন সেখানে কমান্ড লাইনে navigate করে নিন, তারপর নিচের কমান্ডটি লিখুন:

PwDump7.exe > d:\hash.txt

এতে SAM ফাইল থেকে হ্যাশগুলো একটি text ফাইল আকারে কনর্ভাট হয়ে যাবে। এবার John the Ripper এর বাইনারি ফাইলকে ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে। তারপর কমান্ড প্রোমোটে চলে আসুন এবং যে ডাইরেক্টিতে Ripper কে রেখেছেন সেখানে নেভিগেট করে চলে আসুন, তারপর নিচের কমান্ড লিখে এন্টার দিন:

john –format=LM d:\hash.txt

তাহলে command prompt তে আপনি রিকোভারকৃত পাসওর্য়াডটি দেখতে পারবেন।

Lazesoft Recovery My Password (Free)


Lazesoft Recovery My Password সফটওয়্যারটি আপনার উইন্ডোজ লগইন এর সিকুরিটিকে বাইপাস করে এর পাসওর্য়াড রিসেট করে থাকে। কিন্তু এর সব কিছুই হয়ে থাকে সফটওয়্যারটির ভাষ্যমতে “Host Windwos” তে। যেহেতু আপনার পিসি পাসওর্য়াড ভূলে গিয়ে লক হয়ে রয়েছে তাই আপনাকে অন্য কোনো হোস্ট পিসিতে কিংবা আপনার পিসিতে অন্য উইন্ডোজ OS য়ে এই রিসেট ডিক্সটিকে তৈরি করে নিতে হবে। প্রথমে টুলটি ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে। চালু করুন, টার্গেট পিসির (locked PC) OS কে সিলেক্ট করুন তারপর “Reset Local Password” অপশনে ক্লিক করুন। Next বাটনে ক্লিক করুন তারপর ইউজার একাউন্ট এবং account properties ঠিকঠাক করে নিন, পরবর্তীতে Next বাটনে ক্লিক করে Reset/Unlock অপশনে ক্লিক করুন এবং “Finished” য়ে ক্লিক করুন। সবকিছু করা হয়ে গেলে ডিক্সটি পেনড্রাইভে বার্ন করে নিন এবং টার্গেট পিসিতে লাগিয়ে বুটআপ করুন, এরপর দেখবেন পিসিটি কোনো প্রকার পাসওর্য়াড ছাড়াই চালু হয়ে গিয়েছে।

Mimikatz


Mimikatz হচ্ছে একটি ওপেন সোর্স টুল যা দিয়ে আপনি উইন্ডোজ পাসওর্য়াডকে রিকোভার করতে পারবেন। এটা পাসওর্য়াডকে রিমুভ বা রিসেট করে না বরং শুধুমাত্র রিকোভার করে থাকে। তাই আপনি যদি থার্ড পার্টি টুল দিলে পাসওর্য়াডকে রিসেট করতে ভয় পান তাহলে এই টুলটি আপনারই জন্য।

টুলটি আপনি GitHub থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারেন এখানে ক্লিক করে কিংবা সরাসরি তাদের বাইনারিগুলোকেও ডাউনলোড করে নিতে পারেন। অথবা আপনি MS Visual Studio দিয়ে নিজস্বভাবে কাস্টমাইজেশনও করে নিতে পারেন।
ডাউনলোড করা হয়ে গেলে টুলটিকে Administrator হিসেবে চালু করুন এবং log কমান্ডের মাধ্যমে লগ তৈরি করুন। লগ তৈরি করা হয়ে গেলে Mimikatz.log ফাইলে সকল তথ্য (I/O) সংরক্ষিত থাকবে। এবার privilege::debug কমান্ডের মাধ্যমে ডিবাগ প্রক্রিয়া শুরু করুন। এটা হয়ে গেলে নিচের কমান্ড দিয়ে ক্লিয়ার টেক্স পাসওর্য়াডটি দেখতে পারবেন:

sekurlsa::logonpasswords

উল্লেখ্য যে Mimikatz বেশ পাওয়ারফুল একটি টুল, পোষ্টে দেখানো কমান্ডগুলো ছাড়া অন্য কমান্ড না জেনে ঘাঁটতে গেলে পিসির সমস্যা হতে পারে, তাই কমান্ড লাইনে ধারণা না থাকলে এই টুলটি এড়িয়ে যাওয়াই উত্তম।

Hash Suite


আমাদের আজকের লিস্টের সবথেকে শেষে রয়েছে Hash Suite টুল। এটি একটি পাওয়ারফুল পাসওর্য়াড রিকোভারী টুল যা Hashes এর উপর কাজ করে থাকে। কিন্তু এটা সরাসরি Hashes থেকে পাসওর্য়াডগুলোকে ক্র্যাক না করে নিজস্ব পাসওর্য়াড Generate করে থাকে, এতে অনেকসময় পাসওর্য়াড নাও মিলে থাকতে পারে, আর সেজন্যই টুলটি আজকের লিস্টের সর্বশেষে রয়েছে।

প্রথমে টুলটি ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে। আনজিপ করে নিয়ে টুলটি চালু করুন, প্রথমে টুলটি আপনার পিসির হার্ডওয়্যারের বেঞ্চমার্ক নিবে, আপনি চাইলে প্রসিড করতে পারেন কিংবা স্কিপ করে যেতে পারেন। তারপর Alt+D+H বাটন চেপে Hash Suit Downloader দিয়ে কিছু কোয়ালিটি ওয়ার্ড লিস্ট ডাউনলোড করে নিন। এবার hashed গুলোকে extract করে নিন। এবার আপনি চাইলে একটি একটি করে কিংবা একত্রে একাধিক NTLM Hashes এর উপর এট্যাক করতে পারবেন।


এই ছিলো উইন্ডোজ লগইন পাসওর্য়াড ক্র্যাক, রিসেট, রিকোভার করার সেরা কয়েকটি পদ্ধতি এবং টুলস। স্বাভাবিক ভাবেই উইন্ডোজ লগইন পাসওর্য়াড রিসেট করতে যেসকল পদ্ধতি এবং টুলগুলো ব্যবহার করা হয়েছে সেগুলো বেসিক ধারণাসমৃদ্ধ ইউজারদের জন্যই প্রযোজ্য।

কম্পিউটার সম্পর্কে বিশেষ করে command line এবং পাসওর্য়াড ক্র্যাকার সফটওয়্যার যারা আগে ব্যবহার করেননি তারা এই সকল পদ্ধতি এবং টুল থেকে দুরে থাকুন!



WiREBD এখন ইউটিউবে, নিয়মিত টেক/বিজ্ঞান/লাইফ স্টাইল বিষয়ক ভিডিও গুলো পেতে WiREBD ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুণ! জাস্ট, youtube.com/wirebd — এই লিংকে চলে যান এবং সাবস্ক্রাইব বাটনটি হিট করুণ!

Feature Image: Shutterstock

যান্ত্রিক এই শহরে, ভিডিও গেমসের উপর নিজের সুখ খুঁজে পাই। যার কেউ নাই তার কম্পিউটার আছে! কম্পিউটারকে আমার মতো করে আপন করে নিন দেখবেন আপনার আর কারো সাহায্যের প্রয়োজন হবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *