WireBD

উইন্ডোজের জন্য ১০টি বেস্ট ফায়ারওয়াল প্রোগ্রাম!

আমাদের অধিকাংশরাই উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করে থাকি। আর এটাও জানেন যে উইন্ডোজের নিজস্ব একটি বিল্ট-ইন ফায়ারওয়াল প্রোগ্রাম রয়েছে যেটা বেশ চমৎকার এবং সুরক্ষিত একটি Firewall । কিন্তু আপনি চাইলে সহজেই অনান্য ফায়ারওয়াল প্রোগ্রাম আপনার পিসিতে ইন্সটল দিতে পারবেন। আলাদা ফায়ারওয়াল আপনি ফ্রি এবং পেইড দুটো ভাবেই পাবেন তবে আমি পেইড ফায়ারওয়াল প্রোগ্রাম ব্যবহার করার পক্ষে নই, কারণ ফ্রিতেই আপনি জটিল জটিল সব ফায়ালওয়াল প্রোগ্রাম পেয়ে যাচ্ছেন।

আর এই সকল ফ্রি ফায়ালওয়াল প্রোগ্রামগুলো মাইক্রোসফটের উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের বিল্ট ইন ফায়ারওয়াল প্রোগ্রামের থেকে চালানো বেশ সহজ এবং সেটার থেকেও তুলনামূলক ভাবে বেশি ফিচার এবং অপশন দেওয়া থাকবে। তবে একটা কথা হলো আপনি যখন আলাদা ভাবে ফায়ারওয়াল প্রোগ্রাম পিসিতে চালাবেন তখন অবশ্যই উইন্ডোজের ফায়ারওয়াল প্রোগ্রামটি ডিজেবল করে নিবেন। কারণ একই সাথে দুটি ডিফেন্স সফটওয়্যার আপনার পিসিতে ভালোর থেকে ক্ষতি করতে পারে। আমি আজকে নিয়ে এলাম সেরা ১০টি ফ্রি ফায়ারওয়াল প্রোগ্রাম যেগুলো আপনি ব্যবহার করে ইন্টারনেটের বিভিন্ন এট্যাক থেকে আপনার পিসিকে সুরক্ষিত রাখতে পারবেন।

নিচের লিস্টটি best to worst আকারে সাজানো হয়েছে, এই লিস্টের পজিশনগুলো প্রোগ্রামের ফিচার, ব্যবহারের সহজবোধ্যতা, সফটওয়্যার আপডেট সহ বিভিন্ন বিষয়ে যাচাই করে তারপরেই সাজানো হয়েছে। তবে মনে রাখা উচিত যে, একটি ফ্রি ফায়ারওয়াল কখনোই একটি ভালো এন্টিভাইরাসের রিপ্লেসমেন্ট হতে পারে না। তাই আমার আগের এন্টিভাইরাস নিয়ে সেরা টপ টেন লিস্ট পোষ্টগুলো দেখার আমন্ত্রণ রইলো। তো চলুন দেখে নেই সেরা ১০টি ফ্রি ফায়ারওয়াল প্রোগ্রামগুলোকে।

Comodo Firewall

আমাদের লিস্টের প্রথম স্থানে রয়েছে Comodo Firewall । বুঝতেই পারছেন এইটি Comodo এন্টিভাইরাস পরিবারের একটি সদস্য প্রোগ্রাম। Comodo Firewall আপনাকে ভাচুর্য়াল ইন্টারনেট ব্রাউজিং, এড ব্লকার, কাস্টম DNS সার্ভারস, Game Mode এবং Virtual Kiosk নামের ফিচারগুলো দিবে। আপনি এই Comodo Firewall তে খুবই সহজে যেকোনো প্রোগ্রামকে ফায়ারওয়ালে যোগ করে নিতে পারবেন এবং একই সাথে বাদ দিয়ে দিতে পারবেন। বড় সড় wizard দিয়ে বিভিন্ন পোর্টস এবং আলাদা অপশন কনফিগারেশনের ঝামেলা এতে নেই।

তবে আপনি চাইলে Comodo Firewall তে এডভান্স সেটিংসও কাস্টমাইজেশন করে নিতে পারবেন। Comodo Firewall য়ে রয়েছে একটি Rating Scan অপশন যা আপনার পিসির বর্তমানের সকল রানিং প্রসেসগুলোকে স্ক্যান করে নিতে পারবে আর আপনাকে রেজাল্টে বলে দেবে প্রসেসগুলো কতটুকু টাস্টেট। আপনার পিসি আগে থেকেই কোনো প্রকার malware দ্বারা আক্রান্ত হয়ে থাকলে এই রেটিং স্ক্যান আপনার বেশ কাজে আসবে। অন্যদিকে Comodo KillSwitch ফিচারটি দিয়ে আপনি যেকোনো প্রসেসকে ব্লক করে দিতে পারবেন, আর এই উইন্ডো থেকে আপনার পিসির সকল রানিং অ্যাপ্লিকেশন এবং সার্ভিসগুলোকে দেখতে পারবেন। সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে।


AVS Firewall

AVS Firewall য়ে রয়েছে ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেস যেটা প্রায় সবাই সহজেই ব্যবহার করতে পারবেন। AVS Firewall আপনার পিসিকে বিভিন্ন malicious registry changes, বিরক্তিকর পপআপ উইন্ডো, ফ্ল্যাশ ব্যানার এবং অধিকাংশ অনলাইন বিজ্ঞাপন থেকে সুরক্ষিত রাখবে। এছাড়াও আপনি AVS Firewall তে URL গুলোকে কাস্টমাইজ করে রাখতে পারবেন যেগুলোতে কোনো প্রকার Ads এবং Banners দেখাবে না। AVS Firewall য়ে স্পেসিফিক আইপি এড্রেস, পোর্টস, প্রোগ্রাম alllow করা আর deny করাও অনেক সহজ। আপনি সহজেই রানিং প্রসেস থেকে কিংবা ম্যানুয়াল ভাবে প্রোগ্রামগুলোকে ফায়ারওয়ালে যুক্ত করে নিতে পারবেন। অন্যদিকে এতে রয়েছে Parent Control যার মাধ্যমে নিদির্ষ্ট ওয়েবসাইট এবং খোদ ফায়ারওয়াল প্রোগ্রামটিকে আপনি পাসওর্য়াড প্রটেক্ট করে রাখতে পারবেন। অন্যদিকে Journal সেকশনের মাধ্যমে আপনার পিসিতে কি কি কানেক্টশন ব্যবহৃত হয়েছে সেটাও পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন। সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে।


TinyWall

আমাদের আজকের সেরা ১০টি ফ্রি ফায়ারওয়াল প্রোগ্রামের লিস্টের তৃতীয় স্থানে রয়েছে TinyWall। লিস্টের অনান্য ফায়ারওয়াল প্রোগ্রামের থেকে এর একটি ইউনিক বৈশিষ্ট্য হলো এখানে এক্সট্রা কোনো notifications এবং prompts নেই, সহজ সরল সিম্পল একটি ফায়ারওয়াল হচ্ছে TinyWall। এখানে রয়েছে একটি এপ্লিকেশন স্ক্যানার যেটা দিয়ে প্রথমে আপনাকে পিসির প্রোগ্রামগুলোকে স্কান করিয়ে নিতে হবে তারপর আপনি ফায়ারওয়ালের safe list য়ে প্রোগ্রামগুলোকে যুক্ত করতে পারবেন।

এছাড়াও আপনি নিজে থেকেই ম্যানুয়ালভাবে পিসির যেকোনো process, file কিংবা সার্ভিসকে ফায়ালওয়াল পারমিশন দিতে পারবেন। এতে রয়েছে Connections monitor অপশন, যেখানে আপনি আপনার পিসির সকল প্রসেসকে দেখতে পারবেন যেগুলো ইন্টারনেট ব্যবহার করছে; তারপর সেখান থেকে রাইট ক্লিক করে প্রসেসকে বন্ধ করে দিতে পারবেন এবং চাইলে একে VirusTotal সহ বিভিন্ন অনলাইন এন্টিভাইরাসের সাহায্যে স্ক্যান করানোর অপশন পাবেন। সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে।


NetDefender

যারা বেসিক ফায়ালওয়াল প্রোগ্রাম চালাতে চান তাদের জন্য NetDefender বেস্ট। কারণ NetDefender হচ্ছে অনেক বেসিক একটি ফায়ারওয়াল প্রোগ্রাম। NetDefender য়ে আপনি একটি সোর্স এবং ডেস্টিনেশন আইপি এড্রেস আর পোর্ট নাম্বার আর প্রয়োজনে প্রটোকল ব্যবহার করে যেকোনো এড্রেসকে ব্লক বা allow করতে পারবেন। অর্থাৎ আপনি NetDefender দিয়ে যেকোনো FTP বা অনান্য পোর্টকে ইন্টারনেট ইউজ করা থেকে ব্লক করে রাখতে পারবেন। অন্যদিকে এপ্লিকেশনকে ইন্টারনেট ব্যবহার করা থেকে ব্লগ করার জন্য আপনাকে সকল এপ্লিকেশনের লিস্ট থেকে নিদির্ষ্ট এপ্লিকেশনকে ব্লক লিস্টে ম্যানুয়াল ভাবে যোগ করে নিতে হবে।

এছাড়াও এতে রয়েছে port স্ক্যানার যা দিয়ে আপনার পিসিতে কোন কোন পোটর্স চালু করা রয়েছে সেগুলোকে আপনি পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন এবং প্রয়োজনে নিদির্ষ্ট পোর্টকে আপনি বন্ধ করে দিতে পারবেন। অফিসিয়াল ভাবে NetDefender কে আপনি উইন্ডোজ এক্সপি এবং উইন্ডোজ ২০০০ য়ে চালাতে পারবেন তবে এটা উইন্ডোজ ৭ আর ৮ য়েও চলেছে কোনো সমস্যা ছাড়াই। যারা পুরোনো পিসিতে বেসিক ফায়ারওয়াল চান তাদের জন্য এই প্রোগ্রামটি উপযুক্ত। সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে। 


ZoneAlarm Free Firewall

ZoneAlarm Free Antivirus প্রোগ্রামটি আলাদা ফায়ারওয়াল সংষ্করণ হচ্ছে এটি। মানে জাস্ট এন্টিভাইরাস সেকশনটি বাদ দিলেই আপনি পেয়ে যাবেন ZoneAlarm Free Firewall প্রোগ্রামটি। তবে আপনি চাইলে ফায়ারওয়ালের সাথে ZoneAlarm ফ্রি এন্টিভাইরাসকেও ইন্সটল দিতে পারবেন। ZoneAlarm Free Firewall প্রোগ্রামটি ইন্সটল করার সময় আপনার কাছে দুটি অপশন দেওয়া হবে। Auto-Learn এবং Max Security । প্রথমটিতে প্রোগ্রামটি আপনার ব্যবহারের উপর বেস্ট ফায়ারওয়াল সেটিংস প্রয়োগ করবে এবং দ্বিতীয়টিতে আপনি নিজেই সকল সেটিংস এবং এপ্লিকেশনকে নিজের মতো করে কাস্টমাইজেশন করে নিতে পারবেন।

ZoneAlarm Free Firewall আপনার পিসির যেকেনো অ্যাপ্লিকেশনকে, প্রসেসকে কিংবা সার্ভিসকে লক করে রাখতে পারবে কোনো প্রকার ম্যালওয়ার ডেমেজ প্রতিরোধ করার জন্য, এতে রয়েছে Game Mode যেখানে ফুল স্ক্রিণ কোনো অ্যাপ বা মুভি দেখার সময় ফায়ারওয়াল থেকে কোনো প্রকার নোটিফিকেশন আসবে না। এছাড়াও পাবলিক এবং প্রাইভেট নেটওয়ার্কের সিকুরিটি মোডকে আপনি স্লাইডারের মাধ্যমে চেঞ্জ করে নিতে পারবেন এবং ফায়ারওয়াল প্রটেক্টশন লেভেলকেও সহজেই স্লাইডারের মাধ্যমে বাড়াতে কিংবা কমাতে পারবেন। সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে।


PeerBlock

অনান্য ফায়ালওয়াল প্রোগ্রামের থেকে PeerBlock একদমই আলাদাভাবে কাজ করে। এই ফায়ারওয়াল প্রোগ্রামটি আপনার পিসির প্রোগ্রামগুলোকে ব্লক না করে সরাসরি আইপি এড্রেসকেই ব্লক করে দেয়। আইপি এড্রেস ব্লক করার জন্য PeerBlock য়ে রয়েছে বিভিন্ন ক্যাটাগরি। যেমন আপনার পিসির যাবতীয় প্রোগ্রাম, সার্ভিসের ইন্টারনেটের একসেসের আইপি এড্রেসগুলোর লিস্ট আপনি লোড নিয়ে সেখান থেকে আপনার অপ্রয়োজনীয় এবং অদরকারী প্রোগ্রামের আইপি এড্রেসকে outgoing এবং incoming দুটো ক্ষেত্রেই ব্লক করে রাখতে পারবেন।

এছাড়াও আপনি পুরো একটি দেশ বা সংস্থার সকল আইপি এড্রেসকেও ব্লক করে রাখতে পারবেন। আপনি এভাবে নিজে থেকেই আইপি এড্রেসের ব্লক লিস্ট বানাতে পারবেন কিংবা ইন্টারনেট থেকে বিভিন্ন আইপি এড্রেসের লিস্টও ডাউনলোড করে PeerBlock য়ে প্রয়োগ করতে পারবেন। আইপি এড্রেস ব্লক করার জন্য PeerBlock অন্যতম একটি সেরা সফটওয়্যাল। এটি উইন্ডোজের সকল ভার্সনেই কাজ করবে। সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে।


Privatefirewall

প্রাইভেট ফায়ারওয়াল প্রোগ্রামটিতে আপনি তিনটি প্রোফাইল পাবেন সহজে ব্যবহারের জন্য। এই তিনটি প্রোফাইলের রয়েছে নিজস্ব ইউনিক সেটিংস এবং ফায়ারওয়াল রুলস। কোন কোন অ্যাপ্লিকেশন কে ব্লক করেছেন এবং কোনগুলো ব্লক লিস্টের ভেতরে নেই সেটা আপনি Privatefirewall দিয়ে ভালোভাবেই বুঝতে পারবেন কোনো সমস্যা হবে না। তবে কোনো প্রসেসের রুলসগুলো এডিট করার জন্য বেশ এডভান্স অপশন আপনি পাবেন যেমন প্রসেসকে হুক সেট করা, থ্রেড ওপেন করা, স্ক্রিণ কনটেন্ট কপি করা, ক্লিপবোর্ড কনটেন্ট মনিটর করা, শাটডাউন বা লগঅফ শুরু করা, ডিবাগ প্রসেস শুরু করার জন্য  allow, ask, block করার সুবিধা দেওয়া বা না দেওয়া ইত্যাদি এডভান্স অপশন আপনি পেয়ে যাবেন। এছাড়াও টাস্কবারের Privatefirewall আইকনের উপর রাইট মাউস ক্লিক করে মাত্র এক ক্লিকেই আপনি পিসির সকল নেটওয়ার্ক এক্টিভিটিকে বন্ধ করে দিতে পারবেন। এছাড়াও স্পেসিফিক আইপি এড্রেস ব্লক করার ফিচারও আপনি এতে পেয়ে যাবেন। সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে।


R-Firewall

R-Firewall তে আপনি সকল ফায়ারওয়াল প্রোগ্রামের ফিচারগুলোই পেয়ে যাবেন কিন্তু এই R-Firewall প্রোগ্রামটি ব্যবহার করা একটু কঠিন তাই আজকের আমাদের লিস্টের অষ্টম স্থানে রয়েছে এই প্রোগ্রামটি। ইউজার ইন্টারফেস ব্যবহার করা একটু কঠিন এবং একই সাথে আপনি প্রোগ্রামটির থেকে কোনো প্রকার inline instructions ও পাবেন না। R-Firewall তে রয়েছে কনটেন্ট ব্লকার যা দিয়ে আপনি ব্রাউজিং ব্লক করতে পারবেন, রয়েছে মেইল ফিল্টার যা দিয়ে cookies/javascript/pop-ups/ActiveX কে ব্লক করতে পারবেন, রয়েছে ইমেইজ ব্লকার যা দিয়ে বিভিন্ন এডকে রিমুভ করতে পারবেন আর রয়েছে জেনারেল এড ব্লকার যা দিয়ে URL ভিক্তিক Ad কে ব্লক করতে পারবেন। তবে মাঝে মাঝে প্রোগ্রাম সার্চ দিলে R-Firewall টি আপনার পিসির সকল ইন্সটলকৃত প্রোগ্রামকে খুঁজে নাও পেতে পারে, তবে যেগুলোকে পাবে তাদের উপর সঠিক ভাবেই কাজ করতে পেরেছে এই ফায়ারওয়াল প্রোগ্রামটি।  সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে।


PeerBlock

লিস্টের নবম স্থানে রয়েছে PeerBlock । নিয়মিত আপডেট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় প্রোগ্রাম আমাদরে আজকের লিস্টের শেষে রয়েছে। ২০০৯ সালে মুক্তির পাবার পর প্রোগ্রামটির শেষ আপডেট ২০১৪ সালের জানুয়ারীতে আসে। PeerBlock হচ্ছে একটি ফ্রি এবং ওপেন-সোর্স পারসোনাল ফায়ারওয়াল প্রোগ্রাম। এটা ব্যবহার করে আপনি একটি ব্ল্যাকলিস্টের হোস্টগুলোর আপনার পিসিতে incoming, outgoing কে বন্ধ করে রাখতে পারবেন এবং মনিটরিং করতে পারবেন। এই ব্ল্যাকলিস্টগুলো iblocklist.com সাইট থেকে সরবরাহ করা হয়ে থাকে। ব্ল্যাকলিস্টের এড্রেসগুলোর ছাড়াও আপনি নিজের মতো করে সাইট এবং আইপি এড্রেস প্রোগ্রামটিতে যোগ করে নিতে পারবেন। এছাড়াও IP এবং HTTP ট্রাকার রয়েছে প্রোগামটিতে, রয়েছে লগ টাইম, সোর্স, ট্রাকারের প্রোটোকল পর্যবেক্ষণ করার ফিচার। PeerBlock ডাউনলোড করে নিন এখানে ক্লিক করে।


GlassWire

আমাদের আজকের লিস্টের শেষে রয়েছে GlassWire । আজকের লিস্টের সকল ফায়ারওয়ালের থেকে এটার ইন্টারফেস ব্যক্তিগতভাবে আমার কাছে বেশ সুন্দর লেগেছে। সৌন্দর্যের পাশাপাশি ফায়ালওয়ালটি কিন্তু বেশ কাজেরও বটে। তবে দেখতে সুন্দর এই ফায়ারওয়াল প্রোগ্রামটি শুধু দেখতেই সুন্দর, ইউজার ফ্রেন্ডলি নয়, তাই আমাদের আজকের লিস্টের একদম শেষে রয়েছে GlassWire। ফায়ারওয়ালটি আপনাকে পিসির কোন প্রোগ্রাম কিংবা প্রসেসগুলো ইন্টারনেট ব্যবহার করছে এবং কতটুকু ব্যবহার করছে সেটা আপনাকে দেখাতে পারবে।

নেটওর্য়াক ট্রাফিক ইউজেস আপনি দেখতে পারবেন এতে, রয়েছে নিদির্ষ্ট প্রোগ্রামকে ইন্টারনেট ব্লক করার সুযোগ আর রয়েছে প্রোগ্রাম স্ক্যানিংয়েরও সুযোগ। GlassWire ইন্সটল করার পর নতুন কোনো প্রোগ্রাম বা সার্ভিস ইন্টারনেটের একসেস করলেই আপনি ফায়ারওয়াল থেকে নোটিফিকেশন পাবেন এবং সেখান থেকে একটি ক্লিকের মাধ্যমেই উক্ত প্রোগ্রামটিকে নেট একসেস থেকে বন্ধ করতে পারবেন কিংবা নেট একসেস দিতে পারবেন। ফ্রি সংস্করণের পাশাপাশি GlassWire এর রয়েছে প্রিমিয়াম ভার্সন । প্রিমিয়াম ভার্সনে পাবেন কিছু প্রিমিয়াম ফিচার যেমন একমাসের বেশি সময়ের রেকর্ড সংষ্করণ, একই সাথে একাধিক রিমোট কানেক্টশন মনিটরিং এবং ওয়েবক্যাম এবং মাইক্রোফোন মনিটরিংয়ের ফিচার। GlassWire ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

এই ছিলো সেরা ১০টি ফ্রি ফায়ারওয়াল প্রোগ্রাম। আমাদের মতো সাধারণ ইউজারদের জন্য শুধুমাত্র এন্টিভাইরাসই যথেষ্ট। তবে যারা পিসিতে সার্ভারের বিভিন্ন কাজ করে থাকেন তাদের জন্য আলাদা ফায়ারওয়াল সফটওয়্যারের প্রয়োজন হতে পারে। আমাদের আজকের লিস্টের বাইরের কোনো ফায়ারওয়াল প্রোগ্রাম যদি আপনি ব্যবহার করে থাকেন তাহলে সেটা সম্পর্কে নিজের কমেন্ট বক্সে আমাদের শেয়ার করতে ভূলবেন না যেন! পরবর্তী পর্বে আরেকটি টপিকে টপ ১০ এর আরেকটি পর্ব নিয়ে আমি চলে আসবো। পোষ্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

Image Credit : Sarayut-sy Via Shutterstock

ফাহাদ

যান্ত্রিক এই শহরে, ভিডিও গেমসের উপর নিজের সুখ খুঁজে পাই। যার কেউ নাই তার কম্পিউটার আছে! কম্পিউটারকে আমার মতো করে আপন করে নিন দেখবেন আপনার আর কারো সাহায্যের প্রয়োজন হবে না।

Add comment

সোশ্যাল মিডিয়া

লজ্জা পাবেন না, সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে টেকহাবসের সাথে যুক্ত হয়ে সকল আপডেট গুলো সবার আগে পান!